৪ ফাল্গুন  ১৪২৬  সোমবার ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo দিল্লি ২০২০ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৪ ফাল্গুন  ১৪২৬  সোমবার ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যেন সরষের মধ্যেই ভূত! জম্মু ও কাশ্মীরে সন্ত্রাস দমন অভিযানে অবদানের জন‌্য গত আগস্টে রাষ্ট্রপতির হাত থেকে পুরস্কার পেয়েছিলেন ডিএসপি দেবেন্দ্র সিং। রাষ্ট্রপতি পুরস্কারপ্রাপ্ত সেই পুলিশ আধিকারিক রক্ষককেই ভক্ষক হিসেবে জঙ্গিদের গাড়ি থেকে দিন কয়েক আগে উদ্ধার করেছিল পুলিশ। ধৃত দেবেন্দ্রর সঙ্গে সংসদ ভবনে হামলার মূল চক্রী আফজল গুরুর যোগ ছিল বলেও তদন্তে উঠে এসেছে। কিন্তু সম্প্রতি, উকিলকে লেখা আফজলের এক চিঠি থেকে বিস্ফোরক তথ্য মেলায় ফের তাঁর ফাঁসির আদেশ নিয়ে ফের উঠেছে প্রশ্ন। আর আফজলের মৃত্যুদণ্ড নিয়ে প্রশ্ন তুলেই বিতর্কের শিকার হলেন প্রবীণ অভিনেত্রী তথা পরিচালক মহেশ ভাটের স্ত্রী সোনি রাজদান।

এক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবর টুইট করেছিলেন অভিনেত্রী সোনি। তিহার জেলে বন্দি থাকাকালীন আফজল একটি চিঠি লিখেছিল তার ব্যক্তিগত উকিল সুশীল কুমারকে। সেই চিঠিতেই আফজল বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছিল তৎকালীন পুলিশ আধিকারিক দেবেন্দ্র সিংয়ের বিরুদ্ধে। আফজলের কথায়, সিং-সহ জম্মু ও কাশ্মীরের অন্যান্য পুলিশ আধিকারিকরা তাকে অকথ্য অত্যাচার করেছিল। শুধু তাই নয়, জোর করে তার থেকে টাকা লুটেছিল। এরপরই সেই বিস্ফোরক অভিযোগ তুলে আফজল দাবি করেছিল যে, এই দেবেন্দ্র সিং-ই তাকে সংসদ ভবন হামলায় যুক্ত একজনের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন। এমনকী, লেখা চিঠিতে এও অভিযোগ তুলেছে যে, দেবেন্দ্রই সেই ব্যক্তি যিনি আফজলকে নির্দেশ দিয়েছিলেন সাংসদ ভবন হামলাকারীদের জন্য একটি আশ্রয়ের বন্দোবস্ত করতে এবং মূল ঘটনার দিলেন জন্য একটি গাড়িরও ব্যবস্থা করতে। দেবেন্দ্রর উপর আফজলের তোলা অভিযোগের চিঠি নিয়েই সেই জাতীয় সংবাদ মাধ্যম একটি বিস্ফোরক খবর করেছিলেন। যে খবর শেয়ার করেই বিপাকে পড়েছেন সোনি রাজদান।

[আরও পড়ুন: ‘এরপর বিনা নিমন্ত্রণেও আসব’, সুনীল-পত্নীর আতিথেয়তায় মুগ্ধ অনুষ্কা ]

টুইটে সোনি লিখেছেন, “এইজন্যই ভেবেচিন্তে মৃত্যুদণ্ডের নির্দেশ দেওয়া উচিত। যদি সেই ব্যক্তি নিরাপরাধ হোন তাহলে তো তাঁকে মৃত্যুর পর আর ফিরিয়ে আনা সম্ভব নয়। তাই মৃত্যুদণ্ডের নির্দেশকে লঘু করে দেখা উচিত না। আর তাই বলির পাঁঠা আফজল গুরুর মৃত্যু নিয়ে ভাল করে তদন্ত হওয়া প্রয়োজন।”  “আফজল গুরুর পর কেন দেবেন্দ্র সিংকে ছেড়ে দেওয়া হল?”, আরেকটি টুইটে প্রশ্ন তুলেছেন সোনি। আলিয়া ভাটের মায়ের এই টুইটের পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনরা তাঁকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি।

[আরও পড়ুন: বহুদিন ধরেই জঙ্গিদের সাহায্য করছিল কাশ্মীরে ধৃত DSP, যোগাযোগ ছিল আফজল গুরুর সঙ্গেও!]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং