১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

মৌলবাদীদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে স্বামীর সঙ্গে তারাপীঠে পুজো দিলেন সাংসদ নুসরত

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: March 12, 2020 10:16 am|    Updated: March 12, 2020 10:16 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সিঁথি ভরতি সিঁদুর পরে যেদিন পার্লামেন্টে শপথ নিতে গিয়েছিলেন হিন্দু নবপরিণীতা বেশে, সেদিনই তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহানের উপর ফতোয়া জারি করেছিল মৌলবাদীরা। স্বামী নিখিলের সঙ্গে ইসকনের রথের দঁড়ি টেনেও জোর সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল। এরপর থেকে অষ্টমীর অঞ্জলি হোক কিংবা কালীমন্দিরে পুজো দেওয়া, বারবার উলেমাদের রোষানলে পড়তে হয়েছে অভিনেত্রীকে। তবে কটাক্ষের শিকার হলে তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেত্রী নুসরত অবশ্য কোনও দিনই সেসবে কর্ণপাত করেননি। বরাবরই ছক ভেঙে এগিয়ে এসেছেন। বলেছেন, ধর্মনিরপেক্ষ ভারতের কথা। মুসলমান ঘরের মেয়ে হয়েও কেন হিন্দু প্রথা পালন করছেন? একাধিকবার এই প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েও অবিচল থেকেছেন নিজের বিশ্বাসে। বুধবার আরও একবার সেসব ফতোয়ার তোয়াক্কা না করে পুজো দিলেন তারাপীঠে।

বুধবার রামপুরহাটে এক শপিং মলের উদ্বোধনে গিয়েছিলেন অভিনেত্রী নুসরত জাহান। প্রচণ্ড ভীড় এবং জমায়েতের জেরে সেখানে বেশিক্ষণ থাকা সম্ভব হয়নি অভিনেত্রীর। তবে ফেরার পথে তারাপীঠের জাগ্রত মন্দিরে মায়ের দর্শন করতেও ভুললেন না। স্বামী নিখিল জৈনকে সঙ্গে নিয়েই ঢুকে পড়লেন মন্দিরের। নিষ্ঠাভরে পুজো দিলেন। বিশালকার জবা ফুলের মাল্যদান করলেন মায়ের মূর্তিতে। নুসরতের পরনে ছিল হলুদ শাড়ি। কপালে সিঁদুর। সাংসদ অভিনেত্রীর তারাপীঠে পুজো দিতে যাওয়ার খবর অবশ্য চাউর হতেই মন্দির চত্বরে ভিড় জমান অনুরাগীরা। যদিও নুসরতের তারাপীঠ মন্দিরে পুজো দেওয়া নিয়ে এখনও কোনও রকম কুমন্তব্য কোথা থেকেই পাওয়া যায়নি। তবে, সমালোচনার শিকার হলে সাংসদ যে তা ভালভাবেই সামলে নেবেন, তা বলাই যায়।

[আরও পড়ুন: ‘সংসার সীমান্তে’ চিরঘুমে ‘রাজা’ সন্তু, চোখের জলে বাবাকে বিদায় মেয়ে স্বস্তিকার ]

এর আগে সাংসদে দাঁড়িয়ে হিন্দু নববধূর বেশে শপথ নেওয়ার পর কটাক্ষের শিকার হতেই নুসরত বলেছিলেন, “একজন হিন্দুকে বিয়ে করা মানে এই নয় যে আমি আমার মুসলিম সত্ত্বা বিসর্জন দিয়ে দিয়েছি। মুসলিম পরিবারে জন্মেছি। আর সেই আভিজাত্যই বজায় রেখে যাব। কিন্তু অন্য ধর্মকে সম্মান করাতে তো দোষের কিছু নেই! কেন ধর্মের দোহাই দিয়ে মানুষে মানুষে ভেদাভেদ সৃষ্টি করা?” প্রশ্ন তুলেছিলেন তৃণমূল সাংসদ। তিনি যে ধর্মনিরপেক্ষতায় বিশ্বাসী, তারাপীঠে পুজো দিয়ে আবারও প্রমাণ করলেন নুসরত জাহান জৈন।

[আরও পড়ুন: ‘সংসার সীমান্তে’ চিরঘুমে ‘রাজা’ সন্তু, চোখের জলে বাবাকে বিদায় মেয়ে স্বস্তিকার ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement