BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

উদ্ধব প্রশাসনের গদি নড়াতে কি কঙ্গনাকেই হাতিয়ার করছে বিজেপি?

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: September 11, 2020 5:49 pm|    Updated: September 11, 2020 6:02 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “খুব লড়ি মর্দানি, মানালিওয়ালি রানি…” নেটদুনিয়ায় বিজেপিপন্থীদের সোশ্যাল ওয়ালে এখন ঠিক এই কথাটাই ঘুরছে। দিন দুয়েক ধরেই নেটজনতার একাংশ প্রশ্ন তুলেছে যে, মহারাষ্ট্রে ‘ঠাকরেতন্ত্রে’র গদি নড়িয়ে দেওয়ার জন্য একা কঙ্গনা রানাউতই (Kangana Ranaut) কি যথেষ্ট? তা অবশ্য সময়ই বলবে! তবে শত বিতর্কে, শিব সেনার সঙ্গে সংঘাতের মাঝে গেরুয়া শিবিরের সমর্থন পেয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী। যা একেবারে দিনের আলোই মতোই পরিষ্কার সবার কাছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে Y+ ক্যাটাগরির নিরাপত্তা পেয়েও বহুল চর্চিত হয়েছেন বলিউডের ‘কন্ট্রোভার্সি ক্যুইন’। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিরোধী পক্ষরা যখন প্রশ্নবাণে অভিনেত্রীকে শাণিত করতে ব্যস্ত, তখন গেরুয়া শিবিরের নেতা-মন্ত্রীরা কঙ্গনার হয়ে চোখ রাঙিয়েছেন তাঁদের দিকে। এসবের মাঝেই কঙ্গনা রানাউতের মা আশা রানাউত স্পষ্ট করে দিলেন তাঁর রাজনৈতিক অবস্থান। সাফ জানিয়ে দিলেন যে, এযাবৎকাল রানাউত পরিবার জাতীয় কংগ্রেসের আদর্শে বিশ্বাসী হলেও এবার থেকে বিজেপিকেই সমর্থন করবেন।

মেয়ের সুরক্ষার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর Y+ ক্যাটাগরির নিরাপত্তা ব্যবস্থার উদ্যোগেরও ভূয়সী প্রসংশা করেছেন আশাদেবী। ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেও। সূত্রপাত হয়েছিল, সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু নিয়ে। তবে বিনোদন ইন্ডাস্ট্রির ইস্যু এখন রাজনৈতিক শিবিরগুলির অস্ত্র হয়ে দাঁড়িয়েছে। মহারাষ্ট্রের ‘উদ্ধব প্রশাসন’, ‘ঠাকরে পরিবারতন্ত্র’ নিয়ে কঙ্গনার একের পর এক বিস্ফোরক সব মন্তব্যে পরিস্থিতি আরও চরমে! মুম্বইকে ‘পাক অধিকৃত কাশ্মীর’, মহারাষ্ট্রকে ‘পাকিস্তান’ থেকে শুরু করে মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে (Uddhav Thackeray) ‘বাবর’ বলে আক্রমণ অবধি করতে ছাড়েননি তিনি। যে বিবাদের জল এখন কঙ্গনা রানাউতের (Kangana Ranaut) নিজের দোরগোড়া অবধি এসে পৌঁছেছে। বিজেপি শিবিরগুলির সমর্থনে কঙ্গনার মনোবল যে আরও পুষ্ট হয়েছে, তা সোশ্যাল মিডিয়ায় চোখ রাখলেই বোঝা যায়।

[আরও পড়ুন: শিব সেনা বিতর্কের মাঝেই কঙ্গনার সঙ্গে সাক্ষাৎ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর, স্বাগত জানালেন বিজেপিতে]

Kangana

দিন যত গড়িয়েছে #JusticeforSushantSinghRajput রাজপুত ক্যাম্পেনকে ক্রমশই হাতিয়ার করে তুলেছে গেরুয়া শিবির। রাজনৈতিক মহলের একাংশের মন্তব্য, আসন্ন ভোটের জন্যই ভূমিপুত্রের মৃত্যুকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করেছেন নীতিশ কুমার। সুশান্ত ইস্যু নিয়ে শিব সেনার সঙ্গে সংঘাতের পর থেকে একটা ক্ষেত্র তো প্রস্তুত ছিলই, এবার তার রেশ ধরে কঙ্গনাকে বিজেপিতে স্বাগত জানিয়ে যেন তাতে আরও ঘৃতাহুতি দিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামদাস আঠাওয়ালে। অন্যদিকে, বিজেপি ছাড়া মহারাষ্ট্র সরকারের বিরোধী শিবিরগুলির থেকেও ঈষৎ সমর্থন আদায় করে নিয়েছেন বলিউড ক্যুইন।

কঙ্গনার হয়ে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামদাস আঠাওয়ালে মহারাষ্ট্র সরকারের সঙ্গে দেখা করে অফিস ভাঙার ক্ষতিপূরণ দাবি করেছেন। অন্যদিকে, উত্তর প্রদেশের বিজেপি সাংসদ নন্দ কিশোর গুরজার অমিত শাহর কাছে আরজি জানিয়েছেন কঙ্গনা রানাউতের নিরাপত্তা ব্যবস্থা Y+ ক্যাটাগরি থেকে বাড়িয়ে যেন Z+ করে দেওয়ার হয়। এমনকী, আবেদনপত্রে উদ্ধব সরকারের সঙ্গে আন্ডারওয়ার্ল্ডের যোগসাজশের দাবিও তুলেছেন তিনি। সবমিলিয়ে বলিউডের ‘কন্ট্রোভার্সি ক্যুইন’ যে এখন গেরুয়া শিবিরের মধ্যমণি হয়ে উঠেছেন, নেটদুনিয়ায় চোখ রাখলেই তা বোঝা যায়। তাহলে কি রাজনীতির ময়দানে শীঘ্রই অভিষেক ঘটতে চলেছে কঙ্গনা রানাউতের? উঠছে প্রশ্ন। 

[আরও পড়ুন: বিজেপিতে যোগ দিলেন কঙ্গনা রানাউতের মা, এবার কি অভিনেত্রীর পালা?]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement