১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ব্যাংককে টানা ৩ দিন হোটেলের এক ঘরে ‘বন্দি’ ছিলেন সারা-সুশান্ত! দাবি অভিনেতার সহযোগীর

Published by: Suparna Majumder |    Posted: August 28, 2020 9:44 pm|    Updated: August 28, 2020 9:44 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সুশান্ত সিং রাজপুত (Sushant Singh Rajput) মৃত্যুর ঘটনায় এবার জড়াল সারা আলি খানের (Sara Ali khan) নাম। সারা ও সুশান্তের প্রেমের বিষয়ে মুখ খুললেন অভিনেতার প্রাক্তন সহযোগী সাবির আহমেদ (Sabir Ahmed)। সাবিরের দাবি, ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে সুশান্তের সঙ্গে ব্যাংককে ছিলেন সারা। টানা ৩ দিন হোটেলের ঘর থেকে বের হননি তাঁরা। এরই মাঝে শোনা গিয়েছে, ২০২১-এর দাদাসাহেব ফালকে চলচ্চিত্র উৎসবে সুশান্ত সিং রাজপুতকে সম্মানিত করা হবে।

[আরও পড়ুন: শ্বশুরবাড়ির হাল সামলাতে আসছে ‘ভাগ্যলক্ষ্মী’, পরিচয় হয়েছে টেলিভিশনের এই সদস্যের সঙ্গে?]

এর আগে এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রিয়া চক্রবর্তী (Rhea Chkaraborty) সুশান্তের এই ব্যাংকক সফরের কথা উল্লেখ করেছিলেন। রিয়া দাবি করেছিলেন, ৬ বন্ধুর সঙ্গে এই সফরে সুশান্ত ৭০ লক্ষ টাকা খরচ করেছিলেন। সাবির জানান, সুশান্ত ছাড়া বাকি ৫ জন ছিলেন কুশাল জাভেরি, সিদ্ধার্থ গুপ্ত, আব্বাস, মুস্তাক, সাবির নিজে। তাঁদের সঙ্গে সফরে যোগ দিয়েছিলেন সারা আলি খানও। মানে মোট ৭ জন ব্যাংকক সফরে ছিলেন। প্রাইভেট জেটে করেই সকলে ব্যাংককে গিয়েছিলেন। সেখানে গিয়ে বিলাসবহুল হোটেলেও ছিলেন। সুশান্ত এবং সারা টানা ৩ দিন হোটেলের ঘরে ছিলেন। বাইরে বের হননি।

[আরও পড়ুন: গণেশ বন্দনার ছবি পোস্ট করে নেটদুনিয়ায় মারাত্মক ট্রোলড সারা আলি খান]

সাবির আরও জানান, ব্যাংকক সফরের সময় শেষ হওয়ার আগেই সুশান্ত ও সারা এবং সুশান্তের দেহরক্ষী মুস্তাক বাদে বাকি সকলে ফিরে এসেছিলেন সুনামি সতর্কতার কারণে। সারা ও সুশান্ত কেন ফিরে আসেননি? প্রশ্নের উত্তরে সুশান্তের প্রাক্তন সহযোগী জানান, সারার ফেরার টিকিট পাওয়া যাচ্ছিল না। তাই তাঁরা আগে ফিরে এসেছিলেন। সুশান্তের এটিএম কার্ড দিয়েই টিকিট কাটা হয়েছিল। আসার পথে টাকা ফুরিয়ে গেলে সুশান্তের বন্ধু স্যামুয়েল মুম্বই থেকে টাকা পাঠিয়েছিলেন। সারার ব্যবহার খুবই ভাল ছিল বলে দাবি করেন সাবির। দু’জনের সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার খবরে তিনি খুব অবাক হন বলেও জানান। উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ডিসেম্বরেই মুক্তি পেয়েছিল সুশান্ত-সারা অভিনীত ছবি ‘কেদারনাথ’।

ইতিমধ্যেই, রিয়া চক্রবর্তী, সিদ্ধার্থ পিঠানি, স্যামুয়েল মিরান্ডা, শৌভিক চক্রবর্তী এবং দীপেশ সাওয়ান্তকে জেরা করেছে সিবিআইয়ের (CBI) গোয়েন্দারা। সূত্রের খবর, রাজসাক্ষী হতে নাকি রাজি হয়েছেন সুশান্তের বন্ধু তথা ক্রিয়েটিভ ম্যানেজার সিদ্ধার্থ পিঠানি (Sidharth Pithani) এবং কেয়ারটেকার দীপেশ সাওয়ান্ত।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement