BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সাক্ষাৎ দেবদূত! করোনা রোগীর প্লাজমা থেরাপির জন্য রক্ত জোগাড় করে দিলেন দেব

Published by: Suparna Majumder |    Posted: August 23, 2020 5:56 pm|    Updated: August 23, 2020 9:01 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা কালে ফের ত্রাতার ভূমিকায় দেব (Dev)। এবার করোনা (COVID-19) আক্রান্তের প্লাজমা থেরাপির জন্য রক্তের ব্যবস্থা করে দিলেন অভিনেতা-সাংসদ। টুইটে বন্ধুর হয়ে দেবকে ধন্যবাদ দিলেন তরুণী।

ঘটনার সূত্রপাত হয়েছিল ২১ আগস্ট। দেবকে ট্যাগ করে টুইটে কৃপা বসু নামে এক তরুণী জানান, তাঁর বন্ধু ইমন বিশ্বাসের মা জয়া ঘোষ বিশ্বাস করোনার আক্রান্ত হয়ে ঢাকুরিয়ার আমরি হাসপাতালে ভরতি রয়েছেন। প্লাজমা থেরাপির জন্য রক্তের প্রয়োজন। করোনা আক্রান্ত হয়ে সেরে উঠেছেন এবং ২৮ দিন অতিক্রান্ত হয়ে গিয়েছে এমন ব্যক্তি যদি থাকেন। যদি তাঁর ব্লাড গ্রুপ AB+ হয় তাহলে যেন দয়া করে যোগাযোগ করা হয়। টুইট শেয়ার করে সাহায্যের আবেদন জানান দেব। কৃপা বসুকে মেসেজ করে ফোন নম্বর দিতে বলে কলকাতা পুলিশও।

 

[আরও পড়ুন: অমলিন ‘প্রিয় বন্ধু’র আবেগ, নস্ট্যালজিয়া উসকে জনপ্রিয় শ্রুতিনাটক ফেরাচ্ছেন অঞ্জন দত্ত]

রবিবার টুইটে কৃপা জানান, দেবের উদ্যোগে রক্ত পেয়েছেন তিনি। এর জন্য অভিনেতা-সাংসদকে ধন্যবাদ জানিয়ে লেখেন,    

“আপনি একজন ভালো অভিনেতা ও সাংসদ শুধু নন, তার সাথে আপনি আদ্যোপান্ত ভালো মানুষ। আপনাকে শ্রদ্ধা করি, খুব ভালো থাকুন, এভাবেই মানুষের পাশে থাকুন।”

 

কৃপার টুইট শেয়ার করে দেব লেখেন,

“আশা করি তোমার বন্ধু এবং তাঁর মা এখন হাসিমুখে নিশ্চিন্ত আর ভালো আছেন। এত তাড়াতাড়ি সাহায্য করার জন্য ডা. প্রসূন ভট্টাচার্যকে ধন্যবাদ। আর নিজের প্লাজমা দিয়ে সাহায্য করার জন্য বিশেষ ধন্যবাদ জানাই ডা. প্রবাল সামন্তকে। আমাদের আজ সত্যিই এমন বাস্তব নায়কদের প্রয়োজন।”

 

পরে আবার কৃপার উদ্দেশে দেব লেখেন,

“আর হ্যাঁ একটা জিনিস… তো

ার মতো বন্ধু যেন সবাই পায়। ঈশ্বর তোমার মঙ্গল করুন।”

 

[আরও পড়ুন: সিনেমা হলে মুক্তি পাবে ’83’ আর ‘সূর্যবংশী’! কী বলছে প্রযোজনা সংস্থা রিলায়েন্স?]

করোনার আবহে বরাবর মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন অভিনেতা-সাংসদ। বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয়দের উদ্ধার করেছেন, ঘাটালে ফেরা শ্রমিকদের কাজের ব্যবস্থা করেছেন আবার লকডাউনের দিনগুলোতে ঘাটালের স্বাস্থ্যকেন্দ্র গুলির বাইরে রোগীর আত্মীয়-পরিজনদের খাবারের ব্যবস্থাও হয়েছে তাঁর উদ্যোগে। আগামী দিনেও মানুষের পাশে এভাবেই থাকতে চান অভিনেতা-সাংসদ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement