১২ মাঘ  ১৪২৬  রবিবার ২৬ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১২ মাঘ  ১৪২৬  রবিবার ২৬ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: CAA’র বিরুদ্ধে প্রতিবাদ শুরু হয়েছে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় পথে নেমেছে জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। তাদের উপর লাঠিচার্জ ও কাঁদনে গ্যাসের শেল ছোঁড়ার জন্য নিন্দিত হয়েছে দিল্লি পুলিশ। এই সমস্ত ঘটনার জন্য আঙুল উঠেছে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দিকে। আর এই ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে গেরুয়া শিবিরের দুই স্তম্ভকে সরাসরি ‘শকুনি ও দুর্যোধন’ বলে কটাক্ষ করলেন তামিল অভিনেতা সিদ্ধার্থ।

এবছরের গোড়ার দিকে রজনীকান্ত মোদি ও শাহকে কৃষ্ণ ও অর্জুনের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন। থালাইভার এই উক্তিটি তুলেই মন্তব্য করেছেন তামিল অভিনেতা সিদ্ধার্থ। তিনি জানিয়েছেন, গেরুয়া শিবিরে কে কৃষ্ণ আর কে অর্জুন, তা তিনি জানেন না। শুধু প্রধানমন্ত্রী মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহই জানেন কৃষ্ণ কে, আর অর্জুনই বা কে। কিন্তু যে যাই হোন, তাঁরা কৃষ্ণ বা অর্জুন নন, ‘শকুনি ও দুর্যোধন’। এনিয়ে একটি ট্যুইট করেছেন সিদ্ধার্থ। এই উক্তির জন্য অবশ্য সিদ্ধার্থকেও নেটিজেনদের সমালোচনার মুখোমুখি হতে হয়েছে।

[ আরও পড়ুন: গান্ধী পরিবার নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের জের, জেল হেফাজত অভিনেত্রী পায়েল রোহাতগির ]

উত্তরপূর্ব ভারত থেকে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের ঝাঁজ ছড়িয়ে পড়েছে গোটা দেশে। বাংলা, বিহার উত্তরপ্রদেশ এবং সর্বোপরি দিল্লির বিস্তীর্ণ অঞ্চল রীতিমতো জ্বলছে। আম আদমির গণ্ডি পেরিয়ে বিক্ষোভ ঢুকে গিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসগুলিতেও। শুরুটা করেছিল দিল্লির জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়। সংশোধিত নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে দিল্লিতে প্রথম বিক্ষোভ দেখান এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররাই। বিক্ষোভ দমন করতে পুলিশি অত্যাচার শুরু হয়। ক্যাম্পাসে ঢুকে মারধর করা হয় পড়ুয়াদের। নিরীহ ছাত্রীদের উপরও পুলিশি নির্যাতনের অভিযোগ ওঠে। এবার পুলিশের ‘বর্বরতা’ তথা সংশোধিত নাগরিকত্ব বিলের বিরুদ্ধে সরব দেশের বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। রীতিমতো ছাত্র আন্দোলনের রূপ নিয়েছে CAA বিরোধী বৈঠক। চাপে পড়ে একপ্রকার বাধ্য হয়েই আজ সকালে জামিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্রেপ্তার হওয়া পড়ুয়াদের ছেড়ে দিয়েছে দিল্লি পুলিশ।

[ আরও পড়ুন: CAA বিরোধী পড়ুয়াদের পাশে বলিউডের একাংশ, সমালোচিত অক্ষয়-শাহরুখ ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং