৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: এলাকায় কোনও মদের দোকান খুলতে দেওয়া হবে না৷ এর ফলে খারাপ হবে এলাকার পরিস্থিতি৷ এই অভিযোগে ঝাঁটা হাতে সোমবার বনগাঁর গোপালনগরে রাস্তা অবরোধ করলেন স্থানীয় মহিলারা। তাদের সঙ্গে যোগ দিলেন পুরুষরাও৷ রাস্তায় বসে প্রশাসনের বিরুদ্ধে প্রবল বিক্ষোভ প্রদর্শন করলেন তারা৷ একাংশ অভিযোগ করলেন, প্রশাসনের মদতেই এলাকায় বেড়ে উঠছে মদের ঠেক৷ যার জন্য ভবিষ্যতে নষ্ট হচ্ছে এলাকার পরিবেশ৷

[ আরও পড়ুন: আগমনি ফটোশুটে মজেছে জেন-ওয়াই, কদর বাড়ছে ফটোগ্রাফারদের ]

মহিলাদের অভিযোগ, স্থানীয় মানুষদের না জানিয়েই এলাকায় মদের দোকান খোলার অনুমতি দিয়েছে প্রশাসন৷ এই দোকান খুললে নষ্ট হবে এলাকার পরিবেশ৷ বাড়ির পুরুষদের মধ্যে মদের নেশা করার প্রবণতা ছড়িয়ে পড়বে বা তা আরও বেড়ে যাবে৷ এছাড়া দোকানের ঠিক সামনেই একটা মন্দির রয়েছে৷ যেখানে মহিলারা পুজো দিতে আসেন৷ এবার তার সামনে মদের দোকান হলে, বাইরের ছেলেদের আনাগোনা বাড়বে৷ সেখান থেকে মেয়েদের দিকে অশালীন মন্তব্যের পরিমাণ বাড়তে পারে৷ এ সবের জন্য মহিলারা অস্বস্তিতে পড়বেন৷

[ আরও পড়ুন: বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্তাকে ঘিরে বিক্ষোভ পাহাড়ে, দেখানো হল কালো পতাকা ]

জানা গিয়েছে, এই একগুচ্ছ অভিযোগে সোমবার দুপুরে বনগাঁ চাকদহ রোডের গোপালনগর থানার রাইসমিল এলাকায় অবরোধ করে স্থানীয়রা। তাদের প্রশ্ন, জনবহুল এলাকায় কি করে মদের দোকান খোলার অনুমিত মিলল? কোন মতেই সেখানে মদের দোকান খুলতে দেওয়া হবে না। এই দাবিতে প্রায় এক ঘণ্টা রাস্তায় বেঞ্চ পেতে, ঝাঁটা হাতে বসে থাকেন মহিলারা৷ তাদের সঙ্গে যোগ দেন পুরুষরাও৷ তাদের দাবি, পুলিশকে লিখিত ভাবে জানাতে হবে যে, এলাকায় মদের দোকান হবে না৷ তবেই তারা অবরোধ তুলবে৷ অবরোধের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় গোপালনগর থানার পুলিশ। অবরোধকারীদের বুঝিয়ে তারা অবরোধ তোলার চেষ্টা করছেন৷ এই অবরোধের জেরে এলাকায় প্রবল যানজট তৈরি হয়৷ চরম বিপত্তিতে পড়েন নিত্যযাত্রীরা৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং