১৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২ জুন ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনে দূরত্বের যন্ত্রণা, করোনা পরিস্থিতিতে প্রকাশিত মুখ্যমন্ত্রীর নতুন কবিতা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 30, 2020 8:53 pm|    Updated: March 30, 2020 8:53 pm

An Images

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তিনি। কাজের মানুষ, কাছেরও মানুষ। দিনভর হাজারও কাজের ব্যস্ততা সামলেও কাব্যচর্চা তাঁর অবসরের সঙ্গী। শুধু তাইই নয়, যে কোনও গুরুত্বপূর্ণ পরিস্থিতিতে নিজের মনের কাঠামো দিয়ে বুঝে, অনুভব করে কলম ধরাটাও তাঁর কাছে বিশেষ ব্যাপার নয়। তাই লিখে চলেন একের পর এক কবিতা। কখনও মনের আনন্দে, কখনও বা জনসচেতনতা, কখনও আবার বার্তা দিতে। নোটবন্দি, এনআরসি-সিএএ’র মতো গুরুগম্ভীর বিষয় নিয়েও গর্জে উঠেছিল তাঁর কলম। এবারও তাই হল। বিষয়বস্তু – করোনা বাইরাস বা কোভিড ১৯। ছত্রে ছত্রে যার বিষণ্ণতা আর আক্ষেপ।

[আরও পড়ুন: পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য কমিউনিটি কিচেন, অস্থায়ী রেশন কার্ডের ব্যবস্থা করছে রাজ্য]

মুখ্যমন্ত্রী লেখা কবিতার নাম – কোভিড ১৯। তিনি লিখেছেন –

বস্তাপচা ময়লায় ঢেকে গেছে পৃথিবীটা
মানুষ, মানুষ থেকে দূরে।
ছোঁয়া যাবে না – স্নেহের পরশকে।

কালও যা ছিল –
হাতের ছোঁয়ায় আশীর্বাদ,
আজ তা পরশমণির
স্পর্শ থেকে বাদ।

এ কি ভয়ার্ত বেশ…
সারা বিশ্ব এক থেকে অন্যে-
সন্দিহান অবকাশের নিশিরাত্রি!
মাত্র দুমাসের পৃথিবীর
হাওয়া বদল!
দেখা হল কথা হল না!
মনটায় মেঘের ছায়া,
চুলগুলো উদভ্রান্ত!
কারো সাথে দেখা হল-
কথা হচ্ছে না।
সারা পৃথিবীটা-
বদলে গেল।
বদলে গেল মানসিকতা-
সবাই দূরে দূরে।
দূরের দূরত্বটাই আজ সবচেয়ে বেশি ভরসার।
সারা বিশ্ব আজ বিশ্ব পণ্ডিত!
কিন্তু পারলো না-
একটা ভাইরাসকে দমন করতে?
হার মানলো সারা বিশ্ব?

সবার মুখ দেখা
সবার জন্য বন্ধ।
সব গবেষণাকে
জব্দ করলো
একটা মাত্র শব্দ
করোনা, কোভিড ১৯।

[আরও পড়ুন: এসি বাসে ভ্রাম্যমাণ রক্তদান শিবির, সংকট মেটাতে অভিনব উদ্যোগ রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের]

সদ্যই নিজের ফেসবুকে পাতায় কবিতাটি শেয়ার করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তারপর থেকে লাইক, শেয়ারের বন্যা। বোঝাই যাচ্ছে, এই যে লকডাউন চলছে, জাতির স্বার্থে এমন একটা কড়া সিদ্ধান্তকে গ্রহণ করছেন তিনি। কিন্তু মানুষে-মানুষে দূরত্ব, যাকে ডাক্তারি পরিভাষায় ‘সামাজিক দূরত্ব’ বলে চিহ্নিত করা হচ্ছে, তা মুখ্যমন্ত্রীকেও ছুঁয়ে গিয়েছে মনের গভীর থেকে। তিনি তো জননেত্রী, সকলকে নিয়ে থাকাই তাঁর অভ্যাস। দূরত্ব বজায় রেখে থাকতে তিনি অনভ্যস্ত। কবে এই দূরত্ব ঘুচে ফের মানুষের সঙ্গে মানুষের মেলামেশা হবে, সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement