BREAKING NEWS

২  ভাদ্র  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ১৮ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘এ যেন ইদের আগে ইদ’, পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে উচ্ছ্বসিত ওপার বাংলার তারকারা

Published by: Suparna Majumder |    Posted: June 25, 2022 9:42 pm|    Updated: June 25, 2022 9:58 pm

Here is how Bangladeshi celebs reacted on Padma Setu | Sangbad Pratidin

সুকুমার সরকার, ঢাকা: অবশেষে স্বপ্নপূরণ। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা (Bangladesh PM Sheikh Hasina)। ঐতিহাসিক এই সেতুর উদ্বোধনে উচ্ছ্বসিত বাংলাদেশবাসী। আপ্লুত সেদেশের বিনোদন ও ক্রিকেট জগতের তারকারাও।

ছোটবেলার স্মৃতি স্মরণ করেন অভিনেত্রী জয়া আহসান (Jaya Ahsan)। তাঁর কথায়, “পদ্মা যেন প্রায় সমুদ্র। একেবারে ছোটবেলায় তো আর সমুদ্র দেখিনি। গোপালগঞ্জে দাদার বাড়ি যাওয়ার সময় পাড়ি দিতে হত পদ্মা নদী। পাড়ি দিয়ে চলে যেতাম। কিন্তু মনের মধ্যে প্রবল হয়ে জেগে থাকত তার অক্ষয় রূপ। কারণ গ্রামের বাড়ি যাওয়ার পথে পদ্মাপার হওয়াটাই যেন আসল ঘটনা।” 

Jaya Ahsan

এরপরই অভিনেত্রী বলেন. “স্মৃতি থেকে অন্য সবকিছু মুছে গেলেও পদ্মাকে মুছে দেয় সাধ্য কার! তার সে কী বিশালতা! এপারে দাঁড়ালে ওপার দেখা যায় না। ওই যে গানে শুনেছি ‘কূল নাই, কিনার নাই, নাই সে দরিয়ার পাড়ি’, তার সঙ্গে পদ্মার স্মৃতিই যেন একাকার হয়ে আছে। এ যেন সেই দরিয়া, সেই অপার সমুদ্র। নানা ঘাত-প্রতিঘাত পেরিয়ে অবশেষে সগৌরবে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে পদ্মা সেতু। মেলবন্ধন ঘটিয়েছে পদ্মার দুই পারের।”

[আরও পড়ুন: আড়াই ঘণ্টার ভরপুর বিনোদন, সম্পর্ক নিয়ে হাজার জ্ঞান! টাইমপাস ছবি ‘যুগ যুগ জিও’]

উচ্ছ্বসিত অভিনেতা মোশাররফ করিমও (Mosharraf Karim)। “ফেরি মানেই ঘাটে ভোগান্তি, ধীরগতির নদী পারাপার, ঘন কুয়াশা, ঝড় ও দুর্যোগে যাত্রা বাতিল। দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১টি জেলায় যাতায়াতে ফেরিঘাটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হত মানুষকে, পণ্যবাহী ট্রাককে। এই ভোগান্তি আর থাকছে না। ইদের আগে ইদ এখন আমাদের কাছে। আমাদের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন বাস্তব করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আমরা খুবই আনন্দিত”, বলেন তিনি।

Mosharraf Karim

পটুয়াখালীতে গ্রামের বাড়ি ছিল অভিনেত্রী অহনার। সেই কথা জানিয়ে তিনি বলেন, “পদ্মা পাড়ি দিয়ে গ্রামে যেতে হয়। এখন খুব সহজে সেতু পার হয়ে গ্রামের বাড়ি যেতে পারব, ভাবতে আনন্দ লাগছে। শুধু গ্রামের বাড়ির যাওয়াই নয়, শুটিংয়ের কাজেও প্রায়ই আমাদের পদ্মার ওপারে যেতে হয়। সেক্ষত্রে শিল্পীদের অনেক সময় নষ্ট হয়। এখন আমাদের সকল কষ্ট ঘুচবে। আমরা এখন চাইলেই অল্প সময়ে চলে যেতে পারব পদ্মার ওপারে। বিশ্বাস করুন, এখনও আমার কাছে পুরো বিষয়টি স্বপ্নের মতো মনে হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিলেও কম হয়ে যায়। আমি বলে বোঝাতে পারব না, শেখ হাসিনা কত বড় উপকার করলেন।”

[আরও পড়ুন: হিন্দু ক্যালেন্ডার দেখে মঙ্গলের কক্ষে রকেট পাঠান ইসরোর বিজ্ঞানীরা! মাধবনের মন্তব্যে বিতর্ক]

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে