২৬ আষাঢ়  ১৪২৭  শনিবার ১১ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

বিজ্ঞাপনে শ্রেণিবৈষম্যকে উসকে বিতর্কে বিজেপি সাংসদ হেমা মালিনী, চাইলেন ক্ষমা

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: May 28, 2020 5:55 pm|    Updated: May 28, 2020 7:21 pm

An Images

হেমা মালিনী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “আপনি কি পরিচারিকাকে আটা মাখতে দেন? কে জানে হয়তো তার হাত থেকেই আপনার পরিবারে সংক্রমণ ছড়াতে পারে?” চলতি করোনা ত্রাসকে কাজে লাগিয়ে ক্রেতা টানার জন্যে বিজ্ঞাপনে এমন বিভাজনমূলক মন্তব্যের জেরেই বিতর্কে পড়লেন বিজেপি সাংসদ তথা অভিনেত্রী হেমা মালিনী (Hema Malini)।

আসলে দীর্ঘদিন থেকেই জল বিশুদ্ধকারক এক মেশিন কোম্পানির সঙ্গে যুক্ত অভিনেত্রী। সংশ্লিষ্ট সংস্থার তরফেই রুটি এবং পাউরুটি মেকারের এক নতুন প্রোডাক্ট বাজারে এসেছে। যার বিজ্ঞাপন প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই হেমা মালিনীকে নিয়ে সরগরম নেটদুনিয়া। কারণ, সংস্থার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হিসেবে হেমা মালিনীই সেই মেশিনের বিজ্ঞাপনের মুখ ছিলেন। যার ফলে সংশ্লিষ্ট সংস্থার বিজ্ঞাপনে বিভাজনমূলক মন্তব্যের জেরেই জোর কটাক্ষের শিকার হতে হয় উত্তরপ্রদেশের মথুরা (Mathura, UP) কেন্দ্রের সাংসদ হেমাকে।

বিজ্ঞাপনের ধারাভাষ্যে বলতে শোনা গিয়েছে, “আপনি কি পরিচারিকাকে আটা মাখতে দেন? কে জানে হয়তো তার হাত থেকেই আপনার পরিবারে সংক্রমণ ছড়াতে পারে? তার পরিবর্তে বরং এই কোম্পানির আটা-পাউরুটি মেকার বেছে নিন। নির্ঝঞ্ঝাট একেবারে। হাত দিয়ে মাখার প্রয়োজনও নেই। শরীর, স্বাস্থ্যের সঙ্গে কোনও রকম আপোষ নয়! এবার না হয় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার দিকে নজর দিন…।” ব্যাস, সংশ্লিষ্ট ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপন প্রকাশ্যে আসতেই জোর আক্রমণের মুখে পড়েন ‘ড্রিম গার্ল’ হেমা মালিনীও। একজন সাংসদ কিংবা জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব হিসেবে কী করে এমন বিজ্ঞাপনে সায় দিলেন তিনি? প্রশ্ন তুলেছেন নেটিজেনদের একাংশ।

[আরও পড়ুন: আমফান বিধ্বস্ত বাংলার জন্য মন ব্যাকুল মিস ইংল্যান্ডের, ত্রাণ জোগাড় করছেন বঙ্গতনয়া]

অবশেষে চাপের মুখে পড়ে সংশ্লিষ্ট কোম্পানি ওই বিতর্কিত বিজ্ঞাপন তুলে নেয়। এর পাশাপাশি, নিজের সোশ্যাল মিডিয়াতেও ফলাও করে নিজের মত প্রকাশ করে ক্ষমা চেয়ে নেন বিজেপি সাংসদ তথা বলিউডের প্রবীণ অভিনেত্রী হেমা মালিনী। টুইটে তিনি লিখেছেন, “সংশ্লিষ্ট বিজ্ঞাপনের সঙ্গে আমার নিজস্ব মতামতের কোনও মিল নেই। ব্যাক্তিগতভাবে আমি এর বিপক্ষে। সমাজের সর্বস্তরের মানুষকেই আমি শ্রদ্ধা করি এবং প্রতিনিধিত্ব করি।” উল্লেখ্য ওই বিতর্কিত বিজ্ঞাপন তুলে নেওয়ার পর সংশ্লিষ্ট কোম্পানির তরফেও বিবৃতি জারি করে ক্ষমা চেয়ে নেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: করোনাই কাল, বিয়ের পর সৃজিতের প্রথম জামাইষষ্ঠীতে বাদ সাধল লকডাউন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement