৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উষসী কাণ্ডের রেশ কাটতে না কাটতেই কলকাতা শহরে ফের দুষ্কৃতীর টার্গেট অভিনেত্রী। অভিযোগ, সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেত্রী অরুণিমা ঘোষকে হুমকি দিয়েছে এক যুবক। সোমবার অভিযুক্তকে সার্ভে পার্ক থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ২৮ জুলাই পর্যন্ত তাকে পুলিশি হেফাজতে রাখা হবে।

[ আরও পড়ুন: সংকটে অভিনয় কেরিয়ার? ভূতুড়ে ওয়েব সিরিজে হাত দিলেন শাহরুখ ]

অরুণিমার অভিযোগ, টানা ছ’মাস ধরে অভিনেত্রীকে ক্রমাগত হুমকি দিয়েছে মুকেশ। অরুণিমার অ্যাকাউন্টে তাঁকে আপত্তিকর কথাও বলে অভিযুক্ত। এই নিয়ে ৩০ মে সাইবার সেলে অভিযোগ জানান অরুণিমা। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই পেশায় মুদির দোকানি মুকেশ সাউকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সার্ভে পার্ক এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে লালবাজার সাইবার সেল। অভিনেত্রীর অভিযোগ, তাঁর উপর রীতিমতো নজরদারি চালাত মুকেশ। সে এও জানত অরুণিমার বাবা ডাক্তার। অভিনেত্রীর বক্তব্য সচরাচর তাঁর পরিবার সম্পর্কে এত খবর কেউ জানে না। কিন্তু মুকেশ এতটাই তাঁর ব্যক্তিগত জীবনে উঁকিঝুঁকি মারত যে অভিনেত্রীর সব খবরই তার কাছে ছিল।

অরুণিমা জানিয়েছেন, এবছরের গোড়ার দিকে সমস্যার সূত্রপাত। প্রথম দিকে বিষয়টি এড়িয়েই চলছিলেন তিনি। কিন্তু ক্রমশ উৎপাত বাড়তে থাকে। অভিযোগ, অভিনেত্রীর সোশ্যাল সাইটে যদি কেউ কমেন্ট করত, তাহলে তার প্রোফাইলে গিয়েও হুমকি দিত ওই যুবক। এনিয়ে বহুবার অরুণিমার কাছে অভিযোগ এসেছে। এমনকী অরুণিমা যখন একটি অ্যাকাউন্ট ব্লক করে দিতেন, অন্য একটি অ্যাকাউন্ট খুলে নিজের কাজ চালিয়ে যেত ওই যুবক। এভাবে পরপর ২৫টি অ্যাকাউন্ট ব্লক করেন অরুণিমা। ওই যুবকের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানিরও অভিযোগ করেছেন অভিনেত্রী।

[ আরও পড়ুন: পর্দায় হৃতিক বনাম টাইগার, পুজোয় মারকাটারি অ্যাকশনের ইঙ্গিত ‘ওয়ার’-এর টিজারে ]

তাও হাল ছাড়েনি মুকেশ। এরপর একপ্রকার বাধ্য হয়েই ৩০ মে সাইবার সেলে অভিযোগ জানান অভিনেত্রী। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে শুরু হয় তদন্ত। খোঁজ পাওয়া যায় মুকেশেরও। গড়ফা থেকে গ্রেপ্তার হয় মুকেশ। ২৮ জুলাই পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতে থাকবে সে। কেন সে ওই অভিনেত্রীকে হুমকি দিচ্ছিল, তাও জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং