১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দুস্থদের পাশে ক্যাটরিনা, মহারাষ্ট্রের ভান্ডারা জেলার দিনমজুরদের দায়িত্ব নিলেন অভিনেত্রী

Published by: Bishakha Pal |    Posted: April 22, 2020 7:45 pm|    Updated: April 22, 2020 10:40 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশজুড়ে লকডাউনের পরিস্থিতিতে কাজ হারিয়েছেন দিনমজুররা। এমনিতেই তাঁদের নুন আনতে পান্তা ফুরোয়। তার উপর এই পরিস্থিতিতে নিত্য দিনের খাবার জোটানোও তাঁদের পক্ষে অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই তাঁদের সাহায্যার্থে এগিয়ে এসেছেন একাধিক সেলিব্রিটি। শাহরুখ খান, সলমন খান, অমিতাভ বচ্চন, রকুল প্রীত সিংয়ের মতো অনেকেই দিনমজুরদের খাবারের দায়িত্ব নিয়েছেন। এবার সেই তালিকায় জুড়ল ক্যাটরিনা কাইফের নাম।

অভিনেত্রী জানিয়েছেন, মহারাষ্ট্রের ভান্ডারা জেলার দিনমজুরদের খাবার ও স্বাস্থ্য সচেতনতার জন্য প্রয়োজনীয় জিনিসসের দায়িত্ব তিনি নেবেন। তিনি তাঁর ব্র্যান্ড কায় বিউটির (Kay Beauty) তরফে দিনমজুরদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। ক্যাটরিনার সংস্থার সঙ্গে এই কাজের উদ্যোগ নিয়েছে ডি’হাত ফাউন্ডেশন (De’Haat Foundation)। দুটি সংস্থা যৌথভাবে এই কাজে অংশ নেবে। ক্যাটরিনা তাঁর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে লিখেছেন, দেশজুড়ে ভয়াবহ পরিস্থিতি চলছে। এই সময় অনেকেই খুব কষ্টের মধ্যে দিয়ে দিন কাটাচ্ছেন। কিন্তু কিছু মানুষ আছেন যাঁদের কষ্ট অন্যদের চেয়ে আরও অনেক বেশি। তাঁদের পাশেই দাঁড়াতে চায় তাঁর সংস্থা। ডি’হাত ফাউন্ডেশনের সঙ্গে এই কাজে চুক্তিবদ্ধ হতে পেরে তিনি গর্বিত। মহারাষ্ট্রের ভান্ডারা জেলায় দিনমজুরদের তাঁদের এই দুই সংস্থার পক্ষ থেকে খাবার ও স্বাস্থ্য সম্পর্কিত মৌলিক চাহিদাগুলি সরবরাহ করা হবে। এর মধ্যে যেমন পড়ে স্যানিটাইজার, সাবান; তেমনই পড়ে অ্যান্টি ব্যাকটেপিয়াল লিকুইড, স্যানিটারি প্যাড, অতি প্রয়োজনীয় ওষুধ ইত্যাদি। ক্যাটরিনা এও বলেন, একসঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করলেই এই পরিস্থিতির মোকাবিলা সম্ভব।

kay beauty

[ আরও পড়ুন: করোনা যুদ্ধে শামিল বিজয়, ত্রাণ তহবিলে ১.৩০ কোটি টাকা অর্থ সাহায্য দক্ষিণী অভিনেতার ]

লকডাউনের পরিস্থিতিতে এর আগেও অনেক সেলিব্রিটি দিনমজুরদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। সলমনের নির্দেশে প্যাকেট করা চাল, ডাল-সহ অত্যাবশকীয় ত্রাণসামগ্রী কিন্তু ট্রাকে করে পৌঁছে যাচ্ছে ইন্ডাস্ট্রির দুস্থ মানুষগুলির বাড়িতে। মালেগাঁওয়ের ৫০ জন সহায় সম্বলহীন মহিলা শ্রমিকের দায়িত্বও নিয়েছেন তিনি। এছাড়া তাঁর বাড়ির নিরাপত্তারক্ষীদের রান্নাও তাঁর তত্ত্বাবধানেই হচ্ছে। ইন্ডাস্ট্রির ২৫ হাজার মানুষের দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন তিনি। অমিতাভ বচ্চনের তরফ ২ হাজার প্যাকেট খাবার পৌঁছে যাচ্ছে হাজি আলি দরগা, মহিম দরগা, বাবুলনাথ মন্দির, বান্দ্রার বসতি-সহ মুম্বই উত্তরের বেশ কয়েকটি বসতিতে। ‘এক সাথ’ নামের একটি সংস্থার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে শাহরুখের মীর ফাউন্ডেশন করোনার জেরে বেকার হয়ে যাওয়া মুম্বইয়ের প্রায় সাড়ে ৫ হাজার দিন আনি দিন খাই পরিবারকে রোজ দু বেলা খাওয়ানোর দায়িত্ব তুলে নিয়েছে। এছাড়া মুম্বই পুলিশের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে তাঁর সংস্থা রোজ ৩ লাখ খাবারের প্যাকেট বিলি করবে ভবঘুরে আর ভিক্ষুকদের মধ্যে। যাতে রাতে অভুক্ত থেকে যেন কাউকে ঘুমোতে যেতে না হয়! এছাড়াও দিল্লির ২৫০০ দিন মজুরদের পরিবারগুলিতে প্রতি সপ্তাহে অন্তত আগামী ১ মাস বিনামূল্যে রেশন বিলি করার দায়িত্ব নিয়েছেন শাহরুখ৷ লকডাউনের মধ্যে বাড়িতেই রান্না করে রোজ বসতির ২০০ মানুষকে খাওয়াচ্ছেন রকুল প্রীত সিং।

[ আরও পড়ুন: ‘শরীরের সঙ্গে মনের স্বাস্থ্যের খেয়ালও রাখুন’, লকডাউনে ভাল থাকার পাসওয়ার্ড দিলেন মিমি ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement