BREAKING NEWS

২৯ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে আড়ষ্টতা কাটিয়েছিলেন বিনোদই, স্মৃতিচারণায় শাবানা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: April 28, 2017 12:38 pm|    Updated: April 28, 2017 12:39 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সাতের দশকের মন মাতাল করা নায়ক তিনি। তখনও সিক্স প্যাক অ্যাবের নায়কের ধারণা বলিপাড়ার ত্রিসীমানাতেও ছিল না। এদিকে রাগী যুবক হয়ে বাজার মাতাচ্ছেন অমিতাভ বচ্চন। তারই মধ্যে সুগঠিত চেহারা, সুপুরুষ বিনোদ নিজের জায়গা করেছিলেন। সেই সময় বিনোদ-শাবানা জুটি আজও দর্শকের চোখে ভাসে। একজনের চলে যাওয়ার পর অন্যজন ডুব দিয়েছেন স্মৃতিতে। জানাচ্ছেন, ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে তাঁর জড়তা কাটিয়ে দিয়েছিলেন বিনোদই।

মধুর ভাণ্ডারকরকে খুনের চক্রান্তে ধৃত অভিনেত্রীর কারাদণ্ড ]

তখন ‘শক’ ছবির শুটিং চলছে। পরিচালনার ভার অরুণা আর বিকাশের। ব্যক্তিগত জীবনে তাঁরা স্বামী-স্ত্রী। ছবির একটি দৃশ্যে নায়ক-নায়িকাকেও তাঁরা চাইছেন একেবারে একান্ত ঘনিষ্ঠ মুহূর্তে। স্মৃতিতে ডুব দিয়ে শাবানা জানাচ্ছেন, তিনি কিছুতেই পুরো ব্যাপারটায় স্বাভাবিক হতে পারছিলেন না। আড়ষ্টতা তাঁকে জড়িয়ে ধরছিল। দূর থেকে পুরো ব্যাপারটা দেখছিলেন বিনোদ। বুঝলেন, ঠিক কোথায় অসুবিধা হচ্ছে শাবানার। এরপর রিহার্সাল পর্ব শুরু হতে উপায় বতলালেন তিনিই। শাবানাকে বিশেষভাবে ধরে পরিচালককে জিজ্ঞেস করলেন, এভাবে পোজ দিলে কি ক্যামেরায় ঠিকঠাক আসছে? এরপর শাবানার একটি হাত তুলে ধরে জানতে চান, নাকি হাতটা আর একটু উপরে তুললে ক্যামেরায় ভাল আসবে? মুহূর্তে শাবানার মনে হয়, যা ছিল ঘনিষ্ঠতা, ক্যামেরার সামনে তা যেন প্রযুক্তি হয়ে দাঁড়িয়েছে। যে জড়তা মনে ছিল, তা কেটে যায়। এরপরই স্বাভাবিক অভিনয়ে ফিরে আসে তাঁর। সে জুটিকে, সে ছবিকে আজও মনে রেখেছে সিনেপ্রেমী দর্শক।

বিনোদ খান্নার শেষকৃত্যে অনুপস্থিত শাহরুখ-সলমনরা, ক্ষোভ ঋষির ]

‘অমর আকবর অ্যান্টনি’র সময়ও বিনোদের জোরাজুরিতেই নায়িকা হয়েছিলেন শাবানা। অমিতাভ ও ঋষি কাপুরের জন্য নায়িকা নির্বাচন হয়েছিল। কিন্তু বিনোদের কোনও নায়িকা ছিল না। তা নিয়ে প্রবল আপত্তি জানান তিনি। এরপরই শাবানাকে বিনোদের নায়িকা করা হয়। সে সব কথাই আজ মনে পড়ছে তাঁর। কেরিয়ারের সোনার দিনে যাঁদের সঙ্গে কাটিয়েছেন তাঁদের এভাবে চলে যাওয়া কষ্ট দিচ্ছে শাবানাকে। জানাচ্ছেন, এই সব ঘটনাই মনে করিয়ে দিচ্ছে তাঁর সময়ও ফুরিয়ে আসছে। মৃত্যুর কথা যেন মনে করিয়ে দিচ্ছে প্রিয়জনের মৃত্যুই।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement