BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভাইরাস কবলিত বিশ্বে বেঁচে মাত্র দু’জন! লকডাউনে শিলাদিত্য মৌলিকের শর্ট ফিল্ম ‘একটি তারা’    

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: May 3, 2020 6:32 pm|    Updated: May 3, 2020 8:04 pm

An Images

শম্পালী মৌলিক: ঘরবন্দি দিনগুলোয় সকলেই প্রায় নিজের ক্রিয়েটিভ সত্তাগুলোকে ঝালিয়ে নিচ্ছেন। অখন্ড অবসরে মাথায় খেলছে নিত্যনতুন আইডিয়া। অনেকেই মোবাইলের সাহায্যে একক অভিনয়ে বানিয়ে ফেলছেন ছোট ছোট ছবি। প্রত্যেকেই সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেছেন, ফলে ছবি তৈরিতে এডিটিংয়ের বড় ভূমিকা দেখা যাচ্ছে। এবং একক অভিনয়ে কে কত দক্ষ, তার উপর শর্টফিল্মগুলোর ইমপ্যাক্ট নির্ভর করছে অনেকটাই। কিছু ছবি দর্শকের মনে দাগ কেটেছে। কিছু ছবি আবার কোনও প্রভাবই ফেলেনি।

গতকাল অর্থাৎ শনিবার রাতে ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে শিলাদিত্য মৌলিকের শর্ট ফিল্ম ‘একটি তারা: দ্য লোনলি স্টার’। এই শিলাদিত্য মৌলিকেরই প্রথম বাংলা ছবি ‘সোয়েটার’ গত বছর বেশ সাড়া ফেলেছিল। তাঁর বানানো ‘হৃৎপিণ্ড’ ছবিটিও আপাতত মুক্তির অপেক্ষায়। আগ্রহ ছিল যে এই লকডাউনের সময় শিলাদিত্য কী বানালেন? আইডিয়াটা চমৎকার। সময়টা আরও কিছুটা এগিয়ে গিয়েছে। ভাইরাস আক্রান্ত সেই সময়ে মানুষ কেমন প্যারানইয়ায় ভুগছে, সেটা দিয়ে ছবিটির শুরু। এক নায়িকা এবং এক অনুরাগীর ভিডিও কল দিয়ে ছবির সূত্রপাত। ভাইরাস কবলিত বিশ্বে এই দু’জনেই বেঁচে রয়েছে। যে নায়িকা আপাতদৃষ্টিতে কাউকে পাত্তা দিত না, সেই এখন কথা বলার, যোগাযোগ করার মানুষ খুঁজছে। সে মরিয়া উলটো দিকের মানুষটির মুখ দেখতে। বহুদিন সে দেখেনি কোনও মানুষের মুখ। হঠাৎ পাওয়া ফোন কল তাকে অস্থির করে তোলে। কিন্তু নায়িকা এই মানুষটির মুখ দেখতে পায় না। মাস্কে ঢাকা মুখ। শত অনুরোধেও ছেলেটি মাস্ক খুলতে চায় না। তাদের কথোপকথন সামনে নিয়ে আসে অতিমারী আক্রান্ত নিঃস্ব পৃথিবীর দিন যাপনের গল্প। সেই সঙ্গে উঠে আসে ভক্ত ও নায়িকার আগের সাক্ষাতের কথাও। মেয়েটি বারবার অনুরোধ করে মাস্ক খুলে মুখটা একবার দেখতে দিতে। কিন্তু না! ছেলেটি নারাজ। এরপর কী হয়? জানতে হলে দেখতে হবে ছবিটি।

[আরও পড়ুন: কাপুর বাংলোতেই ঘনিষ্ঠদের উপস্থিতিতে ঋষির স্মরণসভা, আয়োজনে নীতু-রণবীর]

নায়িকার চরিত্রে পায়েল সরকার। তার অনুরাগীর চরিত্রে শুভ্র এস দাস। এডিটিংয়ে সংলাপ ভৌমিক। খুব ভাল মিউজিক করেছেন রণজয় ভট্টাচার্য। ‘একটি তারা: দ্য লোনলি স্টার’ সিনেমাটিতে ফিউচারিস্টিক ভাবনা রয়েছে। ছবিটা বলে, কিছুদিন নিজের সঙ্গে থাকা, একা থাকা ততটাও খারাপ নয়। মোবাইলে তোলা ১৪ মিনিটের ছবিটি বেশ লাগে দেখতে। নায়িকার চরিত্রে পায়েলের কাজটা কঠিন ছিল। কারণ, তাঁর একার অভিব্যক্তির উপরই অনেক কিছু নির্ভর করছিল। ভালই সামলেছেন তিনি। সব থেকে সুন্দর ‘একটি তারা’র ভাবনা, যার জন্যে পরিচালককে কৃতিত্ব দিতেই হয়।

[আরও পড়ুন: জ্যাকলিনের ভোঁতা সংলাপ ও অভিনয়, জমল না ‘মিসেস সিরিয়াল কিলার’]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement