BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১১ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস, বিয়ে করতে যাওয়ার নামে তরুণীকে মাঝরাস্তায় ছেড়ে পালাল প্রেমিক

Published by: Sayani Sen |    Posted: July 11, 2020 3:07 pm|    Updated: July 11, 2020 3:08 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একবার বিয়ে করে দাম্পত্য জীবন সুখের হয়নি। ভেবেছিলেন দ্বিতীয়বারের সংসারে হয়তো সুখের হবে না। কিন্তু সুখ কপালে সহ্য হল কই? পরিবর্তে মিলল শুধুই প্রতিশ্রুতি। সহবাসের পরেও হল না সংসার। পরিবর্তে বিয়ে করতে যাওয়ার নামে মাঝরাস্তায় দাঁড় করিয়ে রেখে ছেড়ে চলে গেল যুবক। হুগলির (Hooghly) ত্রিবেণীর ওই তরুণী শনিবার চুঁচুড়া আদালতের দ্বারস্থ হন।

স্বামী পরিত্যক্তা। কাঁধে দায়িত্ব রয়েছে দুই সন্তানের। অথচ উপার্জন প্রায় নেই বললেই চলে। এই পরিস্থিতি দিশাহারা হয়ে গিয়েছিলেন তরুণী। সেই সময় পাশে এসে দাঁড়িয়েছিল হুগলির ত্রিবেণীর কাঁঠালতলার বাসিন্দা শুভঙ্কর দাস। সেই থেকেই তরুণীর সঙ্গে সম্পর্কের সূত্রপাত। এরপর দিন যত গড়াতে থাকে, ততই বাড়তে থাকে ঘনিষ্ঠতা। প্রায় প্রতিদিনই তরুণীর বাড়িতে আসা যাওয়া করত শুভঙ্কর। স্বামী পরিত্যক্তা তরুণীর অভিযোগ, ওই যুবক তাঁকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেয়। একাধিকবার সহবাসও করেন তাঁরা।

[আরও পড়ুন: নন্দকুমারে মনুয়া কাণ্ডের ছায়া, প্রেমিকের সাহায্যের স্বামীকে খুন করে পুঁতে দিল স্ত্রী]

তবে শুভঙ্করের ঘন ঘন তরুণীর বাড়িতে আসা যাওয়া পছন্দ করতেন না প্রতিবেশীরা। তাঁরা চিৎকার চেঁচামেচি করতেন। গত ২ জুলাই রাতে শুভঙ্কর তরুণীর বাড়িতে গিয়েছিল। সেই সময় প্রতিবেশীরা অশান্তি করতে থাকেন। এরপর ওই যুবক প্রতিশ্রুতি দেয় বিয়ে করে তরুণীকে বাড়িতে নিয়ে যাবে। দিনকয়েক আগে বিয়ে করার কথা ছিল তাদের। সেই অনুযায়ী সেজেগুজে তৈরি ছিলেন তরুণী। বাড়ি থেকে তাকে নিয়েও যায় শুভঙ্কর। মাঝরাস্তায় দুই সন্তান-সহ তরুণীকে দাঁড় করিয়ে রেখে চলে যায় শুভঙ্কর। বারবার ফোন করেন তরুণী। ফোন করলে তরুণীকে হুমকি দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ। বারবার এ বিষয়ে মগরা থানায় অভিযোগ জানান তিনি। অবশেষে শনিবার চুঁচুড়া আদালতেরও দ্বারস্থ হন ওই মহিলা।

[আরও পড়ুন: ‘পঞ্চায়েতে বসে টাকা কামানো চলবে না’, দলীয় কর্মীদের ভর্ৎসনা অনুব্রতর]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement