২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

আপাতত COVID-19 মুক্ত, করোনা যুদ্ধে জয়ী হয়ে প্লাজমা দানের সিদ্ধান্ত মোরানি পরিবারের

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: April 22, 2020 10:34 am|    Updated: April 22, 2020 10:34 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মারণ ভাইরাসের কোনও ভ্যাক্সিন নেই! নেই কোনও ওষুধও। তবুও চিকিৎসকেরা দিনরাত সেবা-শুশ্রুষা করে সারিয়ে তুলছেন মানুষদের। এই করোনা যোদ্ধারাই কিন্তু পারেন আরেক করোনা আক্রান্ত রোগীকে সাহায্য করতে, কিংবা নিজেদের রক্তদান করে এই কঠিন পরিস্থিতিতে চিকিৎসকদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়াতে। সাধারণ মানুষের স্বার্থে সেই সিদ্ধান্তই নিল বলিউডের মোরানি পরিবারের তিন সদস্য।

দিন দুয়েক আগেই দুই বলিউড অভিনেতা হৃতিক রোশন এবং অজয় দেবগন আরজি জানিয়েছিলেন যে করোনা যুদ্ধে সেরে ওঠা ব্যক্তিরা যেন তাঁদের রক্তদান করেন। কারণ, এই মারণ ভাইরাস জয় করার পর ১৪ দিন পরেও যদি COVID-19 টেস্টের রিপোর্ট নেগেটিভ আসে, তাহলে বুঝতে হবে ওই ব্যক্তির শরীরে ইতিমধ্যেই অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে গিয়েছে। যা আরেক করোনা রোগীকে সুস্থ হতে সাহায্য করবে। আর তাই মোরানি পরিবারও এবার সেই রাস্তাতেই হাঁটতে চলেছে।

সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মোরানি-কন্যা জোয়া তাঁদের করোনা পরবর্তী পর্ব নিয়ে মুখ খুলেছিলেন। সেখানেই জোয়া জানিয়েছেন যে সবকিছু ঠিকঠাক এগোলে এই সপ্তাহের শেষের দিকেই তাঁরা রক্তদান করবেন। জোয়া জানান, তাঁদের দুই বোনের আইসোলেশন পর্ব প্রায় শেষের দিকে হলেও বাবা করিম মোরানির আরও বেশ কিছুদিন বাকি রয়েছে। হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেও তাঁরা প্রত্যেকেই যথাযথ আইসোলেশন মেনে চলছেন। বিশেষ করে বাবা করিম মোরানি হার্টের রোগী হওয়ায় এক্ষেত্রে ডাক্তারের দেওয়া আরও কড়া নির্দেশিকা মানতে হচ্ছে তাঁদের।     

[আরও পড়ুন: যৌনকর্মীদের পাশে দাঁড়াতে অভিনব উদ্যোগ, শর্টফিল্মের আয়ের পুরোটাই যাবে দুর্বার কমিটিতে]

গায়িকা কণিকা কাপুরের পর, বলিউডের খ্যাতনামা প্রযোজক করিম মোরানি এবং তাঁর দুই কন্যা সাজা এবং জোয়া করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। শাহরুখ খান ঘনিষ্ঠ এই পরিবারের তিন সদস্যই COVID-19 আক্রান্ত হওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন বলিউডের একাংশ। সিল করে দেওয়া হয়েছিল মোরানিদের মু্ম্বইয়ের আবাসন। মেয়েদের থেকেই অবশ্য সংক্রমণ ছড়িয়েছিল করিম মোরানির। তবে মোরানি পরিবারের মাথার উপর থেকে কালমেঘ আপাতত সরে গিয়েছে। কারণ, করিম এবং দাঁর দুই কন্যা সাজা ও জোয়া ইতিমধ্যেই বাড়ি ফিরেছে। সাজা এবং জোয়ার হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর ১৪ দিনের আইসোলেশন পর্বও প্রায় শেষের দিকে। সুস্থই রয়েছেন তাঁরা। তাই এই মারণ ভাইরাসকে জয় করে দেশের মানুষের স্বার্থে তাঁরা রক্তদান করবেন বলে জানিয়েছেন জোয়া মোরানি।

[আরও পড়ুন: ডাক্তাররাই প্রকৃত ‘হিরো’, বাস্তব চিত্র তুলে ধরল বিশ্বনাথের ‘রূপকথা’]

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement