Advertisement
Advertisement
Kaushik Ganguly

‘ডেলি আয় ৭০০ টাকা?’ ‘অযোগ্য’র পোস্টারের উপর আঁটা বিজ্ঞাপন দেখে রাগলেন কৌশিক!

কী লিখলেন কৌশিক?

Kaushik Ganguly facebook post on ajogyo goes viral
Published by: Akash Misra
  • Posted:June 11, 2024 7:47 pm
  • Updated:June 11, 2024 7:48 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গত শুক্রবারই মুক্তি পেয়েছে ঋতুপর্ণা-প্রসেনজিৎ জুটির পঞ্চাশতম ছবি ‘অযোগ্য’। ছবি মুক্তির পর থেকেই দর্শকদের মধ্যে বেশ সাড়া ফেলেছে এই ছবি। পরিচালক কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের এই ছবিতে দর্শক ফের ফিরে পেয়েছেন ঋতুপর্ণা ও প্রসেনজিৎ ম্য়াজিক। সঙ্গে শিলাজিতের দুরন্ত অভিনয়। সবাই যখন কৌশিকের অযোগ্য নিয়ে প্রশংসায় পঞ্চমুখ। ঠিক তখনই রেগে বোম পরিচালক কৌশিক। ফেসবুকে রীতিমতো গর্জে উঠলেন তিনি। তা হঠাৎ হল কী?

কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় তাঁর ফেসবুকে একটি ছবি পোস্ট করেছেন। যেখানে দেখা গিয়েছে, অযোগ্য ছবির পোস্টারের উপর সারি সারিভাবে আঁটা রয়েছে, আরেকটি বিজ্ঞাপন। যেখানে লেখা ডেলি আয় ৭০০! এমনই এক চাকরির বিজ্ঞাপন দেখে কৌশিক গেলেন ক্ষেপে। পরিচালক তাঁর ফেসবুকে লিখলেন, ”ডেলি আয় ৭০০ টাকা? অযোগ্যর প্রচুর পোস্টারের ওপর এই যোগ্য ভালোবাসার ছাপ্পার জন্য কৃতজ্ঞতা। ছবির নাম ধাম লোকে পড়তে পারলে আমাদেরও ডেলি আয় একটু বাড়ে হয়তো।
আর একটা পয়েন্ট হলো, কেবল অযোগ্যর পোস্টারেই কেন এসব মারা? কারা মারেন? কখন মারেন? কেন মারেন? একটু ভেবে দেখবেন তো!!! এটা জানি এই তাপ্পি মেরে পোস্টার ঢাকার চল অনেক বছরের পুরোনো! এদের বেশ দীর্ঘ আয়ু বোঝাই যাচ্ছে! তবে অযোগ্য ছবির আয় ও আয়ু তো ডেলি ডেলি বেড়েই চলেছে। ”

Advertisement

Advertisement

[আরও পড়ুন: চোট নিয়েই শুটিং ফ্লোরে ফিরলেন ফাল্গুনী চট্টোপাধ্যায়]

নয়ের দশকের মাঝামাঝি প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা জুটির সফর শুরু হয়। প্রথম ছবিই ছিল সুপারহিট। তার পর একে একে ‘মায়ার বাঁধন’, ‘বাবা কেন চাকর’, ‘স্বামীর ঘর’, ‘মনের মানুষ’-এর মতো সিনেমার দর্শকদের উপহার দিয়েছেন দুজনে। তবে ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ’ সিনেমার মুক্তির পর বহুদিন একসঙ্গে কাজ করেননি ঋতুপর্ণা আর প্রসেনজিৎ। কিন্তু দুজনের জনপ্রিয়তায় বিন্দুমাত্র ভাটা পড়েনি। তার প্রমাণ ছিল নন্দিতা রায় ও শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় পরিচালিত ‘প্রাক্তন’। ২০১৬ সালে মুক্তি পায় ‘প্রাক্তন’। আবারও সুপারহিট প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা জুটির অনস্ক্রিন রসায়ন। এই জুটিকে নিয়েই আবার কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় তৈরি করেছিলেন ‘দৃষ্টিকোণ’। আলাদা গল্প, আলাদা চরিত্র। কিন্তু প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা জুটির ম্যাজিক ছিল অক্ষুন্ন। তাতে আবার বাড়তি পাওনা ছিল কৌশিকের পরিচালনা।

[আরও পড়ুন: নির্বাচনী বিধিভঙ্গের মামলায় জড়িয়েছেন! সোম সকালে ভোট দিয়ে বেরিয়েই আল্লু অর্জুন বললেন…]

 

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ