BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বাংলাদেশে নজির গড়ে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৫৩, আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়াল ৯৪ হাজার

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: June 16, 2020 6:31 pm|    Updated: June 16, 2020 6:36 pm

An Images

ফাইল ফটো

সুকুমার সরকার, ঢাকা: বাংলাদেশে অপ্রতিহত গতিতে থাবা বসিয়ে চলেছে করোনা ভাইরাস। এর সংক্রমণ রুখতে রেড জোনে ফের জারি হয়েছে লকডাউন (lock down)। মানুষ যাতে সরকারি নিয়ম মেনে চলে তার জন্য সেনাও মোতায়েন করা হয়েছে। এর মাঝেই গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এটি এখনও পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। এর ফলে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল এক হাজার ২৬২ জন। একই সময়ে নতুন করে আরও তিন হাজার ৮৬২ জনের মধ্যে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। ফলে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৯৪ হাজার ৪৮১ জনে।

Dhaka-in-lockdown

সরকারের কড়া ব্যবস্থার পরেও যেন আরও আক্রমণাত্মক হয়ে উঠেছে করোনা ভাইরাস। মঙ্গলবার সংক্রমণের ১০০ দিন পার করল বাংলাদেশ। দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যাচ্ছে, সংক্রমণের শততম দিনে চিন, ব্রিটেন, ভারত ও পাকিস্তানে যে পরিমাণ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। বাংলাদেশে তার চেয়েও বেশিসংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনা ভাইরাস বিষয়ক নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এই তথ্য জানান অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

[আরও পড়ুন: বাংলাদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়াল ৯০ হাজার, একদিনে মৃত ৩৮]

এদিকে ‘রেড জোন’ এলাকায় জনসাধারণের চলাচল নিয়ন্ত্রণ করতে সেনা টহল জোরদার করা হয়েছে। ঢাকার ৪৫টি এলাকাকে রেড জোন (Red Zone) হিসেবে চিহ্নিত করেছে প্রশাসন। সোমবার মন্ত্রিপরিষদ থেকে জারি করা নির্দেশে রেড জোনে সাধারণ ছুটি থাকবে বলে জানানো হয়েছে। ১৬ থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত অফিস, গণপরিবহণ-সহ অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড কীভাবে পরিচালিত হবে এবং কোন ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে সেই বিষয়ে এই নির্দেশ জারি করা হয়েছে। বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা করতে ২৪ মার্চ থেকে সশস্ত্র বাহিনী মাঠে রয়েছে। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে দুমাসের বেশি সময় সারাদেশে লকডাউন জারি রাখার পর ৩১ মে থেকে বেশিরভাগ বিধিনিষেধ তুলে নেয় সরকার।

কিন্তু, তারপর প্রতিদিন সংক্রমণ বাড়তে থাকায় এলাকা ধরে ধরে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার অনুযায়ী লাল, সবুজ ও হলুদ জোনে ভাগ করে প্রয়োজন অনুযায়ী বিধিনিষেধ আরোপের সিদ্ধান্ত হয়। সেই অনুযায়ী ঢাকার অদূরে গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ এবং নরসিংদী জেলার কিছু এলাকা এবং ঢাকার পূর্ব রাজাবাজারে ‘পরীক্ষামূলক জোনিং সিস্টেম’ চালু করা হয়েছে। ঢাকার ওয়ারীতেও একই ধরনের ব্যবস্থা নিতে এলাকা চিহ্নিত করার কাজ চলছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

[আরও পড়ুন: সংক্রমণ বৃদ্ধির জের, ঢাকা ও চট্টগ্রামের ৫৫টি এলাকায় ফের শুরু লকডাউন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement