BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কথা রাখলেন, সুস্থ হয়ে করোনা চিকিৎসার জন্যে প্লাজমা দান করলেন জোয়া মোরানি

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: May 10, 2020 11:42 am|    Updated: May 10, 2020 11:42 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মারণ ভাইরাসের কোনও ভ্যাক্সিন নেই! নেই কোনও ওষুধও। তবুও চিকিৎসকেরা দিনরাত সেবা-শুশ্রুষা করে সারিয়ে তুলছেন মানুষদের। এই করোনা যোদ্ধারাই কিন্তু পারেন আরেক করোনা আক্রান্ত রোগীকে সাহায্য করতে, কিংবা নিজেদের রক্তদান করে এই কঠিন পরিস্থিতিতে চিকিৎসকদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়াতে। সাধারণ মানুষের স্বার্থে সেই সিদ্ধান্তই নিয়েছিলেন বলিউডের খ্যাতনামা মোরানি পরিবারের তিন সদস্য। মোরানি-কন্যা জোয়া কথা দিয়েছিলেন করোনামুক্ত হওয়ার পর প্লাজমা দান করবেন। প্রতিশ্রুতিমতো করলেনও তাই। শরীর সুস্থ হয়ে ওঠার পর নিজে হাসপাতালে গিয়ে করোনা আক্রান্তদের স্বার্থে প্লাজমা দান কর এলেন।

শনিবার মুম্বইয়ের নায়ার হাসপাতালে প্রযোজক করিম মোরানির মেয়ে জোয়া করোনা চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপির জন্যে রক্ত দান করে এলেন। সেই মুহূর্তের ছবিও তিনি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেছেন, যাতে তাঁর মতোই আর পাঁচজন করোনামুক্ত ব্যক্তিরা এগিয়ে আসেন দেশের স্বার্থে, দশের স্বার্থে। তবে এদিন জোয়াকে রক্তদান করতে দেখা গেলেও তাঁর বোন সাজা এবং বাবা করিম মোরানিকে দেখা গেল না। প্লাজমা দানের পর জোয়াকে একটি সার্টিফিকেট এবং তার সঙ্গে ৫০০ টাকাও দেওয়া হয় হাসপাতালের তরফে। যদিও জানালেন মোরানিকন্যা নিজেই।

[আরও পড়ুন: পরিস্থিতি জানতে বসিরহাটের স্বাস্থ্য আধিকারিকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে নুসরত]

প্রসঙ্গত, করোনা আক্রান্ত হওয়ায় দিন কয়েকের মধ্যেই COVID-19 মুক্ত হয়ে উঠেছিলেন মোরানি পরিবারের তিন সদস্য। বর্তমানে বাবা এবং দুই মেয়ে, তিনজনই সুস্থ। আর তাই প্লাজমা দান করে এলেন। পাশাপাশি জয়ন্তী শাস্ত্রী এবং রমেশ ওয়াঘমেয়ার নামে দুই চিকিৎসককে ধন্যবাদও জানালেন। রক্ত দান করার পর সেখানকার স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে ছবিও তুলেছেন জোয়া। করোনা মোকাবিলায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাঁরা উদয়াস্ত কাজ করে চলেছেন, তাঁদের কুর্নিশ জানিয়ে জোয়া ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্টও করেছেন।   

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Donated my blood today for the #plasmatherapy trials at #nairhospital .. it was fascinating !!! Always a silver lining i suppose … the team there was so enthusiastic and careful. There was a general physician on standby just incase of emergency and the equipment brand new and safe !!! All #Covid19 recovered people can be a part of this trial , to help others covid patients recover ! Thank you Dr Jayanti Shastri and Dr Ramesh Waghmare for taking such good care of me .. hope this works 🤲🏽🤲🏽🤲🏽🤲🏽🤲🏽🤲🏽 #covidrecovery #IndiaFightsCorona They even gave me a certificate and 500 rs , Wont lie , i felt super cool today ☺️

A post shared by Zoa💫 (@zoamorani) on

[আরও পড়ুন: পরিস্থিতি জানতে বসিরহাটের স্বাস্থ্য আধিকারিকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে নুসরত]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement