২১ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৬ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

ফের ‘মসিহা’ সোনু সুদ, ৪০০টি পরিযায়ী শ্রমিকের পরিবারের দায়িত্ব নিলেন অভিনেতা

Published by: Sulaya Singha |    Posted: July 13, 2020 9:01 pm|    Updated: July 13, 2020 9:01 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শরীরে থাবা বসানোর আগে কোনও জাত-ধর্ম বা বর্ণ দেখে না নোভেল করোনা ভাইরাস (Coronavirus)। তাই প্রত্যেককে সুরক্ষিত রাখতেই দেশে ঘোষিত হয়েছিল লকডাউন। ঠিক একইরকমভাবে জাতপাত বিচার না করেই লকডাউনের মধ্যে পরিযায়ী শ্রমিকদের সাহায্য করেছেন সোনু সুদ। ভিনরাজ্যে আটকে পড়াদের বাড়ি ফিরিয়ে অসহায় মানুষগুলির আশীর্বাদ কুড়িয়েছেন। আনলক পর্বেও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। এবার মৃত এবং আহত ৪০০টি পরিযায়ী শ্রমিকদের পরিবারের দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিলেন বলিউড অভিনেতা।

সোনুর কথায়, “আমি ঠিক করেছি আহত ও নিহত পরিযায়ী শ্রমিকদের পরিবারের পাশে দাঁড়াব। তাদের ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত করাই লক্ষ্য। এটাকে ব্যক্তিগত দায়িত্বই মনে করছি।” লকডাউনে বাড়ি ফিরতে গিয়ে কিংবা খাবারের অভাবে প্রাণ হারিয়েছেন বহু পরিযায়ী শ্রমিক। সংসারের একমাত্র উপার্জনকারীকে হারিয়ে অসহায় অবস্থা সেই সব বাড়ির বাকি সদস্যদের। এমনই ৪০০টি পরিবারের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন সোনু (Sonu Sood)। ইতিমধ্যেই উত্তরপ্রদেশ, ঝাড়খণ্ড এবং বিহার প্রশাসনের সঙ্গে এ নিয়ে কথাও বলেছেন তিনি। এরকম পরিবারগুলির তালিকা চেয়েছেন।

[আরও পড়ুন: বিগ বি আক্রান্ত হওয়ার পরই বেড়েছে মাস্ক পরার প্রবণতা, কী ব্যাখ্যা দিলেন মনোবিদরা?]

লকডাউনের মধ্যেও কেরল, বিহার, অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে শুরু করে বিভিন্ন জায়গা থেকে কাজ করতে আসা শ্রমিকদের বাড়ি পৌঁছে দিয়েছেন সোনু। আর ঠিক যে কারণেই লকডাউনের সবচাইতে আলোচ্য নাম হয়ে উঠেছিলেন তিনি। তাঁকে শ্রদ্ধার্ঘ্য জানিয়ে বিহারের গ্রামে মূর্তিও স্থাপন করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, সদ্যোজাতের নামকরণ করা থেকে ভারতরত্ন দেওয়ার দাবিও তুলেছিলেন তাঁর অনুরাগীরা। খালি হাতে ফিরতে হয়নি বাংলার শ্রমিককেও। সোনুর কাছে আরজি জানানোর পরই বাড়ি ফিরতে পেরেছিলেন তিনি। সমস্ত ব্যবস্থা নিজেই করে দেন অভিনেতা। তাঁর এই মানবিকতার নিদর্শন শুধু লকডাউন বা করোনা কালেই আটকে রইল না। পরিযায়ী পরিবার ভবিষ্যতেও যে একইভাবে সোনুকে পাশে পাবেন, সেটাই বুঝিয়ে দিলেন তিনি।

[আরও পড়ুন: সুস্থতার পথে অমিতাভ ও অভিষেক বচ্চন, কবে থেকে শুটিং ফ্লোরে নামবেন দুই তারকা?]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement