১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৮  রবিবার ১৬ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘রাজবাবুদের মতো কেঁদে ভাসানোর মানুষ নই’, করোনা মোকাবিলা নিয়ে বিদ্রুপ দীপ্সিতার

Published by: Suparna Majumder |    Posted: April 27, 2021 6:54 pm|    Updated: April 27, 2021 7:29 pm

Dipsita Dhar Slams Raj Chakraborty thro Social Media | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সোশ্যাল মিডিয়া থেকে হোয়াটস অ্যাপ। সর্বত্র ঘুরে বেড়াচ্ছে তারকা প্রার্থীদের নম্বর। যা শেয়ার করে আবার সমালোচিত হয়েছেন পরিচালক ইন্দ্রাশিস আচার্য। রাজ চক্রবর্তী, জুন মালিয়া থেকে যশ দাশগুপ্ত, সায়নী ঘোষ, কাঞ্চন মল্লিক – সকলেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সুজন চক্রবর্তী, দেবদূত ঘোষ, বাদশা মৈত্র, শ্রীলেখা মিত্র, ঐশী ঘোষের ব্যক্তিগত যোগাযোগ নম্বর কেন দেওয়া হল না? সেই প্রশ্নও তুলেছেন কাঞ্চন। এমন পরিস্থিতিতেই তৃণমূলের তারকা প্রার্থী রাজ চক্রবর্তীকে (Raj Chakraborty) বিঁধলেন বালি কেন্দ্রের সিপিএম প্রার্থী দীপ্সিতা ধর (Dipsita Dhar)।

মঙ্গলবার নিজের ফেসবুক ওয়ালে দীপ্সিতা একটি স্ক্রিনশট শেয়ার করেন। যেখানে একজন জানাচ্ছেন. ভোটে হারলেন কি জিতলেন কিছু এসে যায় না। দীপ্সিতার মতো মেয়েরা সমস্ত পরিস্থিতিতে মানুষের জন্য কাজ করবেন। যাতে দীপ্সিতা তাঁকে ধন্যবাদ দিয়ে জানান, তাঁরা এমনিতেও ৩-৪ দিন ধরে কাজ করে চলেছেন। এই স্ক্রিনশট শেয়ার করেই আবার ক্যাপশনে বাম যুব নেত্রী লেখেন, “এক দাদা আমাদের ফোন নম্বর পোস্ট করেছেন। অনেকে ভেবেছিলেন আমরাও হয়ত রাজবাবুদের মতো কেঁদে ভাসাবো। ফল হল উলটোটা। আজ থেকে ৫-১০-৫০ বছর পরেও যেন সাধারণ মানুষ আমাদের সম্পর্কে এই ভরসা রাখতে পারেন। ব্যস এইটুকুই।”

Dipsita Dhar Slams Raj Chakraborty thro Social Media

[আরও পড়ুন: ‘কে করোনায় মৃত আর কে অক্সিজেনের অভাবে? আলাদা করে বলুন’, দাবি স্বস্তিকার]

উল্লেখ্য, কলকাতার কোভিড (COVID-19) পরিস্থিতি মোকাবিলায় সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য ‘রেড ভলান্টিয়ার্স’ বাহিনী তৈরি করেছে যুব সিপিএম। পুরসভার (KMC) বিভিন্ন ওয়ার্ড এলাকায় দায়িত্ব ভাগ করে ৮৩ জন তরুণ-তরুণীকে নিয়ে দলটি তৈরি করা হয়েছে। তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগের নম্বর দিয়ে রবিবার তালিকা প্রকাশ করা হয়েছিল। আর এই ‘রেড ভলান্টিয়ার্স’ বাহিনি নিয়ে পোস্ট করেই বিতর্কে জড়ালেন তৃণমূল প্রার্থী রাজ চক্রবর্তী। নিজের সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইলে রাজ লিখেছিলেন, “হাওড়ার মধ্যে কারোর অক্সিজেন সিলিন্ডার, রক্ত, হসপিটালের বেড, পানীয় জল, ওষুধ, অ্যাম্বুল্যান্স, আরও যেকোনও রকমের দরকারে রেড ভলান্টিয়ার্সের এমারজেন্সি…” অর্থাৎ কোভিড সংক্রান্ত সমস্যা হলেই যুব সিপিএম সংগঠনের শরণাপন্ন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন বারাকপুরের প্রার্থী। কিন্তু পরক্ষণেই তিনি সেই পোস্টটি ডিলিট করে দেন। তা নিয়ে বিস্তর সমালোচনা হয়। পরে ঋদ্ধি রিত নামে এক ব্যক্তির মেসেজের স্ক্রিনশট শেয়ার করেন রাজ। যেখানে তিনি দাবি করেছেন, তাঁকে না জানিয়েই হাওড়ার ভলান্টিয়ার হিসেবে নাম ফোন নম্বর দিয়ে দেওয়া হয়েছিল। এই কারণেই রেড ভলান্টিয়ার্স সংক্রান্ত আগের পোস্টটি ডিলিট করেছিলেন।

[আরও পড়ুন: ফেসবুকে তারকা প্রার্থীদের ব্যক্তিগত ফোন নম্বর শেয়ার, কী সাফাই পরিচালক ইন্দ্রাশিসের? ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement