BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘গুঞ্জন সাক্সেনা’ ছবির দৃশ্য ছাঁটার প্রয়োজন নেই! মামলা খারিজ দিল্লি হাই কোর্টে

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: August 29, 2020 8:30 pm|    Updated: September 1, 2020 5:30 pm

Delhi HC disposes plea seeking deletion of scenes in 'Gunjan Saxena' film

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ছবির কোনও দৃশ্যে কাঁচি চালানোর প্রয়োজন নেই! শেষমেশ ‘গুঞ্জন সাক্সেনা: দ্য কারগিল গার্ল’ (Gunjan Saxena: The Kargil Girl ) বিতর্কের অবসান ঘটাল দিল্লি আদালত। মুক্তির পর থেকেই এই সিনেমা নিয়ে বিতর্কের অন্ত নেই। কেউ লিঙ্গবৈষম্য প্রদর্শনের অভিযোগ তুলেছেন তো কেউ বা আবার ভারতীয় বায়ু সেনাবাহিনি দপ্তরকে অপমান করার অভিযোগ তুলে কড়া ভাষায় মন্তব্য করেছেন, “ধর্মা প্রোডাকশন জাতির নামে একটা কলঙ্ক!” যার জেরে দিল্লি আদালতের কাছে করণ জোহর প্রযোজিত এই সিনেমা থেকে বেশ কিছু দৃশ্য মুছে ফেলার আবেদন জানিয়েছিল জাস্টিস ফর রাইট ফাউন্ডেশন নামে এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। তবে সেই অবেদন খারিজ করে দিল দিল্লি হাইকোর্ট।

Gunjan-Saxena

শুক্রবারই আদালতের এক ডিভিশন বেঞ্চ এই মামলার রায় দানের সময় সাফ জানিয়ে দেয় যে, “নেটফিক্সের ‘গুঞ্জন সাক্সেনা: দ্য কারগিল গার্ল’ সিনেমার দৃশ্যে কাঁচি চালানোর কোনওরকম প্রয়োজন নেই। ভারতীয় বায়ু সেনাবাহিনির আর্মিরা সংশ্লিষ্ট দপ্তরের ভাবমূর্তিকে স্বচ্ছ রাখার জন্য যথেষ্ট। আমাদের দেশের প্রতিষ্ঠানগুলো কি এতটাই দুর্বল যে সিনেমায় দেখানো কিছু দৃশ্যের প্রেক্ষিতে যার ভাবমূর্তি নষ্ট হয়ে যাবে! সিনেমাকে শুধুমাত্রই শিল্পের একটা নির্দশন হিসেবে দেখা হোক।”

[আরও পড়ুন: ২২ বছর বয়সেই ড্রাগ নিতাম! সুশান্ত মৃত্যুতে মাদকচক্র বিতর্কের মাঝেই অকপট সইফ]

প্রসঙ্গত, ‘গুঞ্জন সাক্সেনা: দ্য কারগিল গার্ল’ নিয়ে জাস্টিস ফর রাইট ফাউন্ডেশন নামে ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার অভিযোগ ছিল, “সিনেমার বেশকিছু দৃশ্যে বায়ু সেনার মহিলা অফিসারদের লঘু করে দেখানো হয়েছে। আর তাতে লিঙ্গ বৈষম্যের যথেষ্ট উসকানি ছিল। কাজেই অবিলম্বে প্রযোজনা সংস্থাকে সেসব দৃশ্য ছেঁটে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হোক।” দিল্লি আদালতের কাছে ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার আবেদন যদিও ধোপে টেকেনি। বরং শুক্রবার দিল্লি হাই কোর্টের প্রধান বিচারক ডিএন পাতিল এবং বিচারক প্রতীক জালান সেই আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, এর আগে রিলিজের ২৪ ঘন্টার মধ্যেই বায়োপিকের চিত্রনাট্য নিয়ে আপত্তি জানিয়েছিল ভারতীয় বায়ু সেনাবাহিনি দপ্তর। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছিল যে করণ জোহর প্রযোজিত এই ছবিতে ইন্ডিয়ান এয়ার ফোর্সকে ভুলভাবে তুলে ধরার অভিযোগ তুলে চিঠি পাঠানো হয়েছিল সেন্টার বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশনের কাছে। জাতীয় মহিলা কমিশনের তরফেও দাবি উঠেছিল ‘গুঞ্জন সাক্সেনা’ বায়োপিকের প্রদর্শন নিষিদ্ধ করার জন্যে। তবে সেসব বিতর্ক আপাতত থিতিয়েছে। কাজেই সুশান্ত মৃত্যুর পর থেকে রোষানলে থাকা করণ জোহর যে এই সিনেমা নিয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে পেরেছেন আপাতত, তা বলাই যায়।

[আরও পড়ুন: বিরামহীন টানা ১৫০ দিন, অসম লড়াই করে মহীরূহে পরিণত হল যাদবপুরের শ্রমজীবী ক্যান্টিন]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে