১২ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ২৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

আইনি বাধা থেকে মুক্ত ‘গুমনামি’, হাই কোর্টে খারিজ ছবির বিরুদ্ধে জনস্বার্থ মামলা

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: September 25, 2019 3:49 pm|    Updated: September 25, 2019 3:50 pm

Calcutta High Court scraps PIL against Gumnaami movie

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে সব জল্পনার অবসান। যাবতীয় বাধা কাটিয়ে ‘গুমনামি’ মুক্তি পাচ্ছে ২ অক্টোবর। আপ্লুত তো বটেই, সেই সঙ্গে সৃজিত মুখোপাধ্যায় ‘চেকমেট’ দিলেন ‘গুমনামি’ বিরোধীদেরও। 

[আরও পড়ুন: রামায়ণে অজ্ঞ! সোনাক্ষীকে ‘ধন পশু’ বলে কটাক্ষ উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রীর ]

গত ১৩ সেপ্টেম্বর, ‘গুমনামি’র স্থগিতাদেশ দাবি করে কলকাতা হাই কোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছিলেন ফরওয়ার্ড ব্লকের নেতা দেবব্রত রায়। তবে বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর সেই মামলা খারিজ করে দিল কলকাতা হাই কোর্ট। নেতাজি অন্তর্ধান রহস্য প্রসঙ্গ উত্থাপন করে প্রধান বিচারক রায় দেন ‘গুমনামি’তে কোনওরকম স্থায়ীভাবনা কিংবা মত চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়নি। তাহলে এই ছবিকে কীসের ভিত্তিতে আটকানো হবে! অতঃপর যাবতীয় বাধা কাটিয়ে এদিন ‘গুমনামি’ মুক্তির আদেশ দিল কলকাতা হাই কোর্ট। এই নির্দেশে পরিচালক সৃজিত আপ্লুত তো বটেই, গোটা টিমের তরফেই ধন্যবাদ জানানো হয়েছে উচ্চ আদালতকে।

ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা দেবব্রত রায়ের বক্তব্য ছিল, “ছবির নাম ‘গুমনামি’ তবে মুখার্জি কমিশন কিন্তু বলেনি যে গুমনামিবাবাই নেতাজি। ভারত সরকার যেখানে এই যুক্তির পক্ষে প্রমাণ দিতে পারেনি, সেখানে নেতাজিকে নিয়ে সিনেমা বানিয়ে অপমান করার অধিকার কারও নেই। কারণ, নেতাজির সঙ্গে গোটা দেশের আবেগ জড়িত।” অন্যদিকে নেতাজি অন্তর্ধান রহস্য আজও অধরা। তাহলে, সৃজিত কিংবা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় কীভাবে এই সিনেমা বানাতে পারেন, সওয়াল করেছেন দেবব্রত। অতএব সেন্সর বোর্ড ‘গুমনামি’ মুক্তির নির্দেশ তুলে নিক, দাবি তুলেছিলেন এই ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা। অবশেষে মামলা খারিজ করল কলকাতা হাই কোর্ট।

[আরও পড়ুন: ‘আপনি ধর্মান্ধ, আপনার ধর্ম বাম-বাদ’, উর্মিমালা বসুকে তোপ বাবুলের ]

প্রসঙ্গত, জন্মলগ্ন থেকেই শিরোনামে সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ‘গুমনামি’। নেতাজি অন্তর্ধান রহস্যের মতো একটি বিতর্কিত বিষয়বস্তুকে ঘিরে ছবি তৈরির জন্য ইন্ডাস্ট্রির অন্দরে সৃজিতের প্রশংসায় সবাই পঞ্চমুখ হলেও, একাধিকবার বিতর্কে জড়িয়েছেন পরিচালক। প্রথম টিজার মুক্তির পরই আইনি নোটিস পেয়েছেন সৃজিত। ছবি তৈরির সময়ে বিতর্কে জড়িয়েছেন পরিচালক অনিকেত চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে। নেতাজির সঙ্গে গুমনামি বাবার প্রসঙ্গ উত্থাপন করার বিষয়টি মোটেই ভাল চোখে দেখেনি বোস পরিবারও। যদিও সম্প্রতি বোস পরিবারের একাংশ সৃজিতকে সমর্থন জানিয়েছিলেন। জন্মলগ্ন থেকেই যে ছবি একাধিক বিতর্কে জড়িয়েছে, তাকে নিয়ে বাঙালি সিনে দর্শকদের মনে কৌতূহল যে থাকবেই তা বলাই বাহুল্য। ছবি মুক্তির আগেও বড়সড় বাধার সম্মুখীন হবে এই ছবি, এমনটাই ভেবেছিলেন অনেকে। তবে যাবতীয় জল্পনায় ছাই দিয়ে এগিয়ে গেলেন পরিচালক। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে