BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

তুরস্ক বিতর্ক অতীত! ‘ড্রাগনের প্রিয়পাত্র’ আমিরের পানি ফাউন্ডেশনকে কুর্নিশ কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: September 10, 2020 2:33 pm|    Updated: September 10, 2020 2:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত বিরোধী চিনপন্থী তুরস্কে শুটিংয়ের বিতর্ক এখন অতীত! স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘পানি ফাউন্ডেশন’-এর জন্য কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের প্রশংসা কুড়োলেন আমির খান।

গত মাসেই ‘লাল সিং চাড্ডা’র শুটিংয়ে তুরস্ক গিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন আমির খান। বিশেষত বিজেপি নেতা-সাংসদ এবং হিন্দু সংগঠনগুলির রোষালনের শিকার হতে হয়েছিল অভিনেতাকে। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, কেন ভারত বিরোধী প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগানের স্ত্রী অর্থাৎ তুরস্কের ফার্স্টলেডি এমাইন এরদোগানের সঙ্গে রসিক মেজাজে আড্ডা দিয়েছিলেন তিনি? যাঁরা কিনা পাক মদতপুষ্ট কাশ্মীরের জঙ্গি সংগঠনগুলিকে সমর্থন করে! যার জেরে RSS আমিরকে ‘ড্রাগনের প্রিয়পাত্র’ বলেও কটাক্ষ করেছিল। এবার সেসব বিতর্ককে পিছনে ফেলেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের প্রশংসা পেলেন আমির খান এবং তাঁর স্ত্রী কিরন রাও। নেপথ্যে তাঁদের জল যোগানের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘পানি ফাউন্ডেশন’।

কেন্দ্রীয় জল মন্ত্রক ‘পানি ফাউন্ডেশন’ (Paani Foundation)-এর কাজের সুখ্যাত করে টুইট করেছে, “আজ অভিনেতা আমির খান এবং তাঁর স্ত্রী কিরণ রাও-এর অভিনব উদ্যোগ পানি ফাউন্ডেশনের উদযাপন করব আমরা। এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাটি মহারাষ্ট্রের একাধিক খরা পীড়িত অঞ্চলে সমৃদ্ধি ফিরে এনেছে। সংশ্লিষ্ট স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার উদ্যোগ ‘সত্যমেব জয়তে ওয়াটার কাপ’ নিঃসন্দেহে এক কুর্নিশযোগ্য প্রচেষ্টা।”

[আরও পড়ুন: ‘বাবররা রাম মন্দির ভাঙতে এসেছিল!’ উদ্ধব ঠাকরেকে কটাক্ষ করে মুম্বই পৌঁছেই ক্ষোভের মুখে কঙ্গনা]

উল্লেখ্য, এই ‘পানি ফাউন্ডেশন’-এর মাধ্যমে বলিউড তারকা আমির খান (Aamir Khan) এবং তাঁর স্ত্রী কিরণ রাও (Kiran Rao) নানা প্রকৃতিবান্ধব উপায়ে জল সংরক্ষণ করার উদ্যোগ নিয়েছেন মরাহাষ্ট্রের খরা কবলিত অঞ্চলগুলির বাসিন্দাদের সাহায্য করার জন্য। তাঁদের এই উদ্যোগকেই সাধুবাদ জানিয়েছে কেন্দ্রীয় জল শক্তি মন্ত্রক (Ministry of Jal Shakti)।

উচ্ছ্বসিত আমিরও ধন্যবাদ জানাতে ভোলেননি কেন্দ্রীয় মন্ত্রককে। হাজার হোক তুরস্ক নিয়ে নিয়ে যেভাবে নেতা-মন্ত্রীদের রোষের শিকার হতে হয়েছিল তাঁকে, এই প্রশংসা যে একপ্রকার শাপমুক্ত হওয়ার মতোই তা বলাই বাহুল্য।

আমির পালটা টুইট করে লিখেছেন, “কিরণ এবং আমি আন্তরিকভাবে জল শক্তি মন্ত্রককে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রক যেভাবে আমাদের উদ্যোগকে স্বীকৃতি দিয়েছে তার জন্যে আমরা কৃতজ্ঞ। মহারাষ্ট্রে খরা পীড়িত এলাকাগুলিকে বাঁচাতে আমরা যে পদক্ষেপ নিয়েছি, তা সবার কাছে তুলে ধরার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। তবে এই উদ্যোগ কখনোই সফল হত না, যদি না সেসব জলদাতা এবং মারাঠিরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে এই সফরে আমাদের পাশে থাকতেন। আপনাদের প্রশংসা আমাদের আরও নতুন উদ্যোমে কাজ করার সাহস যোগালো। ভবিষ্যতেও আমরা আমাদের লক্ষ্যে অবিচল থাকার অঙ্গিকার নিয়েছি। মহারাষ্ট্রের সেসব হাজার হাজার ‘ওয়াটার হিরো’দের সঙ্গে কাজ করতে পেরে নিজেদের ভাগ্যবান মনে করছি। ধন্যবাদ…।”

[আরও পড়ুন: মেয়ে বলেই সুশান্ত মৃত্যুতে ‘বলির পাঁঠা’! রিয়ার গ্রেপ্তারিতে পুরুষতন্ত্র গুঁড়িয়ে দেওয়ার দাবি তারকাদের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement