৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে দিনকয়েক আগে প্রায় অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল ভাটপাড়ায়৷ ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে উত্তপ্ত এলাকা৷ এই পরিস্থিতিতেই বৃহস্পতিবার সন্ত্রাস কবলিত এলাকায় যাচ্ছেন বুদ্ধিজীবীরা৷ স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলবেন তাঁরা৷

[ আরও পড়ুন: ভাঙড়ে তৃণমূলের বিজয়োৎসবে নর্তকীর অশ্লীল নাচ, ভাইরাল ভিডিও]

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার অপর্ণা সেন, চন্দন সেন, কৌশিক সেন-সহ বেশ কয়েকজন সন্ত্রাস কবলিত ভাটপাড়ায় যাবেন৷ শঙ্খ ঘোষ ঘটনাস্থলে হয়তো যেতে পারবেন না৷ তবে বুদ্ধিজীবীদের সমর্থন করেন বলেই জানিয়েছেন তিনি৷ বর্তমান পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলবেন তাঁরা৷ কথাবার্তা বলার পর বারাকপুর কমিশনারেটেও যাবেন বুদ্ধিজীবীরা৷ কমিশনার মনোজ ভার্মার সঙ্গে দেখা করে স্মারকলিপি জমা দেওয়ার কথা রয়েছে তাঁদের৷ এছাড়াও ওইদিনই ভাটপাড়া কাণ্ডের প্রতিবাদে অবস্থান বিক্ষোভে শামিল হওয়ার কথা বাম-কংগ্রেসের৷ সোমেন মিত্র, সূর্যকান্ত মিশ্ররা অবস্থান বিক্ষোভে অংশ নেবেন বলেই এখনও পর্যন্ত খবর৷ এদিকে, অবস্থান বিক্ষোভ এবং বুদ্ধিজীবীদের ভাটপাড়ায় যাওয়াকে কেন্দ্র করে আবারও নতুন করে অশান্তির আশঙ্কা করছে প্রশাসনিক মহল৷ তাই নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হচ্ছে৷

আরও পড়ুন: উত্তর বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ, বৃহস্পতিবার থেকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা দক্ষিণবঙ্গে]

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার ভাটপাড়া থানা উদ্বোধনের দিন থেকে নতুন করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে ভাটপাড়া৷ এলাকায় চলতে থাকে গুলি এবং বোমাবাজি৷ সংঘর্ষের মাঝে পড়ে রামবাবু সাউ এবং ধরমবীর সাউ নামে স্থানীয় দুই বাসিন্দার মৃত্যু হয়৷ পুলিশের গুলিতেই দুজনের মৃত্যু হয়েছে বলেই দাবি এলাকাবাসীর৷ তারপর থেকে অগ্নিগর্ভ পরিস্থতি তৈরি হয় ভাটপাড়ায়৷ ইতিমধ্যেই ভাটপাড়ায় মৃত দুই ব্যক্তির পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছে বিজেপির সংসদীয় দল৷ নেতৃত্বে ছিলেন বর্ধমান-দুর্গাপুরের সাংসদ এসএস আলুওয়ালিয়া৷ এছাড়া প্রতিনিধি দলে ছিলেন বিজেপি সাংসদ সত্যপাল সিং ও বিডি রাম৷ দোষীদের চরম শাস্তি দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তাঁরা৷ ১০ লক্ষ টাকা করে আর্থিক সাহায্য করার কথাও ঘোষণা করেছে বিজেপি৷ পরিস্থিতি শান্ত করতে আসরে নেমেছেন বারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং৷ স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি৷ ভাটপাড়ায় দোকানপাট, স্কুলও খুলে গিয়েছে৷ তারই মাঝে স্থানীয়দের সঙ্গে বুদ্ধিজীবীদের দেখা করতে যাওয়ার নেপথ্যে রাজনীতির গন্ধ পাচ্ছে ওয়াকিবহাল মহল৷ 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং