BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘আমার হাত ধরে ঘুমোতেন, বিশ্বাসই হচ্ছে না মা নেই’, অমলাশংকরের প্রয়াণে শোকস্তব্ধ মমতাশংকর

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: July 24, 2020 4:55 pm|    Updated: July 24, 2020 4:55 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শুক্রবার ভোরেই ঘুমের মধ্যে পরলোক গমন করেছেন নৃত্যশিল্পী অমলাশংকর। জুন মাসেই সন্তান, নাতি-নাতনিদের নিয়ে শতায়ু নৃত্যশিল্পীর জন্মদিন পালন হয়েছিল। আর তার প্রায় এক মাসের মাথাতেই ইহলোকের মায়া ত্যাগ করে মহাজাগতিক পথের উদ্দেশে রওনা হলেন অমলাশংকর (Amala Shankar)। নৃত্যশিল্পীর প্রয়াণে শোকবার্তা জ্ঞাপন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ ইন্ডাস্ট্রির তারকারাও। প্রথিতযশা কন্যা মমতাশংকরের (Mamata Shankar) মন্তব্য, “মা ঠিক যেমনভাবে চেয়েছিলেন, তেমনভাবেই চলে গেলেন, কাউকে কষ্ট না দিয়ে।”

নৃত্যশিল্পী তথা অভিনেত্রী মমতাশংকরের কথায়, “মা সুন্দর ঘুমিয়েছেন। ঘুমের মধ্যেই চলে গেলেন। আর তিনি সবসময়েই তাই বলতেন যে- ‘আমাকে নিয়ে যেন কাউকে ব্যস্ত না হতে হয়। আমি যেন হাসতে হাসতে চলে যেতে পারি।’ সত্যিই তাই হল। কাল রাতে ২টোর সময়ও জল খাইয়ে দিয়েছি। মা রোজ আমার হাত ধরে ঘুমোতেন। এখনও বিশ্বাস হচ্ছে না তিনি নেই.. মা ঠিক যা চেয়েছিলেন, সেভাবেই চলে গেলেন। শেষযাত্রার আগে মাকে যখন শাড়িটা পরানো হচ্ছিল, তখনও মনে হচ্ছিল মা তো পাশেই রয়েছেন। কথা বলছেন। মায়ের সংস্পর্শে যাঁরাই এসেছেন কিছু না কিছু শিখেছেন।”

[আরও পড়ুন: ‘তোমার কাজ আমার কাছে অভিনয় শেখার ব্যাকরণ বই’, মহানায়কের প্রয়াণ দিবসে স্মৃতিমেদুর প্রসেনজিৎ]

সিঙ্গাপুর থেকেই অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত জানালেন, “ওঁর ‘সামান্য ক্ষতি’ দেখে মুগ্ধ হয়েছিলাম যে রবীন্দ্রনাথের সৃষ্টি নিয়ে ওরকম একটা কম্পোশিজন করা যায়। হাতের মুদ্রা, এক্সপ্রেশন সবটাই মুগ্ধ করেছিল আমায়। একজন প্রকৃত অর্থে শিল্পী, যিনি কিনা আমাদের সবার কাছেই একটা বিস্ময় বলা যেতে পারে। অসাধারণ জীবনযাপন করেছেন। একই জীবনে অনেক ঘটনার সাক্ষী তিনি। ওঁর কাজ আমাদের সারাজীবনের অনুপ্রেরণা হয়ে থেকে যাবে। ওঁর আত্মার শান্তি কামনা করি।”

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের মন্তব্য, “ভারতীয় নৃত্যশিল্পে অমলাশংকরের মতো শিল্পীর অবদান ছিল অনস্বীকার্য। ওনার এই চলে যাওয়ায় এক বিশাল অপূরণীয় শূন্যস্থান তৈরি হল সমগ্র শিল্পজগত জুড়ে। ওনার আত্মার চিরশান্তি কামনা করি।”

[আরও পড়ুন: ‘এই জিনিয়াসের মতো জীবনটা উপভোগ করা আমারও পছন্দের’, ‘শকুন্তলা দেবী’ প্রসঙ্গে বিদ্যা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement