BREAKING NEWS

৯ আষাঢ়  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৪ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘৮ বছর হয়ে গেল তুমি নেই’, ঋতুপর্ণের মৃত্যুদিনে স্মৃতিচারণায় মগ্ন প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা

Published by: Biswadip Dey |    Posted: May 30, 2021 12:00 pm|    Updated: May 30, 2021 12:17 pm

Bengal remembers Rituparno Ghosh on his 8th death anniversary | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আট বছর আগের একদিন। জীবনানন্দ দাশের কবিতার শিরোনাম হয়ে বাঙালির কাছে ফিরে এল আরেকটা ৩০ মে। ঋতুপর্ণ ঘোষের (Rituparno Ghosh) চলে যাওয়ার দিন। ২০১৩ সালের সেই দিনটিতে সকালবেলায় দেখা গিয়েছিল নিজের ঘরে প্রিয় বিছানায় নিদ্রিত তিনি। যে ঘুম আর ভাঙবে না কক্ষনও। জীবনানন্দর সেই কবিতার লাইন ছুঁয়ে বলতে গেলে ‘এই ঘুম চেয়েছিল বুঝি!’ এতগুলো বছর পেরিয়ে গিয়েও বাঙালির মননে সদা জাগ্রত সেলুলয়েডের মরমি শিল্পী-পরিচালক। তাঁর আকস্মিক মৃত্যুর অভিঘাত রয়ে গিয়েছে আজও। আর তাই রবিবাসরীয় এই সকালে সোশ্যাল মিডিয়ায় স্মৃতিচারণে মগ্ন টলিউডের তারকা শিল্পীরা।

সুপারস্টার প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় (Prosenjit Chatterjee) লিখেছেন, ‘‘৮ বছর হয়ে গেছে তোর কোনো মেসেজ নেই, বকাঝকা নেই, সাক্ষাৎ হয় না, ঝগড়া হয় না, নতুন নতুন গল্প নিয়ে আলোচনা হয় না। কিন্তু তুই আছিস- আমাদের মনে, আমাদের কথাবার্তায় তুই চির বর্তমান। এই সময়টায় তোর থাকা খুব দরকার ছিল রে। ভালো থাকিস ঋতু।’’

[আরও পড়ুন: ভাল নেই মিমি চক্রবর্তী! ভিডিও পোস্ট করে কোন যন্ত্রণার কথা বললেন অভিনেত্রী?]

স্মৃতিচারণ করেছেন ঋতুপর্ণের আরেক কাছের মানুষ অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত (Rituparna Sengupta)। তিনি লিখেছেন, ‘‘কতদিন হয়ে গেল তোমার সাথে বসে গল্প করি না, দেখাও হয় না …৮ বছর হয়ে গেল তুমি নেই… শুধু তোমার কাজ, তোমার শিক্ষা, তোমার ভালোবাসা, তোমার বকা আর অনেক আশীর্বাদ আছে সঙ্গে! নতুন করে তোমায় মিস করি না, কারণ কোনওদিন ভুলতেই যে পারিনি তোমায়! অনেক প্রণাম, ভালোবাসা আর তোমার প্রিয় ফুলের সুগন্ধ পাঠালাম। ভাল থেকো।’’

অভিনেতা যিশু সেনগুপ্তও (Jisshu Sengupta) পোস্ট করেছেন তাঁর প্রিয় ‘ঋতুদা’কে নিয়ে। লিখেছেন, ‘‘আজ ৩০ মে। তাঁর চলে যাওয়ার আট বছর হল। ভালো থেকো ঋতুদা।’’ টলিউডের আরেক ব্যস্ত শিল্পী অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় (Parambrata Chatterjee) লিখেছেন, ‘‘আট বছর আগে আজকের দিনটার স্মৃতি মন থেকে এখনও ভুলে উঠতে পারিনি। ভোররাত থেকেই সেদিন বৃষ্টিতে ভিজেছিল গোটা শহর, আর ভিজেছিলে তুমি। বৃষ্টির অঝোর ধারাকে নিজের ‘দোসর’ পাতিয়ে মেঘপিয়নের দেশে পাড়ি দিয়েছিলে তুমি। সিনেমার বিশাল মহাযুদ্ধে নিজেকে সেদিন অভিভাবকহীন এক সৈনিক ছাড়া আর কিছুই মনে হয়নি। প্রত্যেকটা জেনারেশনের একজন মহীরুহের প্রয়োজন পড়ে, যাঁকে দেখে বা যাঁর দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে আমাদের সামনের দিকে এগিয়ে চলতে হয়। তোমার চলে যাওয়ায় ওই মুহূর্ত থেকে যে অভাববোধ তৈরি হয়েছিল মনে, তা আজও পূরণ হয়নি, আর হবেও না কোনোদিন। কারণ তুমি তো অনুপম, তোমার দ্বিজ কল্পনাতীত!’’

তাঁর চলে যাওয়া আজও মেনে নিতে পারেননি টলিউডের কলাকুশলীরা। ভুলতে পারেননি সাধারণ মানুষরাও। যাঁরা দল বেঁধে তাঁর ছবি দেখতেন প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে। আজও অবসরে ‘উনিশে এপ্রিল’, ‘উৎসব’, ‘দোসর’, ‘চোখের বালি’, ‘বাড়িওয়ালি’র মতো অসংখ্য ছবি তাঁদের নিত্যসঙ্গী। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁরাও শ্রদ্ধার্ঘ্য জানিয়েছেন প্রয়াত শিল্পীকে। সিনেমা করতে আসার আগে বিজ্ঞাপনের কপিরাইটার ছিলেন ঋতুপর্ণ। লিখেছিলেন অসামান্য সব ক্যাচলাইন। তারই অন্যতম ছিল বোরোলিনকে নিয়ে লেখা ‘বঙ্গজীবনের অঙ্গ’ শব্দবন্ধটি। ঋতুপর্ণ ঘোষের সৃষ্টিও বাঙালি মনন ও কৃষ্টির অঙ্গ হয়ে থেকে যাবে চিরকাল। বঙ্গজীবনের অঙ্গ হয়েই।

[আরও পড়ুন: বিহারের রাজনীতি কতটা তুলে ধরতে পারল হুমা কুরেশির ‘মহারানি’ সিরিজ? পড়ুন রিভিউ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement