১ মাঘ  ১৪২৫  বুধবার ১৬ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবন, প্রেম, ব়্যাপ আর বস্তি। সব মিলেমিশে একাকার ‘গাল্লি বয়’-এ। তবে ট্রেলারে আরও বেশি করে ধরা পড়েছে রণবীরের ব়্যাপার হওয়ার লড়াই আর বিশ্বাস- ‘আপনা টাইম আয়েগা’।

মুম্বইয়ের এক বস্তি থেকে শুরু হয় নাভিদ শেখের গল্প। বাবা তার কেউকেটা কেউ নয়। পেশায় সে ড্রাইভার। গাড়ি চালায়। বাবুরা তাকে চাকর বলে। বসতিতে থাকে তারা। নাভিদ ব়্যাপার হিসেবে নাম করতে চায়। ব়্যাপার হওয়া তার জীবনের একমাত্র স্বপ্ন। কিন্তু কেরিয়ার শুরুর আগেই হোঁচট খায় সে। কারণ, ‘চাকরের ছেলে চাকরই হবে’। তাই বাধ্য হয়েই গাড়িচালাতে শুরু করে নাভিদ। কিন্তু তাই বলে স্বপ্ন মরে যায়নি। মাথায় ঘোরে একটাই কথা- ‘আমারও সময় আসবে’। ব়্যাপের ট্রেনিং নিতে শুরু করে সে। পাশে পায় প্রেমিকা সাকিনাকে। কিন্তু এই পথে হাঁটতে গিয়ে তাকে অনেক সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় নাভিদকে। লেখাপড়া শিকেয় ওঠে। তার জন্য বাবার কাছে গালিগালাজ শুনতে হয়। গাড়ির ড্রাইভার হিসেবে বাবুদের হাজার কথা শুনতে হয়। সেসব উঠে আসে নাভিদের ব়্যাপে। রোজকার জীবনের ধকল, চাপ, পরিশ্রম নিয়েই তৈরি হয় গানের লিরিক্স।

[ অলোক নাথকে হয়তো ফাঁসানো হয়েছে, আশঙ্কা প্রকাশ আদালতের  ]

ব়্যাপার ভিভিয়ান ফার্নান্ডেজ বা ডিভাইনের জীবন অবলম্বনে তৈরি হয়েছে ‘গাল্লি বয়’ ছবিটি। ইনি মুম্বইয়ের এক স্ট্রিট ব়্যাপার। ‘মেরে গাল্লি মে’ গানটির জন্য বিখ্যাত তিনি। কিন্তু ব়্যাপার হওয়ার যাত্রাপথ তাঁর কাছে মসৃণ ছিল না। মুম্বইয়ের রাস্তায় কীভাবে তাঁর জীবন কাটত, কীভাবে তিনি একজন প্রতিষ্ঠিত ব়্যাপার হলেন, সেই গল্প দেখানো হয়েছে ছবিতে। ছবিটি পরিচালনা করেছেন জোয়া আখতার। প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন আলিয়া ভাট ও রণবীর সিং। এছাড়া রয়েছেন কল্কি কোয়েচলিন, বিজয় রাজ, চৈতন্য শর্মা, অম্রুতা সুভাষ ও সুরভিন চাওলা। ১৪ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পাবে ‘গাল্লি বয়’।

জানেন, কীভাবে সেলুলয়েডের মোদি হয়ে উঠলেন বিবেক? ]

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং