BREAKING NEWS

২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বাংলার ‘গণতন্ত্র’ শুভেন্দুর যোগদানের মঞ্চে হল ‘গনতন্ত্র’, বানান বিভ্রাটে অস্বস্তিতে বিজেপি

Published by: Paramita Paul |    Posted: December 19, 2020 5:43 pm|    Updated: December 19, 2020 5:47 pm

Wrong spelling on Amit Shah's programme stage | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের বানান বিভ্রাটে বিজেপি (BJP)। এবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপির প্রাক্তন সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের সভার মঞ্চেই লেখা হল ভুল বানান। তাও আবার ‘গণতন্ত্র’ বানানই ভুল। যা নিয়ে ইতিমধ্যে সমালোচনার ঝড় বইতে শুরু করেছে।

পশ্চিম মেদিনীপুরের কলেজ মাঠে অমিত শাহের সভায় বিজেপিতে যোগ দিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী-সহ একঝাঁক তৃণমূল নেতা-নেত্রী। আর এমন হাই-ভোল্টেজ সভাতেই কি না বানান বিভ্রাট! মঞ্চের পিছনে লেখা হয়েছিল ‘অপশাসন হঠাও- গণতন্ত্র বাঁচাও’। কিন্তু লেখার ভুলে গণতন্ত্র হয়ে গেল ‘গনতন্ত্র’। আর বাংলায় হঠাও বা হটাওয়ের পরিবর্তে লেখা হল ‘হাটাও’। যা আদপে একটি হিন্দি শব্দ। এই ঘটনায় বিজেপির বাংলা প্রীতি নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই।

[আরও পড়ুন : অমিত শাহর সঙ্গে যোগাযোগ ২০১৪ থেকেই! যোগদান মঞ্চে বোমা ফাটালেন শুভেন্দু]

সমালোচকদের খোঁচা, বাংলা দখল করতে ঝাঁপাচ্ছে পদ্মশিবির। অথচ সঠিক বাংলা উচ্চারণ জানে না তকাদের নেতাকর্মীরা। আবার গণতন্ত্র বানানটাই যাঁরা ঠিক করে লিখতে পারে না, তাঁরা রাজ্যে গণতন্ত্র স্থাপন কীভাবে করবে? কেউ কেউ সেই প্রশ্নও তুলছেন। তবে বিজেপির বানান বা স্লোগান বিভ্রাট এই প্রথম নয়। একাধিক মিটিং-মিছিলের পোস্টার-হোর্ডিংয়ে বানান ভুলের নিদর্শন লক্ষ্য করা গিয়েছে।  তা বলে এরকম এক প্রেস্টিজ ফাইটেও সেই ভুল! সমালোচনার ঝড় বইছে নেটদুনিয়ায়।

এদিকে এদিনের সভায় কানায় কানায় পরিপূর্ণ ছিল সভার মাঠ। এমনটাই দাবি বিজেপির। সেই ভিড় জমা করার নেপথ্য কাহিনী নিয়ে সরব প্রশান্ত কিশোরের সংস্থা আইপ্যাক। তাঁরা একটি ভিডিও বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে পাঠিয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, কেশিয়ারি থেকে কয়েকজন মহিলা অমিত শাহের সভায় যোগ দিতে এসেছেন। বিজেপির তরফে বাসে চাপিয়ে, খাবার দিয়ে তাঁদের নিয়ে আসা হয়েছে। অথচ কার সভায় এসেছেন তাঁরা, সেটাই বলতেন পারছেন না তাঁরা। এমনকী, একটি হোর্ডিং তাঁদের বয়ে নিয়ে যেতে দেখা গিয়েছে সেই ভিডিওতে। কিন্তু হোর্ডিংয়ে কোন নেতার ছবি রয়েছে, তাও তাঁরা বলতে পারছেন না। 

[আরও পড়ুন : ‘মা-মাটি-মানুষের স্লোগান তোলাবাজি-ভাইপোরাজে বদলে গিয়েছে’, মেদিনীপুর থেকে তোপ শাহর]

তৃণমূলের নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা সংস্থা আই প্যাকের দাবি, “আজ পশ্চিম মেদিনীপুরে দুজন মহিলাকে দেখা যায় কৈলাস বিজয়বর্গীয়ের পোস্টার হাতে হেঁটে যেতে। তাঁদেরকে জিজ্ঞেস করা করা হলে তাঁরা বলতে পারেননি কোথায় যাচ্ছেন, কেন যাচ্ছেন এবং কার পোস্টার নিয়ে যাচ্ছেন।” তবে হোর্ডিংটি কৈলাস বিজয়বর্গীয়র ছিল না। বরং পোস্টারে যাকে কৈলাসের ছবি বলা হয়েছে, সে হাওড়ার বিজেপি নেতা মনোজ পাণ্ডে। 

দেখুন সেই ভিডিও:

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে