BREAKING NEWS

১৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২ জুন ২০২০ 

Advertisement

‘সলমনকে মারতে পারিনি’, মন্তব্য ‘দাবাং থ্রি’র খলনায়ক সুদীপের

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: October 10, 2019 1:35 pm|    Updated: October 10, 2019 5:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “খলনায়ক যত বড় হবে, তার সঙ্গে টেক্কা দেওয়া ততটাই মজার”, লিখেছেন সলমন খান। তা কে এই খলনায়ক? কার প্রসঙ্গে এই কথা বললেন ভাইজান? তিনি ‘দাবাং থ্রি’র অন্যতম অভিনেতা কিচ্চা সুদীপ। সম্প্রতি, টুইটারে ঠিক এমনভাবেই নিজের আগামী ছবির খলনায়কের সঙ্গে পরিচয় করালেন ভাইজান। দক্ষিণী সেই অভিনেতাও ভাইজানকে নিয়ে একেবারে গদগদ। ভাইজান প্রসঙ্গে তিনি বললেন, “সলমনকে মারতে পারিনি, তাই পরিচালককে দৃশ্যে কিছু হেরফের আনতে হয়েছিল।” 

[আরও পড়ুন: জন্মদিনের আগে বিহারের বন্যা দুর্গতদের পাশে অমিতাভ, দিলেন মোটা অঙ্কের অনুদান ]

ছবির প্রচারে গিয়ে অনুরাগীদের সারপ্রাইজ কী করে দিতে হয়, তা বোধহয় ভাইজানের থেকে শিখতে হয়। ‘দাবাং থ্রি’ ছবিতে খলনায়ক হিসেবে সলমনের সঙ্গে পাল্লা কে দেবে? এই নিয়ে বোধহয় কৌতূহলের অন্ত ছিল না। তবে সব জল্পনার অবসান ঘটালেন ভাইজান। খলনায়ক রূপে দক্ষিণী সুপারস্টার সুদীপের সঙ্গে পরিচয় করালেন তিনি। দশেরা অর্থাৎ অশুভের বিনাশ ঘটিয়ে শুভ যেদিন জয়ের দুন্দুভি বাজায়, ঠিক সেই দিনটিকেই সলমন বেছে নিয়েছেন ‘দাবাং থ্রি’র রাবণকে দর্শকদের সামনে নিয়ে আসার জন্যে। ছবিতে তাঁর চরিত্রের নাম ‘বাল্লি’।

আগামী ২০ ডিসেম্বর মুক্তি পেতে চলেছে সলমন খানের বহু প্রতিক্ষীত ছবি ‘দাবাং থ্রি’। ‘দাবাং’ ফ্র্যাঞ্চাইজির এই ছবি নিয়ে যে দর্শকদের মধ্যে যে কৌতূহলের অন্ত নেই, তা বলাই বাহুল্য। প্রসঙ্গত, ভাইজানের সঙ্গে স্ক্রিন ভাগ করে নেওয়ায় যারপরনাই উচ্ছ্বসিত দক্ষিণী তারকা সুদীপ। কেমন অভিজ্ঞতা হল এই প্রথম সলমনের সঙ্গে কাজ করে? এপ্রসঙ্গে সুদীপ বলেন, কাজটা মোটেই অত সহজ ছিল না। বিশেষ করে বেশ কিছু অ্যাকশন সিকোয়েন্সে সলমনের বুকে জোরে আঘাত করতে হত। কিন্তু সলমন তো তাঁর প্রিয় অভিনেতা। তাই তাঁর সঙ্গে এমনটা করবেন কী করে! শেষমেশ পরিচালক প্রভু দেবাকে জানিয়ে দেন যে তাঁর দ্বারা সলমনকে এভাবে আঘাত করা সম্ভব নয়।

[আরও পড়ুন: তারকা না, ঘরের মেয়ে হয়েই থাকতে চায় ‘সুপারস্টার সিঙ্গার’ চ্যাম্পিয়ন বর্ধমানের প্রীতি]

সুদীপের কথায়, “একটা দৃশ্যের শুটিংয়ের সময় সলমন আমাকে ক্রমাগত বলছিলেন, ভাই জোরে আঘাত করো আমাকে। কিন্তু ওঁর প্রতি আমার যেরকম শ্রদ্ধা, আমি তা পারিনি। ব্যর্থ হয়েছি। অবশেষে, পরিচালক প্রভু সেই দৃশ্যে একটু হেরফের আনতে বাধ্য হয়েছেন!”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement