BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘আমি ভক্ত! কারও বাবার ক্ষমতা থাকলে আমার মুম্বই আসা আটকে দেখাক’, বিস্ফোরক কঙ্গনা

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: September 5, 2020 1:56 pm|    Updated: September 5, 2020 1:57 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “হ্যাঁ আমি ভক্ত! মহারাষ্ট্র কারও বাবার নয়, ক্ষমতা থাকলে আমার মুম্বই আসা আটকে দেখাক কেউ। আমি বুক ফুলিয়ে বলছি যে আমিও একজন মারাঠি, এবার আমার কিছু করার হলে করে নিন!”, ফের বিস্ফোরক কঙ্গনা রানাউত (Kangana Ranaut)।

এরপরই অভিনেত্রী শিবসেনাকে তোপ দেগে বলেন, “দেখছি অনেকেই আমায় মুম্বই না আসার জন্য হুমকি দিচ্ছেন। এই হুমকি শুনে আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি সামনের সপ্তাহেই আসব মুম্বইতে। সেপ্টেম্বরের ৯ তারিখ আসছি। ফ্লাইট কখন ল্যান্ড করবে জানিয়ে দেব। কারওর বাবার ক্ষমতা হলে আমাকে আটকে দেখাক!”

Kangana Ranaut

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি বেশ সক্রিয়। বিশেষ করে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে। ডান-বা না দেখে যাকে পারছেন মোক্ষম দিচ্ছেন। আমজনতা তো কোন ছাড়! করণ জোহর, আদিত্য চোপড়া, মহেশ ভাট, এমনকী খান-কাপুরদের মতো বলিউডের ডাকসাইটে তারকাদেরও রেয়াত করছেন না অভিনেত্রী। রাজনৈতিক ময়দান নিয়েও বিতর্কিত মন্তব্য করে বসছেন। এসবের মাঝেই টুইটারে ফের বিস্ফোরক মন্তব্য মারাঠিদের নিয়ে। শুধু তাই নয়, বলিউডকে ‘মুসলিম শাসিত ইন্ডাস্ট্রি’ বলেও তোপ দাগেন অভিনেত্রী!

কঙ্গনার কথায়, “কারও যোগ্যতা নেই! সাহসও হয়নি গত একশো বছরে মারাঠিদের গর্ব নিয়ে বলিউড কোনও সিনেমা বানানোর। আমি এই মুসলিম শাসিত ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের প্রাণ-কেরিয়ার সব বাজি লাগিয়ে শিবাজি মহারাজ আর রানি লক্ষ্মীবাইকে নিয়ে সিনেমা বানিয়েছি। মহারাষ্ট্রকে নিয়ে যারা এখন এত গালভরা কথা বলছে, সেসব ঠিকাদারকে গিয়ে জিজ্ঞেস করুন তো ওঁরা মহারাষ্ট্রকে নিয়ে কী করেছে?”

[আরও পড়ুন: রক্ত জোগাড় না হলে বাঁচানো অসম্ভব! থ্যালাসেমিয়ায় আক্রান্ত শিশুর চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন দেব]

অন্যদিকে, শুক্রবার মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ সাফ জানিয়ে দিয়েছেন যে, “কঙ্গনার কোনও অধিকার নেই মুম্বইতে থাকার। ও যা মন্তব্য করেছে, তার ভিত্তিতে ওঁর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপও নেওয়া যেতে পারে।” আর অনিল দেশমুখের এই মন্তব্যের পরই রণংদেহী কঙ্গনা ময়দানে নেমে হুংকার ছাড়েন যে, “মহারাষ্ট্র কারও বাবার নয়, আমাকে আটকে দেখাক ক্ষমতা থাকলে!”

তাঁর বাক স্বাধীনতা কেড়ে নেওয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেছেন কঙ্গনা। নেটজনতারাও দ্বিভক্ত অভিনেত্রীকে নিয়ে। আর তার ভিত্তিতেই হরিয়ানার মন্ত্রী অনিল ভিজের মন্তব্য, “কঙ্গনাকে পুলিশি নিরাপত্তা দেওয়া উচিত। ওঁর বাকস্বাধীনতাকেও আটকানো উচিত নয়।”

[আরও পড়ুন: ‘তাসের ঘর’ রিভিউ: সুখী সংসারের অন্দরে নারীর একাকীত্বের গল্প, অনবদ্য স্বস্তিকা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement