BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২২ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিহারে নয়, সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত হোক মুম্বইতে, সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ রিয়া

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: July 29, 2020 3:35 pm|    Updated: July 29, 2020 5:43 pm

Petition filed by actor Rhea Chakraborty in Supreme Court

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ছেলের প্রাক্তন বান্ধবী অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে ১৬ দফা অভিযোগ তুলে মঙ্গলবারই পাটনার রাজীব নগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন সুশান্তের (Sushant Singh Rajput) বাবা কৃষ্ণকুমার সিং। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৪১, ৩৪২, ৩৮০, ৪০৬, ৫০৬ এবং ৩০৬ ধারায় রিয়ার বিরুদ্ধে এফআইআর করা হয়েছে। কে কে সিংয়ের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই পাটনা থেকে ৪জনের একটি টিম মুম্বইয়ের পৌঁছেছেন ঘটনার তদন্তে। অন্যদিকে অভিযোগ দায়েরের পরই মুম্বইয়ের ডাকসাইটে এক আইনজীবীকে নিয়োগ করেছেন রিয়া চক্রবর্তী (Reah Chakraborty)। যিনি কিনা অতীতে সলমন, সঞ্জয় দত্তের মতো হাই প্রোফাইল কেসও সামাল দিয়েছেন পারদর্শীতার সঙ্গে। শোনা যাচ্ছে, এই পরিস্থিতিতে আগেভাগেই অর্ন্তবর্তীকালীন জামিনের আবেদনের ব্যবস্থা সেরে রেখেছেন অভিনেত্রী। পাশাপাশি, সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত যাতে বিহার থেকে মুম্বইতে নিয়ে আসা হয়, তার জন্য শীর্ষ আদালতের কাছে আবেদন করেন রিয়া চক্রবর্তী। 

“সেভাবে আয়ের উৎস না থাকলেও কীভাবে একজন হাইপ্রোফাইল আইনজীবী নিয়োগ করলেন রিয়া? উঠছে প্রশ্ন।”

বুধবার সকালে এএনআই সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই প্রাথমিকস্তরে তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। কৃষ্ণকুমার সিং যাঁদের নাম উল্লেখ করেছেন এফআইআর-এ প্রত্যেকের উপরেই নজর রাখছে পুলিশ। জেরাও করা হবে বলে জানিয়েছেন পাটনার পুলিশ আধিকারিক বিনয় তিওয়ারি। এদিকে মঙ্গলবার রাতেই মুম্বইয়ের বিশিষ্ট আইনজীবী সতীশ মানশিন্ডে রিয়ার বাড়িতে গিয়েছিলেন আলোচনার জন্য। স্বাভাবিকবশতই সংবাদ মাধ্যমের কাছে কেস নিয়ে কোনওরকম মুখ খোলেননি তিনি। তবে জানা গিয়েছে, এদিন রাতেই নাকি রিয়ার অন্তর্বতী জামিনের জন্য যাবতীয় সব ব্যবস্থা করে ফেলেছেন সতীশ।

[আরও পড়ুন: রিয়ার পরিবার সুশান্তকে পাগলা গারদে পাঠাতে চেয়েছিল! FIR-এ বিস্ফোরক দাবি অভিনেতার বাবার]

ফাইল চিত্র

সমস্ত তথ্য একত্রিত করে রিয়া চক্রবর্তীকে দিয়ে সই-সাবুদ করিয়ে রেখেছেন। এমনকী, বুধবার সকালেও নাকি সতীশ মানশিন্ডের এক জুনিয়র আইনজীবীকে রিয়ার বাড়ির সামনে দেখা গিয়েছে। সূত্র অন্তত এমনটাই দাবি করছে।

প্রসঙ্গত, মুম্বইয়ে আইনজীবী হিসেবে সতীশ মানশিন্ডের বেশ নামডাক রয়েছে। ১৯৯০ সালে বম্বে ব্লাস্ট ইস্যুতে সঞ্জয় দত্তের হয়ে মামলা লড়া থেকে শুরু করে মহারাষ্ট্রের পালঘর হত্যাকাণ্ড মামলার নেপথ্যেও রয়েছেন এই সতীশ মানশিন্ডেই। এমনকী, সলমন খানের হয়েও তিনি মামলা লড়েন বলে জানা গিয়েছে। এবার সুশান্তের বাবার দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে পালটা মামলা লড়তে সেই সতীশ মানশিন্ডের ওপরই ভরসা রেখেছেন রিয়া চক্রবর্তী। তবে বলিউডে এখনও পর্যন্ত সেরকম কোনও ছবি না করে কিংবা সেরকম আয়ের উৎস না থাকায় কীভাবে এইরকম একজন হাইপ্রোফাইল আইনজীবীকে নিয়োগ করেছেন রিয়া? সেই বিষয়েও প্রশ্ন ছুঁড়েছেন নেটিজেনদের একাংশ।

[আরও পড়ুন: ভরতি নিচ্ছে না হাসপাতাল, মুমূর্ষু করোনা রোগীর চিকিৎসার ব্যবস্থা করলেন সাংসদ দেব]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে