৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আলোচনা-সমালোচনা-পর্যালোচনা প্রচুর হয়েছে। কিন্তু ‘পদ্মাবতী’র মুক্তি কবে? সে প্রশ্নের উত্তর আজও অধরা। তবুও রটনা রটে। আর ছবি মুক্তির আশা নিয়ে ফের বুক বাঁধেন সিনেপ্রেমীরা।

[কেমন হল ‘টাইগার’ সলমনের প্রত্যাবর্তন, দর্শকদের মন জয় করল কি?]

বিক্ষোভকারীদের আন্দোলনের আঁচ এখন অনেকটাই কম। গুজরাট-হিমাচলের নির্বাচন পর্বও সারা। সংখ্যাতত্ত্ব যাই হোক, জয় বিজেপিরই হয়েছে। তাই এবার নিজের ড্রিম প্রজেক্টের মুক্তি নিয়ে আশার আলো দেখছেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালিও। যদিও পুরো বিষয়টি এখনও সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশনের হাতে। তবে শোনা যাচ্ছে, ইতিমধ্যেই ছবি দেখতে ইতিহাসবিদদের একটি প্যানেল গঠন করেছে সিবিএফসি। তাঁদের সিনেমাটি দেখানো হবে। এছাড়াও মেওয়ারের রাজ পরিবারের সদস্যদের ছবিটি দেখিয়ে মতামত চাওয়া হবে। এরপর সময় নষ্ট না করেই শংসাপত্র দেওয়া হবে দীপিকা-রণবীর-শাহিদের এ ছবিকে।

[কেমন হল ‘আমাজন অভিযান’, অ্যাডভেঞ্চারের রসদ কি পেল বাঙালি?]

বলিউডে জোর গুঞ্জন, জানুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহেই মুক্তি পেতে চলেছে ‘পদ্মাবতী’। এর একটি অন্য কারণও রয়েছে। জানুয়ারির পাঁচ তারিখই নায়িকা দীপিকা পাড়ুকোন ওরফে ‘পদ্মাবতী’র জন্মদিন। পরিচালক সঞ্জয় সহ গোটা টিম চাইছে ওই দিনই মুক্তি পাক এই বহু চর্চিত সিনেমা। আর সেটাই হোক দীপিকার আদর্শ জন্মদিনের উপহার। তবে তা আদেও হবে কি না সে সিদ্ধান্ত নির্ভর করছে প্রসূন জোশীর নেতৃত্বাধীন সংস্থার উপর। একান্ত যদি পাঁচ তারিখ পর্যন্তও শংসাপত্র না মেলে তাহলে ১২ তারিখের কথাও মাথায় রাখছেন প্রযোজকরা। কারণ ছবি শংসাপত্র পেলেই তা দর্শকের দরবারে আনার চিন্তাভাবনা রয়েছে তাঁদের। যাতে আবারও কোনও সেনা বা সংগঠন ছবি নিয়ে আপত্তি তুলতে না পারে। এদিকে সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে শাহিদ কাপুরও পরোক্ষে জানান, খুব শিগগিরিই ‘পদ্মাবতী’ মুক্তি পেতে চলেছে। আর তা যবেই হোক দর্শকরা অবশ্যই সিনেমাহলে গিয়ে তা দেখবে বলে আশা রাখছেন অভিনেতা।

[‘বাহুবলী’ ম্যানিয়া অব্যাহত, এবার ভোজপুরীতে তৈরি হচ্ছে ‘মহাবলী’]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং