১৩ কার্তিক  ১৪২৭  শুক্রবার ৩০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

অন্যের মেসেজকে অনুরাগের বলে দাবি! পরিচালককে ‘ফাঁসাতে’ গিয়ে নিজেই বিপাকে অভিনেত্রী

Published by: Suparna Majumder |    Posted: September 22, 2020 5:05 pm|    Updated: September 22, 2020 9:58 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অনুরাগ কশ্যপ-পায়েল ঘোষ কাণ্ডের সূত্র ধরেই ফের বলিউডে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে ‘মি টু’ (#MeToo)  আন্দোলন। বন্ধ ঘরে অশালীন আচরণ করেছিলেন অনুরাগ (Anurag Kashyap)। এই অভিযোগে মুম্বইয়ের ভরসোভা থানায় এফআইআর করলেন অভিনেত্রী পায়েল ঘোষ (Payal Ghosh)। তাঁর সমর্থনে সোচ্চার হয়েছেন কঙ্গনা রানাউত (Kangana Ranaut) এবং রূপা গঙ্গোপাধ্যায় (Roopa Ganguly)। সোশ্যাল মিডিয়ায় দু’জনকেই ধন্যবাদ জানিয়েছেন পায়েল। এমন পরিস্থিতিতে বাঙালি অভিনেত্রীর পাশে দাঁড়াতে গিয়ে ছন্দপতন ঘটালেন আরেক অভিনেত্রী রূপা দত্ত (Rupa Dutta)। অনুরাগ কশ্যপের শাস্তির দাবি জানিয়ে টুইটারে (Twitter) তাঁর সঙ্গে কথোপকথনের যে স্ক্রিনশট অভিনেত্রী দিয়েছিলেন তা আসলে অনুরাগের নয়, অন্য কারও প্রোফাইলের। এমনটাই দাবি এক বেসরকারি সংবাদমাধ্যমের।

[আরও পড়ুন: সিনেমা হল খুললে বড় ঘোষণা করবেন আদিত্য চোপড়া, চুক্তিতে শাহরুখ-সলমন-রণবীরও]

ফেসবুকের ডিরেক্ট মেসেজের স্ক্রিনশট শেয়ার করেছেন রূপা। যেখানে ‘অনুরাগ সফর’ নামে প্রোফাইলের সঙ্গে তাঁর চ্যাট দেখানো হয়েছে। চ্যাটে অনুরাগ নামের ওই ব্যক্তি নিজেকে ‘মহিলা বিশেষজ্ঞ’ হিসেবে দাবি করেছেন। চ্যাটের স্ক্রিনশট শেয়ার করে ক্যাপশনে রূপা লেখেন পায়েলের যাবতীয় অভিযোগ সত্যি। অনুরাগকে তিনি বহু আগেই ভাল করে চিনে গিয়েছিলেন। এমন মানুষের কঠিন শাস্তি হওয়া উচিত। অনুরাগ নিজে মাদক নেন এবং অন্যদেরও দেন বলে অভিযোগ করেন রূপা। NCB আধিকারিকদের এবিষয়ে তদন্ত করার আবেদন জানান। কিন্তু ফেসবুকে অনুরাগের প্রোফাইলের নাম ‘অনুরাগ কশ্যপ ২.০’। সেটিই পরিচালকের একমাত্র ভেরিয়াফায়েড ফেসবুক (Facebook) প্রোফাইল। আগেও অনুরাগের অন্য কোনও নামে প্রোফাইল ছিল না বলে দাবি এক সংবাদমাধ্যমের। সেই খবর রিটুইট করেছেন পরিচালক নিজে।

অনুরাগ ইস্যুতে কঙ্গনা রানাউত এবং বিজেপি সাংসদ (BJP MP) রূপা গঙ্গোপাধ্যায় পায়েলের পাশে দাঁড়ালেও তাপসী পান্নু, কল্কি কোয়েচলিন, রিচা চড্ডা, রাধিকা আপ্টে, সায়নী গুপ্তর মতো অভিনেত্রীরা পরিচালকের পাশে দাঁড়িয়েছেন। এই তালিকায় শামিল হলেম হুমা কুরেশিও (Huma Qureshi)। অনুরাগ তাঁর সঙ্গে কোনওদিন অযাচিত ব্যবহার করেননি বলে বিবৃতি দেন হুমা। পাশাপাশি এই ঘটনায় তাঁর নামের উল্লেখ করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অভিনেত্রী। অনুরাগের সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করা জয়দীপ সরকারও পরিচালকের সমর্থনে টুইট করে জানান, ২০০৪ সালে এক অভিনেত্রী চরিত্র পাওয়ার জন্য অনুরাগের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু অনুরাগ শোনা মাত্রই তাঁকে প্রত্যাখ্যান করেছিলেন।

[আরও পড়ুন: ‘ভয় লাগছে, আমাকে মেরেই ফেলবে’, মৃত্যুর ৫ দিন আগে দিদিকে জানিয়েছিলেন সুশান্ত!]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement