BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘খুদা হাফিজ’ রিভিউ: রসদ মজুত থাকলেও ঠিক জমল না

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: August 15, 2020 8:42 pm|    Updated: August 15, 2020 8:42 pm

An Images

সদ্য হটস্টারে মুক্তি পেল ‘খুদা হাফিজ’। কেমন হল বিদ্যুৎ জামওয়ালের অ্যাকশন-থ্রিলার? লিখছেন সন্দীপ্তা ভঞ্জ

পরিচালক- ফারুক কবীর
অভিনয়ে- বিদ্যুৎ জামওয়াল, অনু কাপুর, শিবালিকা ওবেরয়, অহনা কুমরা, বিপিন শর্মা, শিব পণ্ডিত

মানবপাচার, বছর একুশের নিখোঁজ যুবতী, অসহায় স্বামী এবং আন্তর্জাতিক স্তরে হিউম্যান ট্রাফিকিং অর্থাৎ মানবপাচার চক্রের কর্মকাণ্ড… এসব বিষয় নিয়েই পরিচালক ফারুক কবীরের ছবি ‘খুদা হাফিজ’ (Khuda Hafiz)। দেশে বেকারত্বের হার বৃদ্ধি, কর্মী ছাটাইয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলিও এই ছবির উপকরণ।

গল্পের শুরুটা বেশ। বাবা-মা’র দেখা পাত্রীকে বিয়ে করা। যদিও পাত্রী ভিন্ন ধর্মের। সম্ভবত জাতপাত নিয়ে দেশের এহেন টালমাটাল পরিস্থিতিতে ঐক্যের বার্তা দিতেই পরিচালক ফারুক এই বিষয়টি দিয়ে শুরু করেছেন ছবি। বিয়ের পর গদগদ রোম্যান্স, সুখের ঘরকন্নার এর মাস কাটতে না কাটতেই দেশে চরম রিসেশন। যার জেরে কাজ হারায় স্বামী-স্ত্রী দুজনেই। এবার সংসার চলবে কী করে? সেই ভাবনা থেকেই কর্মখালির বিজ্ঞাপন দেখে এক ভুয়ো সংস্থার খপ্পরে পড়ে এই লখনউয়ের নব্যবিবাহিত দম্পতি। সপ্তাহ খানেকের মধ্যেই কাজ পেয়ে যায় স্ত্রী। আকস্মিক নিয়োগপত্র আসায় তড়িঘড়ি স্ত্রীকে পাড়ি দিতে হয় দুবাইয়ে। সেখানেই গল্পের মোড় ঘোরে।

[আরও পড়ুন: ‘গুঞ্জন সাক্সেনা: দ্য কারগিল গার্ল’ রিভিউ: ‘রাফ অ্যান্ড টাফ’ পাইলটের ভূমিকায় বেমানান জাহ্নবী]

হিউম্যান ট্রাফিক চক্রের শিকার হয় ওই নববধূ (শিবালিকা ওবেরয়)। এদিকে দেশে বসে মহা ফাঁপড়ে পড়ে যায় স্বামী (বিদ্যুৎ জামওয়াল)। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ব্যাগ গুছিয়ে বেরিয়ে পড়ে স্ত্রীকে উদ্ধার করতে। আরব আমিরশাহের মানবপাচার চক্রের পাণ্ডাদের খোঁজ পেতে বেশ বেগ পেতে হয় তাঁকে। এর মাঝেই দূরদেশে আলাপ হয় ড্রাইভার বন্ধু অনু কাপুরের সঙ্গে। তারপর? সেই রহস্যটা অবশ্য সিনেমা দেখেই জানা ভাল।

সিক্স-প্যাক অ্যাবস, সুঠাম চেহারার বিদ্যুৎ জামওয়াল (Vidyut Jammwal) যে ছবিতে, সেখানে অ্যাকশন সিকোয়েন্স যে থাকবেই, তা বলাই বাহুল্য। কিন্তু প্রেম-বিরহের চক্রের মাঝে সেই অ্যাকশনের মজাটাও মাটি হয়ে গেল। বেশ কিছু রোমাঞ্চকর দৃশ্যে যেখানে বিদ্যুতের অ্যাকশন স্কিল কাজে লাগানো যেত, পরিচালক সেদিকটা এড়িয়ে গিয়েছেন। ড্রাইভার বন্ধুর চরিত্রে অনু কাপুর বেশ ভাল। পার্শ্বচরিত্র হয়েও যে কোনও দৃশ্যে নজর টিকিয়ে রেখেছেন দর্শকদের। তবে মোটের উপর ছবিতে প্রচুর রসদ থাকলেও বিশেষ মন কাড়ল না বিদ্যুৎ জামওয়ালের ‘খুদা হাফিজ’। বলা ভাল, পরিচালক যথাযথ ব্যবহারই করতে পারেননি অভিনেতাকে।

[আরও পড়ুন: ‘শকুন্তলা দেবী’ রিভিউ: শুধু অঙ্ক নয়, জীবনকে উপভোগ করার পাঠও দিলেন বিদ্যা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement