BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘আজ আমার ঘর ভেঙেছে, কাল তোর অহংকার ভাঙবে’, উদ্ধব ঠাকরেকে কড়া আক্রমণ কঙ্গনার

Published by: Suparna Majumder |    Posted: September 9, 2020 7:13 pm|    Updated: September 9, 2020 10:56 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দাবানলের মতো সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে কঙ্গনা রানাউত (Kangana Ranaut) বনাম মহারাষ্ট্র সরকারের লড়াইয়ের আঁচ। এরই মধ্যে টুইটারে ভিডিও আপলোড করে  মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে (Uddhav Thackeray) একহাত নিয়েছেন কঙ্গনা। ভিডিওয় কঙ্গনা উদ্ধব ঠাকরেকে ‘তুই’ সম্বোধন করেছেন। বলেছেন,

“উদ্ধব ঠাকরে তুই কী ভাবিস? ফিল্ম মাফিয়াদের সঙ্গে মিলে তুই আমার বাড়ি ভাঙবি? আজ আমার ঘর ভেঙেছে, কাল তোর অহংকার চুরমার হবে। মনে রাখিস সময়ের চাকা কখনও এক জায়গায় থেমে থাকে না।”

[আরও পড়ুন: বন্ধ হোক কঙ্গনার বাংলো ভাঙার কাজ, BMC-কে নির্দেশ বম্বে হাই কোর্টের]

মেয়ের পাশে দাঁড়িয়ে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীকে একহাত নিয়েছেন আশা রানাউতও। টুইট করে লিখেছেন, “উদ্ধব ঠাকরে আজ তুমি আমার মেয়ে কঙ্গনার অফিসে না, নিজের স্বর্গীয় পিতা বালাসাহেব ঠাকরের আত্মাকে আঘাত করেছ।”

বুধবার অভিনেত্রী মুম্বই পৌঁছানোর পর থেকেই সংঘাত চরমে। বম্বে হাই কোর্ট পর্যন্ত গড়িয়েছে বিষয়টি। আদালতের তরফে বৃহন্মুম্বই পুরনিগমকে (BMC) কঙ্গনার অফিস ভাঙার কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আগামিকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার ফের এই মামলার শুনানি হবে। এরই মধ্যে মহারাষ্ট্র সরকার ও বৃহন্মুম্বই পুরনিগমকে একহাত নিয়েছেন বিরোধী দলনেতা দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। ডেথ অফ ডেমোক্রেসি হ্যাশট্যাগ (#DeathOfDemocracy) দিয়ে ভিডিও আপলোড করেছেন তিনিও। যা শেয়ার করেছেন কঙ্গনা।

ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন হিমাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম ঠাকুর। ঘরের মেয়ের অফিসের এই পরিণতিকে দুর্ভাগ্যজনক আখ্যা দিয়েছেন তিনি। ঘটনার রেশ মহারাষ্ট্র সরকারের জোটেও পড়েছে। শোনা গিয়েছে, এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ারও (Sharad Pawar) উদ্ধব সরকারের নেতৃত্বাধীন বৃহণ্মুম্বই পুরনিগমের এহেন আচরণে ক্ষুব্ধ। খুব শিগগিরিই এনিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন তিনি। কঙ্গনার পাশে দাঁড়িয়েছে কর্ণি সেনাও। এদিকে আবার কঙ্গনার পাশে দাঁড়িয়ে উদ্ধব ঠাকরের নেতৃত্বাধীন সরকারকে একহাত নিয়েছেন কুস্তিগীর ববিতা ফোগট। মুম্বইয়ের মোমবাতি গ্যা ও অ্যাওয়ার্ড ফিরিয়ে দেওয়া লোকজনেরা এখন কোথায়? টুইট ভিডিওয় প্রশ্ন তুলেছেন ববিতা। 

[আরও পড়ুন: ‘বাবররা রাম মন্দির ভাঙতে এসেছিল!’ উদ্ধব ঠাকরেকে কটাক্ষ করে মুম্বই পৌঁছেই ক্ষোভের মুখে কঙ্গনা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement