BREAKING NEWS

০৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘ভবিষ্যতের ভূত’-এর প্রদর্শন নিয়ে রাজ্যের কাছে রিপোর্ট তলব সুপ্রিম কোর্টের

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: March 25, 2019 8:37 pm|    Updated: May 15, 2021 11:35 am

Screen Bhobishyoter Bhoot orders Supreme Court.

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সমস্যা আর পিছু ছাড়ছে না ‘ভবিষ্যতের ভূত’-এর। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পরেও কোনও প্রেক্ষাগৃহেই দেখা যাচ্ছে না ছবিটি৷ পরিস্থিতির পরিবর্তন না হওয়ায় ফের সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ প্রযোজনা সংস্থা। সংস্থার তরফে সর্বোচ্চ আদালতে জানানো হয়েছিল যে, রাজ্যের প্রায় কোনও হল এই ছবি দেখাতে সাহস করছে না। এমনকী, হেলদোল নেই কোনও প্রেক্ষাগৃহের মালিকদের মধ্যেও। তার পরিপ্রেক্ষিতে, রাজ্যে সুপ্রিম কোর্টের পূর্ব নির্দেশ লাগু হয়েছে কি না, সেই রিপোর্ট পেশের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷ বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় এদিন জানান, রাজ্যের সমস্ত  প্রেক্ষাগৃহকে চিঠি লিখে জানাতে হবে যে এই ছবি দেখাতে সরকারপক্ষের কোনওরকম আপত্তি নেই। পাশাপাশি একথাও জানান, “এক্তিয়ারের বাইরে গিয়ে সিনেমা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছিল পুলিশ। চিন্তার স্বাধীনতা যেন বাধা না পায়, ফুল ফুটুক বাংলায়।” অপরদিকে, শীর্ষ আদালতের এই রিপোর্ট পেশের নির্দেশের পরই রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হয়েছে ‘ভবিষ্যতের ভূত’ প্রদর্শনে কোনওরকম নিষেধাজ্ঞা নেই। এই মামলার পরবর্তী শুনানি ১ এপ্রিল।

[আরও পড়ুন: রাজনীতিতে নামছেন সঞ্জয় দত্ত! জল্পনার মধ্যেই মুখ খুললেন অভিনেতা]

প্রসঙ্গত, ১৫ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পেয়েছিল ‘ভবিষ্যতের ভূত’ ছবিটি। কিন্তু তার পরের দিনই, ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকেই বন্ধ হয়ে যায় ছবির প্রদর্শন। কেন, কী কারণে ছবিটি বন্ধ করে দেওয়া হয়, তার কোনও সদুত্তর দিতে পারেনি কেউই। শুধু নিঃশব্দে কলকাতায় বন্ধ হয়ে যায় ছবিটি। বলা হয়, ‘উপরমহলের নির্দেশেই’ শহরের প্রায় সব সিঙ্গল স্ক্রিন আর মাল্টিপ্লেক্স থেকে তুলে নেওয়া হয় ‘ভবিষ্যতের ভূত’। কিন্তু কে বা কারা এই ‘উপরমহল’ তা কেউ খোলসা করেননি। আবার কোথাও শোনা যায়, ‘যান্ত্রিক ত্রুটি’র জন্য দেখানো যাচ্ছে না এই ছবি। অনেকেরই দাবি, ছবির চরিত্রগুলির সঙ্গে রাজনীতিকদের বেশ মিল রয়েছে৷ তাই হয়তো সে কারণেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ছবির প্রদর্শন। যার প্রতিবাদে সরব হয়েছিল টলিপাড়া৷ মামলা গড়ায় সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত।  

[আরও পড়ুন: প্রথমবার বাবার ছবিতে নায়ক বনি, শুটিংয়ের খুঁটিনাটি জানালেন অভিনেতা]

গত ১৫ মার্চ সুপ্রিম কোর্ট স্পষ্ট জানিয়েছিল, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ছবিটির প্রদর্শন শুরু করতে হবে। সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, কোনও ছবি সেন্সর বোর্ডের সার্টিফিকেটে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাওয়ার পর তা কোনওভাবেই বন্ধ করা যায় না। এর জন্য মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্রসচিবকে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। নোটিস পাঠানো হয় ডিজিপিকে। সঙ্গে রাজ্য পুলিশকেও নির্দেশ দেওয়া হয়, তারা ছবিটির প্রদর্শনের জন্য যেন সহায়তা করেন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে