BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

গোয়ার সৈকতে নগ্ন হয়ে দৌড়, মিলিন্দ সোমনের বিরুদ্ধে দায়ের এফআইআর

Published by: Biswadip Dey |    Posted: November 7, 2020 10:13 am|    Updated: November 7, 2020 4:00 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্কবিতর্ক ছিলই। অবশেষে এফআইআর দায়ের হল মিলিন্দ সোমনের (Milind Soman) বিরুদ্ধে। ৫৫ বছরের অভিনেতা ও মডেল মিলিন্দের বিরুদ্ধে অভিযোগ গোয়ার (Goa) সমুদ্রসৈকতে নগ্ন হয়ে দৌড়নো ও সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করার। এখনও পর্যন্ত মিলিন্দের তরফে এফআইআরের প্রসঙ্গে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

দক্ষিণ গোয়ার পুলিশ সুপারিটেন্ডেন্ট পঙ্কজকুমার সিং জানিয়েছেন, ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৯৪ (অশ্লীলতা) ধারা ও আরও কয়েকটি ধারায় অভিযুক্ত মিলিন্দ। গত ৪ নভেম্বর প্রৌঢ় অভিনেতা তাঁর ৫৫তম জন্মদিনের দিন একটি ছবি পোস্ট করেন। সেই ছবিতে দেখা যায় সমুদ্র সৈকতে নগ্ন হয়ে দৌঁড়চ্ছেন তিনি। সেই পোস্টে অনেকেই তাঁর এই বয়সেও এমন ফিট শরীরের জন্য প্রশংসা করেন। কিন্তু ক্রমে শুরু হয় বিতর্ক। মূলত সেই বিতর্ক নয়া আঁচ পায় অভিনেত্রী ও মডেল পুনম পাণ্ডের (Poonam Pandey) গ্রেফতারিকে কেন্দ্র করে। গোয়ার চাপোলি ড্যামে ‘পর্ন ভিডিও’ শুট করার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয় পুনমকে। কিন্তু পরে তিনি জামিন পেয়ে যান।

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Happy birthday to me ! . . . #55 📷 @ankita_earthy

A post shared by Milind Usha Soman (@milindrunning) on

[আরও পড়ুন: ডাবল ধামাকা, শাহরুখ খানের কামব্যাক ছবিতে থাকছেন সলমনও!]

নেটিজেনদের একাংশের বক্তব্য ছিল, মহিলাদের ক্ষেত্রে নগ্ন হয়ে ছবি তুললে সেজন্য তাঁদের চরিত্রহানি হয়। অথচ পুরুষদের ক্ষেত্রে এমন হয় না। এটা সমাজের দ্বিচারিতা ও লিঙ্গবৈষম্যমূলক আচরণেরই বহিঃপ্রকাশ। মিলিন্দ সোমনের গ্রেপ্তারির দাবিও জানান কেউ কেউ। অবশেষে এফআইআর দায়ের হল তাঁর বিরুদ্ধে।

মিলিন্দের বিরুদ্ধে নগ্নতা প্রদর্শনের অভিযোগ এই প্রথম নয়। কেরিয়ারের শুরুতেও নগ্নতার জন্য বিতর্কে জড়িয়েছিলেন তিনি। তাঁর তৎকা‌লীন প্রেমিকা ও প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া মধু সাপ্রের সঙ্গে নগ্ন হয়ে একটি বিজ্ঞাপনের শুট করেন তিনি। দু’জনের পায়ে ছিল জুতো। আর তাঁদের শরীর ঢেকে রেখেছিল একটি পাইথন। মুম্বই পুলিশ তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছিল। নগ্নতার পাশাপাশি পাইথনের বেআইনি ব্যবহারের অভিযোগেও দায়ের হয় মামলা। দীর্ঘ ১৪ বছর ধরে সেই মামলা চলার পর অবশেষে আদালত রেহাই দেয় অভিযুক্তদের।

[আরও পড়ুন: করোনা কালে কীভাবে আলোর উৎসবে মাতবেন, জানালেন তৃণা-স্বস্তিকা-ঊষসী-নীল]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement