১ মাঘ  ১৪২৫  বুধবার ১৬ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সামনেই লোকসভা নির্বাচন৷ তার আগে রাজনৈতিক মহলে চড়ছে উত্তেজনার পারদ৷ একই হাওয়া বইছে বলিমহলেও৷ কারণ খুব শীঘ্রই হয়তো মুক্তি পাবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বায়োপিক৷ ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে এসেছে ছবির ফার্স্ট লুক৷ দর্শকদের মধ্যে তা সাড়া জাগিয়েছে যথেষ্ট৷ সেলুলয়েডে মোদির চরিত্রে বিবেক ওবেরয়কে দেখে অনেকেই নাক সিঁটকোচ্ছেন৷ কারও কারও আবার দিব্যি মানানসই লেগেছে তাঁকে৷ কিন্তু কী বলছেন প্রযোজক সুরেশ ওবেরয় এবং সন্দীপ সিং? কেনই বা বিবেককে বেছে নিলেন তাঁরা?

[সেলুলয়েডে নরেন্দ্র মোদি, দেখে নিন ছবির ফার্স্ট লুক]

‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’ ছবিতে মনমোহনের চরিত্রে বাজিমাত করে দিয়েছেন অনুপম খের৷ প্রশংসার জোয়ারে ভাসছেন তিনি৷ অনেকেরই মতে, সেলুলয়েডের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নাকি পাল্লা দিতে পারছেন না৷ মোদির বায়োপিকে বিবেককে নাকি পিছনে ফেলে বাচনভঙ্গি এবং অভিনয়ের সুবাদে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন অনুপম খের৷ তবে সমালোচকরা যাই বলুন না কেন বিবেক ওবেরয়কে ১০০-য় একশো নম্বর দিচ্ছেন মোদির বায়োপিকের প্রযোজক সুরেশ ওবেরয় এবং সন্দীপ সিং৷ কেন বিবেককে বেছে নেওয়া হল সে বিষয়ে মুখ খুললেন প্রযোজক সন্দীপ সিং৷ তিনি বলেন, ‘‘মোদির চরিত্রে কাকে বেছে নেওয়া হবে, সেই নিয়ে অনেক ভাবনাচিন্তা করা হয়৷ এরপরই আমরা সিদ্ধান্ত নিই বিবেককেই এই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য অনুরোধ করা হবে৷ সেই মতো প্রস্তাব দেওয়া হয় বিবেককে৷ রাজি হয়ে যান তিনি৷’’ প্রযোজক আরও জানান, বিবেকের অভিনয় দক্ষতা তাঁকে মুগ্ধ করেছে৷ তাই বিবেককে বেছে নেওয়া হয়৷ কারও বায়োপিক বানানো খুবই শক্ত বলেও জানান প্রযোজক৷ তাই তাঁর দাবি, বিবেক একমাত্র অভিনেতা যে এই সিনেমা তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় সময় দিতে পারবেন পরিচালক-প্রযোজককে৷ তাই বিবেককেই মোদি হিসাবে ভেবেছিলেন সন্দীপ৷

[লালবাহাদুর শাস্ত্রীর মৃত্যুরহস্যের পর্দাফাঁস! আসছে ‘দ্য তাসখন্দ ফাইলস’]

সোমবারই মুক্তি পেয়েছে মোদির বায়োপিকের ফার্স্ট লুক৷ যা নিয়ে ইতিমধ্যেই আলোচনা হয়েছে বিস্তর৷ সিনে অনুরাগীদের মন ছুঁয়েছেন সেলুলয়েডের মোদি৷ কিন্তু এর নেপথ্যে রয়েছে আরও কাহিনি৷ সেটা ঠিক কী? প্রযোজক বলছেন, ‘‘মোদির বায়োপিকের ফার্স্ট লুক শুট করার জন্য নাকি প্রায় ১৫ বার লুক টেস্ট করা হয়েছিল বিবেক ওবেরয়ের৷ একটানা সাত ঘণ্টা ধরে নাকি মেকআপ করেছিলেন বিবেক৷’’ প্রধানমন্ত্রী মোদির ধৈর্য্য আদতে কতটা সে বিষয়ে কারও কোনও ধারণা নেই৷ তবে সেলুলয়েডের মোদির ধৈর্য্য যে যথেষ্ট তা প্রযোজকের কথাতেই স্পষ্ট৷

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং