১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ১৮ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশজুড়ে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা এবং গণপিটুনির প্রতিবাদ করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি লিখেছিলেন ৪৯ জন বুদ্ধিজীবী। যার জেরে তাঁদের বিরুদ্ধে দায়ের হয়েছে মামলা। দেওয়া হয়েছে ‘দেশদ্রোহী’ আখ্যা। এবার এর প্রতিবাদে ফের সরব হলেন বুদ্ধিজীবীদের একাংশ। অপর্ণা সেনদের বিরুদ্ধে হওয়া মামলার প্রতিবাদে প্রধানমন্ত্রীকে ফের খোলা চিঠি লিখলেন ১৮০ জন বুদ্ধিজীবী। তালিকায় আছেন অভিনেতা নাসিরুদ্দিন থেকে শুরু করে ইতিহাসবিদ রোমিলা থাপার পর্যন্ত।

[আরও পড়ুন: আপনারা কি পাকিস্তানি? ‘ভারত মাতা কি জয়’ না বলায় যুবকদের তোপ বিজেপি প্রার্থীর]

মাস তিনেক আগেই দেশজুড়ে চলতে থাকা অসহিষ্ণুতা এবং গণপিটুনির প্রতিবাদে সরব হন অপর্ণা সেন, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মতো সেলেবরা। জয় শ্রীরাম ধ্বনির আড়ালে গুণ্ডামির প্রতিবাদ করেন তাঁরা। প্রতিবাদীদের তালিকায় ছিলেন, রামচন্দ্র গুহ, মণিরত্নম, শ্যাম বেনেগল, গৌতম ঘোষ, অনুরাগ কাশ্যপ, অঞ্জন দত্ত ও শুভা মুদগলের মতো ব্যক্তিত্বরা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তথা বিজেপি সরকারের নীতির সমালোচনা করায় এই সেলেবদের নামের পাশে সেঁটে দেওয়া হয় দেশদ্রোহীর তকমা। এমনকী, এই ৪৯ জনের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলাও করা হয়। বিহারের মুজফফরপুরের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সূর্যকান্ত তিওয়ারির কাছে একটি পিটিশন দাখিল করার পর এই মামলা দায়ের করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: যমুনা দূষণ রোধে অভিনব উদ্যোগ, মন্দির প্রাঙ্গণেই প্রতিমা বিসর্জন দিল্লিতে]

কিন্তু, বুদ্ধিজীবীরা এতে দমে যেতে রাজি নন। তাঁরা প্রতিবাদের পথে অনড়। ৪৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা হওয়ার পর আসরে নামলেন আরও ১৮০ জন। মোদিকে চিঠি দিয়ে তাঁরা প্রশ্ন তুলেছেন, শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীকে লেখা একটি চিঠির ভিত্তিতে কারও বিরুদ্ধে মামলা কীভাবে হতে পারে? দেশে বেড়ে চলা গণপিটুনির ঘটনার উদ্বেগ প্রকাশ করে নাগরিক সমাজের দায়িত্ব পালন করার জন্য সাংস্কৃতিক জগতের ৪৯ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছে। মানুষের কণ্ঠস্বর স্তব্ধ করতে আইনের অপব্যবহার করা হচ্ছে। এটা বিরুদ্ধ স্বর দমন করার ষড়যন্ত্র।’ যাঁরা এই চিঠিতে সই করেছেন তাঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন, লেখক অশোক বাজপেয়ী, জেরি পিন্টো, শিক্ষাবিদ ইরা ভাস্কর, কবি জিত্‍‌ থাইল, লেখক শামসুল ইসলাম, সঙ্গীতজ্ঞ টিএম কৃষ্ণা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং