২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

Kothamrito Review: দাম্পত্য সুখ নাকি নীরবতায়! দুর্বল গল্পে ভরাডুবি হল কৌশিক-অপরাজিতার ‘কথামৃত’র

Published by: Suparna Majumder |    Posted: November 22, 2022 4:44 pm|    Updated: November 22, 2022 9:24 pm

Review of Kaushik Ganguly, Aparajita Adhya starrer Kothamrito | Sangbad Pratidin

চারুবাক: এতদিন জানা ছিল, দাম্পত্য জীবন সুখের হয় স্বামী-স্ত্রীর যৌথ বোঝাবুঝি, পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও ভালবাসায়। সুখের সুর কাটে দু’জনের মধ্যে যে কোনও একজনের সেই ভালবাসা, শ্রদ্ধা কমলে কিংবা বোঝার ভুল ঘটলে। এটাই শাশ্বত নিয়ম। কিন্তু গত শুক্রবার মুক্তি পাওয়া বাংলা ছবি ‘কথামৃত’ (Kothamrito) জানিয়ে দিতে চাইল – না, এই সত্যতা ঠিক নয়। ভুল বোঝাবুঝি বা শ্রদ্ধা কিংবা ভালবাসায় ঘাটতি নয়, দাম্পত্য সুখের হয় দু’জনের একজন কথা না বললেই! কী মজার ব্যাপার বলুন তো! তাহলে, একজনের বোবা হওয়াটাই সুখী দাম্পত্যের সবচাইতে সঠিক চাবিকাঠি!

Kothamrito-2

সেটাই দেখানো হয়েছে ‘কথামৃত’ ছবিতে। কথা মৃত হলেই সংসারিক ঝামেলার সব সমাধান ঘটে। কীভাবে সেটি হবে – সেটা জানার জন্য অবশ্যই এই ছবি একবার দেখা জরুরি, খানিকটা বলা যেতে পারে ‘বিধিসম্মত সতর্কীকরণ আর কি!’ কৌশিক (Kaushik Ganguly) আর অপরাজিতার চরিত্র একটু বেশি বয়সেই বিয়ে করেছে। কৌশিকের চরিত্রটি বদ ও রুক্ষ মেজাজি, সারাক্ষণ উলটোপালটা কথা বলে স্ত্রী, দোকানের কর্মচারী এমনকী নিজের মায়ের সঙ্গেও। স্ত্রীরও কাছেও একটা সময় অসহ্য হয়ে ওঠে। এমন সময় চিত্রনাট্যকার এবার তাঁর মস্তিষ্কপ্রসূত টোটকাটি অ্যাপ্লাই করলেন। প্রায় হঠাৎই একটা দুর্ঘটনা ‘ঘটিয়ে’ স্বামীর কণ্ঠরোধ করে দিলেন। সংসারে শান্তি ফিরে এল। সন্তানও এল সংসারে।

[আরও পড়ুন: কলকাতায় এসে বাংলা শিখছেন ভিকি কৌশল! প্রথমেই কী বললেন জানেন?]

কৌশিক-অপরাজিতার পাশাপাশি প্রতিবেশী দম্পতি হিসেবে রাখা হয়েছে বিশ্বনাথ এবং অদিতির চরিত্র, যাঁদের দাম্পত্য জীবনও অশান্তিময়। কীভাবে তাঁরা কৌশিক-অপরাজিতার জীবন বৃত্তান্তের গভীর ও গোপন কথাটি জেনে নেয় এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় সেটি ফাঁস করে প্রকৃত সত্য সামনে নিয়ে এল সেটা একই সঙ্গে অবিশ্বাস্য, হাস্যকর, অবাস্তব। কখনও মনে হতে পারে ‘সুরিয়্যালিস্টিক’ ছবি  দেখছি নাতো?

Kothamrito 1

এমন একটা আজগুবি মার্কা গল্প শুনে কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের মতো সমঝদার মানুষ অভিনয় করতে যে কেন রাজি হলেন? দর্শক সেই প্রশ্ন তুলতেই পারেন। না, তিনি মোটেই খারাপ অভিনয় করেননি। সবাক ও নির্বাক দু’টি পর্বেই তাঁর অভিনয় বিশ্বাস্য। তবুও একটা ‘কিন্তু’ থেকেই যায়। অপরাজিতা আঢ্য (Aparajita Adhya) যেমন ঘরোয়া মেজাজে গিন্নি সেজে কাজ করেন, তাতেও কোন ব্যতিক্রম ঘটেনি। বিশ্বনাথ এবং অদিতি এক কথায় দুর্বল ও অবাস্তব চিত্রনাট্যের শিকার। অমিত-ঈশান-প্রসেন ত্রয়ীর সঙ্গতে গানগুলো চরিত্রের কথা কাটাকাটির মাঝে তবু কিছুটা রিলিফ। আর রয়েছে মধুরা পালিতের ক্যামেরায় সুন্দর সকলকেই দেখিয়েছে। তবে সিনেমার আসল সৌন্দর্য বোধহয় গল্প হতে পারত।

সিনেমা – কথামৃত
অভিনয়ে – কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়, অপরাজিতা আঢ্য, বিশ্বনাথ বসু, অদিতি চট্টোপাধ্যায়
পরিচালনা – জিৎ চক্রবর্তী

[আরও পড়ুন: চোখেমুখে রাগ, হাতে ত্রিশূল,’ভোলা’ ছবির টিজারে চমক দিলেন অজয় দেবগন!]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে