১২ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ২৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

অবশেষে সন্ধান ফুরল, ‘অভিযাত্রিক’-এর অপু হচ্ছেন অর্জুন চক্রবর্তী

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: August 3, 2019 4:40 pm|    Updated: August 9, 2021 5:49 pm

Tollywood actor Arjun Chakraborty to act in 'Abhijatrik' movie

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  বিভূতিভূষণের ‘অপরাজিত’ উপন্যাস অবলম্বনে ‘অভিযাত্রিক’ আসতে চলেছে, এই খবর প্রকাশ্যে এসেছে অনেক দিন আগেই। নেপথ্যে পরিচালক শুভ্রজিৎ মিত্র। উল্লেখ্য, ‘অপরাজিত’র শেষভাগের কাহিনিই শুভ্রজিতের হাত ধরে উঠে আসবে পর্দায়। তবে, যাবতীয় সমস্যা অপুর চরিত্রকে ঘিরে। কোন অভিনেতাকে দেখা যাবে ‘অভিযাত্রিক’-এর অপুর ভূমিকায়। এবার প্রকাশ্যে এল তাঁর নাম। তিনি অর্জুন চক্রবর্তী

[আরও পড়ুন: ‘দরকার হলেই ফোন করুন’, ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচির জোর প্রচার সাংসদ মিমির ]

কথা ছিল ওপার বাংলার অভিনেতা আরিফিন শুভ অপুর চরিত্রে অভিনয় করবেন। তবে লোকসভা নির্বাচনের সময় বাংলাদেশের দুই অভিনেতা ফিরদৌস এবং নূর তৃণমূলের প্রচারে অংশ নেওয়ার পরই যাবতীয় সমস্যার সূত্রপাত হয়। ভারতে এই মুহূর্তে বাংলাদেশি শিল্পীদের কাজ করা নিয়ে তৈরি হয়েছে বেজায় সমস্যা। আর ভিসার সমস্যা হওয়াতেই ‘অভিযাত্রিক’ থেকে বাদ পড়েছেন আরিফিন। তাই এতদিন আটকে ছিল ছবির শুটিংও। তবে এবার ‘অপু’রূপে অর্জুন চক্রবর্তীর সন্ধান মেলায় কোমর বেঁধে ময়দানে নেমে পড়েছেন পরিচালক শুভ্রজিৎ। ১৯৫৯ সালের প্রেক্ষাপটে ঠিক যেখানে ‘অপুর সংসার’-এর ইতি ঘটেছে, এবার সেখান থেকেই গল্প বলা শুরু করবে ‘অভিযাত্রিক’। অপু ওরফে অপূর্ব কুমার রায় এবং তাঁর ছেলের মধ্যেকার সম্পর্কের নানা ওঠাপড়ার কাহিনি উপর আলোকপাত করে তৈরি হচ্ছে শুভ্রজিতের ‘অভিযাত্রিক’। প্রযোজনার দায়িত্বভার গৌরাঙ্গ জালানের কাঁধে। শুটিং হবে দেশের বিভিন্ন জায়গায়। তবে ‘অভিযাত্রিক’-এর একটি মূল বৈশিষ্ট্য রয়েছে। পুরনো স্বাদ বজায় রাখতে ছবির শুটিং হবে সাদাকালোয়। অপু, তাঁর ছেলে কাজল এবং সাদা-কালো ফ্রেমে তাঁদের সম্পর্কের ওঠাপড়ার কাহিনি, এই ছবি যে নিঃসন্দেহে ষাট বছর পর আরও একবার দর্শককে সেকালে ফিরিয়ে নিয়ে যাবে, তা বলাই যায়। অপুর স্ত্রী অপর্ণার ভূমিকায় অর্জুন চক্রবর্তীর বিপরীতে দেখা যাবে ‘করুণাময়ী রানী রাসমনী’ খ্যাত দিতিপ্রিয়া রায়কে।

[আরও পড়ুন: ‘প্রলয়’-এর পর ফের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট নিয়ে ছবি রাজ চক্রবর্তীর, রয়েছেন পার্নোও]

পথের পাঁচালির অপু-দুর্গা সাহিত্যাপ্রেমী বাঙালির কাছে এক নস্ট্যালজিয়া। বিভূতিভূষণ চিত্রিত সেই চিরহরিৎ চরিত্র দুটি সত্যাজিৎ রায়ের ধরে চিত্রায়িত হয়েছে বড়পর্দায়। বৃষ্টিভেজা মাঠঘাট-প্রান্তর, দূরে রেলগাড়ির কু-ঝিকঝিক আওয়াজে দুই ভাইবোনের নতুনকে স্বাগত জানানোর সেই দৃশ্য, পুকুরের পদ্মপাতায় টুপটুপ করে জমা বৃষ্টির জল.. রূপসী বাংলার এহেন চিত্রায়ন আজও সিনেপ্রেমীদের স্মৃতিতে ফ্রেমবন্দি। সত্যজিতের হাত ধরে অপুর বেড়ে ওঠার কাহিনিও ভোলার নয়। ‘খাবার পরে, একটা করে কথা দিয়েছ’ বাঙালির দাম্পত্য খুনসুটি এবং যত্ন-ভালবাসা জাহিরের এক অন্যতম অংশ হয়ে উঠেছে। যা শেখা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং শর্মিলা ঠাকুরের ‘অপুর সংসার’-এর দৌলতেই। সেই অনবদ্য রসায়নের আখ্যান আজও স্মৃতিতে টাটকা। ‘অপু ট্রিলজি’ বাঙালির মননে আজও টাটকা। সেই নস্ট্যালজিয়াকে উসকে দিতেই ‘অভিযাত্রিক’-এর হাত ধরে বড়পর্দায় ফের আবির্ভাব ঘটছে ‘অপু’র।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে