BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

স্থানীয় প্রশাসনের কাছে গিয়েও লাভ হয়নি, লিলুয়ার বেহাল দশা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ ইমন

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: August 6, 2020 9:17 am|    Updated: August 6, 2020 11:23 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাস্তাঘাটের অবস্থা বেহাল। উপরন্তু গোদের উপর বিষফোঁড়া বর্ষার মরসুম। কোথাও হাঁটু অবধি কাদাজল, তো আবার কোথাও বা খানাখন্দ! যে কোনও সময়েই ঘটতে পারে কোনও অঘটন। বাড়ি থেকে বেরিয়ে প্রতিদিন এমনই সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় লিলুয়ার বাসিন্দাদের। চূড়ান্ত অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ। এমনকী, ভাঙা রাস্তায় জল জমার ফলে স্কুটি, সাইকেল, টোটো উলটে যাওয়া কিংবা পড়ে গিয়ে কারও হাত-পা ভাঙা এসব তো লেগেই রয়েছে। নিজের এলাকাবাসীর এই সমস্যা নিয়েই সরব হলেন জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত গায়িকা ইমন চক্রবর্তী। দিন কয়েক ধরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় লিলুয়ার রাস্তাঘাট নিয়ে মুখ খুলেছিলেন গায়িকা। প্রশাসনিক কর্তা ব্যক্তিদের বলে-কয়েও লাভ হয়নি, তাই এবার ইমন সরাসরি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Bannerjee) দ্বারস্থ হয়েছেন।

ইমন (Iman Chakraborty) আদতে লিলুয়ারই বাসিন্দা। লকডাউনের সময়টায় টানা সেখানে নিজের বাড়িতেই থেকেছেন। সাহায্য করেছেন বহু দুস্থ মানুষদেরও। কিন্তু এই মুহূর্তে বর্ষায় রাস্তাঘাটের যা অবস্থা, তাতে একপ্রকার বাধ্য হয়েই ইমনকে কলকাতার ফ্ল্যাটে চলে আসতে হয়েছে। গায়িকার কথায়, একপ্রকার বাধ্য হয়েই লিলুয়া ছেড়ে কলকাতায় থাকতে হচ্ছে। নাহলে কাজের প্রয়োজনে এই সময়ে বাড়ি থেকে রোজ কলকাতায় যাতায়াত করা মানে যুদ্ধের সমান! তাঁর বাড়ির সামনে জল জমে এমনই ভয়াবহ অবস্থা যে তিনি ভয়ে বাবাকে বেরতে দিতে পারেন না। যদি পড়ে গিয়ে অঘটন ঘটে। এছাড়াও বাড়ির সামনে একটা খালি জমি রয়েছে। যেটা আপাতত ঘন-জঙ্গলে পরিণত হয়েছে। সেখানে জলকাদা জমে একাকার। দুর্গন্ধে বাড়ির জানলা খোলা দায়! বহুবার অভিযোগ জানিয়েও লাভ হয়নি। কেউ কোনও উদ্যোগ নেননি। প্রসাশনিক কর্তাব্যক্তিদের কেউ বলছেন এটা পঞ্চায়েতের কাজ, আবার কেউ পুরসভার ঘাড়ে দায় ঠেলে দিয়ে এড়িয়ে যাচ্ছেন। গতবছর বৃষ্টি মাথায় করে এলাকাবাসীর মিছিলেও কোনও লাভ হয়নি। তাই এবার মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হয়েছেন গায়িকা।

[আরও পড়ুন: দাদু-দিদার উপর অকথ্য অত্যাচার মামাবাড়িতে, ফেসবুক পোস্টে অভিযোগ অভিনেত্রী মিশমির]

টুইটে লিখেছেন, “পশ্চিমবঙ্গ সরকার এবং মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন, লিলুয়ার রাস্তাঘাটের এই ভয়াবহ পরিস্থিতির উপর তাঁরা যেন একটু নজর দেন এবং দ্রুত কোনও পদক্ষেপ করেন।”

সোমবার রাত থেকেই প্রবল বৃষ্টি শুরু হয়েছে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায়। মঙ্গলবার এবং বুধবার বিগত ৪৮ ঘণ্টার বৃষ্টিতে জলমগ্ন হয়েছে শহর এবং শহরতলির একাধিক এলাকা। কোথাও জল নেমেছে। আবার কোথাও বা এখনও জমে রয়েছে বৃষ্টির কাদাজল। জমা জলের সমস্যায় জেরবার শহরতলীর বাসিন্দারাও। প্রবল বৃষ্টির ফলে রাস্তাঘাটের দশাও বেহাল! বিশেষ করে হাওড়া জেলায় লিলুয়ার বর্তমান ছবি দেখে রীতিমতো আঁতকে ওঠতে হয়! মূলত, লিলুয়ার পশ্চিম ভাগ ও স্টেশন চত্বরের আর এক প্রান্তের ছবিটা এমনই ভয়ংকর। কিছু জায়গায় খানা-খন্দ দেখলে বোঝা দায় যে ওটা আদতেও রাস্তা ছিল। যাতায়াতের পক্ষে এইসব রাস্তা যে অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ, তা বোধহয় আর আলাদা করে বলার অপেক্ষা রাখে না। বছরের পর বছর ভাঙা রাস্তা আর বৃষ্টির জল জমার সমস্যায় জেরবার লিলুয়াবাসী। আর সেই দিকেই মুখ্যমন্ত্রীর দৃষ্টিনিক্ষেপের আরজি জানিয়েছেন ইমন চক্রবর্তী।

[আরও পড়ুন: মন্দির-মসজিদ দুটোই বাছলেন নুসরত, মমতার পর সর্বধর্ম সমন্বয়ের বার্তা সাংসদের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement