BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মোদির বায়োপিক প্রভাবিত করবে ভোটারদের, মেনে নিল কমিশন

Published by: Sulaya Singha |    Posted: April 24, 2019 2:29 pm|    Updated: April 24, 2019 2:29 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মোদির বায়োপিককে রেড সিগন্যাল আগেই দেখিয়ে দিয়েছিল নির্বাচন কমিশন। এবার সুপ্রিম কোর্টের কাছে সেই রিপোর্ট জমা দিল তারা। আদালতকে কমিশন জানিয়ে দিল, নির্বাচনী মরশুমে ছবিটি সত্যিই জনসাধারণের উপর প্রভাব ফেলতে পারে।

বিবেক ওবেরয় অভিনীত ‘পিএম নরেন্দ্র মোদি’ মুক্তি পাওয়া নিয়ে প্রথম থেকেই জটিলতা তৈরি হয়। প্রথমে ঠিক ছিল, লোকসভা নির্বাচনের আগে ৫ এপ্রিলই মুক্তি পাবে ছবি। কিন্তু ছবির মুক্তি নিষিদ্ধ করা নিয়ে সরব হয় কংগ্রেস। এনিয়ে কমিশনকে অভিযোগ জানানোয় প্রাথমিকভাবে মুক্তি পিছিয়ে যায়। তারপর মুক্তির দিন ১১ এপ্রিল ঠিক হয়। কিন্তু সেখানেও বাধা। জল গড়ায় সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত। ছবিটি নিষিদ্ধ করার আগে কমিশনকে তা দেখার প্রস্তাব দেয় সর্বোচ্চ আদালত৷ গোটা বিষয় খতিয়ে দেখে কমিশন জানিয়ে দেয়, নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত ছবি মুক্তির অনুমতি দেওয়া যাবে না। কিন্তু কেন এমন সিদ্ধান্ত? কমিশনের দাবি, এ ছবিতে মোদির চরিত্রকে অতিনাটকীয়ভাবে তুলে ধরা হয়েছে। এটি মুক্তি পেলে একটি বিশেষ রাজনৈতিক দল মাইলেজ পাবে বলেই মত দেয় কমিশন। তাই ১৯ মে অর্থাৎ ভোটের সপ্তম তথা শেষ দফার আগে ‘পিএম নরেন্দ্র মোদি’ মুক্তি পাবে না।

[আরও পড়ুন: মোদির পর কমিশনের কোপে ‘বাঘিনী’, নিষিদ্ধ ছবির ট্রেলার]

মোদির জীবনের নানা ওঠাপড়া, সংঘের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক, গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থেকে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার যাত্রাপথ সবই উঠে এসেছিল মোদির বায়োপিকের ট্রেলারে৷ সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী, কমিশন একটি কমিটি গঠন করে। যে কমিটির সদস্যরা ছবিটি দেখে শীর্ষ আদালতকে রিপোর্ট জমা দেন। জানা গিয়েছে সেই রিপোর্টেই ছবির মুক্তি পিছিয়ে দেওয়ার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। কমিশন কার্যত বিরোধীদের অভিযোগেই সিলমোহর লাগিয়ে সুপ্রিম কোর্টে রিপোর্ট জমা দিল। এই ছবি যেহেতু মোদিকে লার্জার দ্যান লাইফ হিসেবে তুলে ধরেছে, তাই তা মুক্তি পেলে ভোটারদের প্রভাবিত করবে বলেই মত কমিশনের। এদিকে কমিশনের সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ ছবির নির্মাতারা। প্রশ্ন তোলা হয়, সেন্সর বোর্ড সবুজ সংকেত দেওয়ার পরও কেন ছবির মুক্তি পিছনো হচ্ছে? সব মিলিয়ে মোদির বায়োপিক মুক্তি এখন বিশ বাঁও জলে।

[আরও পড়ুন: ‘এখনও কুর্তা-পাজামা ও মিষ্টি পাঠান মমতা দিদি’, অক্ষয়কে জানালেন মোদি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement