Advertisement
Advertisement
Vashu Bhagnani

বক্স অফিসে অক্ষয়কে বাজি ধরাই কাল? ২৫০ কোটির দেনায় ডুবে ‘সর্বস্বান্ত’ প্রযোজক বাসু ভাগনানি!

ফ্লপের পাহাড় সইতে না পেরে ৭ তলা অফিস বিক্রি করলেন প্রযোজক বাসু ভাগনানি।

Vashu Bhagnani Sells Massive Pooja Ent Office To Pay Rs 250 Cr Debt: Report
Published by: Sandipta Bhanja
  • Posted:June 23, 2024 7:24 pm
  • Updated:June 23, 2024 7:24 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিয়ের পর থেকে ছেলে জ্যাকি ভাগনানি ব্যস্ত নতুন সংসার নিয়ে! এদিকে ডাকসাইটে প্রযোজক বাবা বাসু ভাগনানি (Vashu Bhagnani) কোটি কোটি টাকা ধার-দেনায় ডুবে নিজের সাত তলা অফিসটাই বিক্রি করে দিলেন।

তাঁর প্রযোজিত শেষ ছবি ‘বড়ে মিঞা ছোটে মিঞা’রও বক্স অফিসে ভরাডুবি হয়েছে! লভ্যাংশ তো দূর অস্ত, মূল টাকাও ঘরে তুলতে পারেনি এই ছবি। পূজা এন্টারটেইনমেন্ট-এর (Pooja Entertainment) ব্যানারে একের পর এক সিনেমা ফ্লপের মুখ দেখেছে। সূত্রের খবর, বাজারেও বিরাট অঙ্কের দেনায় ডুবে প্রযোজক বাসু। বকেয়া মেটাতে শেষমেশ নিজের সাধের বিলাসবহুল অফিসটাকেই বিক্রি করে দিলেন জ্যাকি ভাগনানির বাবা তথা বলিউডের স্বনামধন্য প্রযোজক। লাগাতার ফ্লপের জেরেই তাঁর এমন পরিস্থিতি বলে জানা গিয়েছে।

Advertisement

Bade Miyan Chote Miyan Review: Akshay Kumar and Tiger Shroff huff and puff their way through the film

Advertisement

শুধু অফিসই বিক্রি করেননি বাসু ভাগনানি। এমনকী তাঁর প্রযোজনা সংস্থা পূজা এন্টারটেইনমেন্টে কর্মরত ৮০ শতাংশ কর্মীদেরও ছাঁটাই করতে হয়েছে দেনায় ডুবে। প্রযোজক ঘনিষ্ঠের কথায়, “‘বেল বটম’ সিনেমা থেকেই ডুবতে শুরু করে বাসুর সংস্থা। অতিমারী পরবর্তীকালে মুক্তি পেয়েছিল এই ছবি। পরের ছবি ‘মিশন রানিগঞ্জ’-এরও বক্স অফিসে ভরাডুবি হয়। আরেকটা বিগ বাজেট ছবি ‘গণপথ’-ও যখন মুখ থুবড়ে পড়ে, তখন বড়সড় ধাক্কা খায় প্রযোজনা সংস্থা। এমনকী ভালো অঙ্কে নেটফ্লিক্সের সঙ্গে চুক্তি হওয়া সত্ত্বেও ওই ওটিটি প্ল্যাটফর্ম ছবিটা নিতে চায়নি। তখন থেকেই সংস্থার উপর খাড়ার ঘা ঝুলছিল! কফিনে শেষ পেরেকটা পুঁতল ‘বড়ে মিঞা ছোটে মিঞা’। আবারও একটা ফ্লপ। তবে অক্ষয় কুমার এবং টাইগার শ্রফ ম্যাজিক সংস্থার ক্যাশবাক্স চাঙ্গা করবে বলে মনে করা হয়েছিল। তবে সেই ছবিটাও ঐতিহাসকভাবে ব্যর্থ! বাসু ভাগনানির কাছে অফিস বিক্রি করা ছাড়া আর কোনও উপায় ছিল না।” উল্লেখ্য, ফ্লপের তালিকার সিংহভাগ ছবিতেই মুখ্য চরিত্রে অক্ষয় কুমার।

[আরও পড়ুন: সোনাক্ষী-জাহিরের বিয়ের অনুষ্ঠানে বিড়ম্বনায় পুরোহিত! ‘ছেড়ে দে মা কেঁদে বাঁচি’ অবস্থা, কেন?]

বলিপাড়ার একসময়কার ডাকসাইটে প্রযোজনা সংস্থার সাত তলা অফিসটা এখন অতীত। ২৫০ কোটির দেনায় জর্জরিত প্রযোজক সর্বস্বান্ত হওয়ার আগে বড় সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছেন বলেই জানা গিয়েছে। অতিমারীর পর থেকেই বলিউডের মন্দা বাজার। দক্ষিণী ছবি বাজার কাঁপাচ্ছিল বটে! তবে তেইশে শাহরুখ খানই রণে ভঙ্গ দিয়ে বৃহস্পতি তুঙ্গে আনেন। সেই নীরিখে দেখতে গেলে অক্ষয় কুমার লাগাতার ফ্লপের মুখে পড়েছেন। গত তিন বছরে তাঁর একটি ছবিও বক্স অফিসে সেভাবে ব্যবসা করতে পারেনি। টাইগার শ্রফেরও শেষ হিট বহু আগে। দুই তারকারে বক্স অফিসে বাজি ধরেই কি ডুবলেন বাসু ভাগনানি? এমনই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে প্রযোজক ঘনিষ্ঠদের মাঝে।

[আরও পড়ুন: ‘চিরদিনই তুমি যে আমার’, খ্রিস্টান মতে বিয়ে সম্পন্ন বিজয় মালিয়াপুত্র সিদ্ধার্থর]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ