BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘করোনা টেস্ট করাব না’, স্যানিটাইজ করতে আসা পুরকর্মীদের বাংলোয় ঢুকতেই দিলেন না রেখা

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: July 14, 2020 9:11 pm|    Updated: July 14, 2020 9:11 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অভিনেত্রী রেখার (Rekha) বান্দ্রার ‘সি স্প্রিংস’ বাংলোর নিরাপত্তারক্ষী করোনা আক্রান্ত হওয়ায় রবিবারই গোটা এলাকা সিল করে দেওয়া হয়েছে বৃহন্মুম্বই পুরসভার তরফে। উপরন্তু মঙ্গলবার সকালেই অভিনেত্রীর বাড়ির আরও দুই পরিচারকের শরীরে মিলেছে মারণ ভাইরাসের উপস্থিতি। স্বাভাবিকবশতই রেখার গোটা বাংলো এবং তৎসংলগ্ন এলাকা স্যানিটাইজ করার কথা ছিল মুম্বই পুরসভার। কিন্তু সূত্রের খবর, অভিনেত্রী নাকি বৃহন্মুম্বই পুরকর্মীদের তাঁর বাড়িতে ঢুকতেই দেননি স্যানিটাইজেশনের জন্য! ঘটনায় হতবাক হয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মীরা! চারদিকে যখন এমন করোনা আবহ, তখন এই পরিস্থিতিতেও তাঁর মতো একজন কিংবদন্তী অভিনেত্রী কী করে একাজ করতে পারেন? দায়বদ্ধতা নেই কোনও? প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

 

জানা গিয়েছে, মঙ্গলবারই রেখার বাড়ির আরও দুই পরিচারকের রিপোর্ট কোভিড পজিটিভ আসায়, বৃহন্মুম্বই পুরসভার তরফে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করে অভিনেত্রীকে করোনা পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দেয়। কিন্তু রেখা পালটা পুরকর্মীদের জানিয়েছেন যে, তিনি এখনও পর্যন্ত শরীরে কোনওরকম অস্বস্তি অনুভব করছেন না। তাই তড়িঘড়ি করোনা পরীক্ষা না করিয়ে আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন। তবে আগেভাগেই অবশ্য রেখা বলে দিয়েছিলেন যে, বৃহন্মুম্বই পুরসভার তরফে তাঁর কোভিড পরীক্ষা করানো হোক, তিনি চান না! নিজেই করোনা পরীক্ষা করাবেন এবং সেই রিপোর্ট মুম্বই পুরসভার হাতে তুলে দেবেন। কিন্তু বাড়ির ৩ জন স্টাফের করোনা হলেও অভিনেত্রী এখনও কেন পরীক্ষা করাচ্ছেন না! চিন্তায় পুরকর্মীরা। উপরন্তু মুম্বই পুরকর্মীদের নিজের বাংলোতেও ঢুকতে দেননি স্যানিটাইজেশনের জন্য!

[আরও পড়ুন: আলিয়াকে ক্রমাগত ধর্ষণ ও খুনের হুমকি! আইনি পদক্ষেপ করছেন অভিনেত্রীর দিদি শাহিন]

Rekha

গত দু’দশক ধরেই অভিনেত্রী রেখা ব্যক্তিগত জীবন প্রচারের আড়ালে রাখতে পছন্দ করেন। খুব ঘনিষ্ঠ কেউ না হলে ইন্ডাস্ট্রির হাইপ্রোফাইল পার্টি কিংবা অনুষ্ঠানেও পা রাখেন না! তবে এই মারাত্মক করোনা আবহেও যে অভিনেত্রী এরকম একটা পদক্ষেপ করবেন! তা বোধহয় কেউ কল্পনাও করেননি! সূত্রের খবর, অভিনেত্রীর ম্যানেজারই নাকি পুরকর্মীদের বলেন, “আমার ফোন নম্বর নিন। আগে থেকে যোগাযোগ করুন। তারপর দেখছি!” গোটা ঘটনায় অনেকেই হতবাক। এদিকে রেখার প্রতিবেশী জোয়া আখতারের বাংলোও সিল করেছে বিএমসি। 

[আরও পড়ুন: শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল, আরও ১ সপ্তাহ অমিতাভ ও অভিষেককে হাসপাতালে থাকতে হবে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement