BREAKING NEWS

১০ কার্তিক  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ঘোঁতনের জীবনে ‘রেনবো জেলি’র রহস্য নিয়ে হাজির ‘পরি পিসি’, তারপর…

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 5, 2018 9:16 pm|    Updated: August 21, 2018 9:09 pm

Srilekha Mitra, Soukarya Ghosal share thoughts on Rainbow Jelly

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘রূপকথা যদি শুনত কথা’ কত স্বপ্নই না পূরণ হত। বাস্তবে কি রূপকথার অস্তিত্ব আছে? আছে। থাকতেই হবে। এমনই বিশ্বাস ঘোঁতনের (মহাব্রত বসু)। বাবা-মা কেউ নেই ঘোঁতনের। পরীক্ষায় ফেল করার পর মামা (কৌশিক সেন) স্কুল ছাড়িয়ে দিল। যকের ধনের গল্প শুনিয়ে দিনরাত খাটাতে লাগল। ছোট থেকেই একটু আলাদা ঘোঁতন। তাই বন্ধু বলতে বিশেষ কেউ নেই। কেবল ৫৫ বছরের চাওয়ালাটিকে (শান্তিলাল মুখোপাধ্যায়) বাদ দিয়ে। এতকিছুর পরও শিশুমনের বিশ্বাস তাঁর জীবনেও রূপকথার পরির আগমন হবে। হল! একদিন সত্যিই পরির আগমন হল। তবে রূপকথার নয় বাস্তবের পরি। ‘পরি ধর’ ওরফে ‘পরি পিসি’ (শ্রীলেখা মিত্র)। সাত স্বাদের সাত মশলা সঙ্গে করে নিয়ে এসেছে ‘পরি পিসি’। কী জাদু আছে তাতে?  জানতে ২৫ মে দেখতে হবে পরিচালক সৌকর্য ঘোষালের নতুন ছবি ‘রেনবো জেলি’।

[কেন শেষ মুহূর্তে জানানো হল, জাতীয় পুরস্কার বিতর্কে মুখ খুললেন রাষ্ট্রপতি]

মাথায় হালকা পাকা চুল, নাকের ডগায় চশমা। এ পরি যেন রূপকথা কম বাস্তব বেশি। এমনটা কেন? প্রশ্নের উত্তরে শ্রীলেখা জানালেন, এ পরি রক্তমাংসের। এর মধ্যে বাস্তবিকতা অনেক বেশি রয়েছে। রয়েছে রহস্য। ফুড ফ্যান্টাসি এ ছবি। তাই টানটান রহস্য কেবল নয় সঙ্গে রয়েছে মিষ্টি একটা কাহিনিও। হালকা পাকা চুল ও নাকের ডগায় চশমা নিয়ে এ ‘পরি পিসি’ বেশ মজার। বাকিটা ছবি দেখলেই বোঝা যাবে। এ ছবি কেবল ছোটদের জন্য নয় বড়দের জন্যও। বড়রাও এর সঙ্গে সমানভাবে একাত্ম হতে পারবে। বাস্তবের সঙ্গে যোগ রেখেও পারবে কল্পনার রাজ্যে হারিয়ে যেতে। ছোটদের গল্পের যে অভাব বরাবর সিনেমার জগতে থেকে যায়। তাকে পূরণ করতেই গরমের ছুটিতে আসছে ‘রেনবো জেলি’।

প্রত্যেকটা চরিত্র নিজের হাতে সাজিয়েছেন পরিচালক সৌকর্য। ‘পেন্ডুলাম’ ও ‘লোডশেডিং’-এর পর এমন একটা কিছু করতে চাইছিলেন যা সকলের ভাল লাগে। বাচ্চাদের নিয়ে ছবি করতে ভাল লাগে সেই জন্যই এই ইউনিভার্সাল গল্প সাজানো বলেই জানালেন সৌকর্য। খাবার ও রূপকথার প্রতি বাঙালির দুর্বলতা সর্বজনবিদিত। তাই এই দুই রং এক ফ্রেমে মিলিয়ে দিয়েছেন পরিচালক। চরিত্রের জন্য অভিনেতা বাছাইয়ের ক্ষেত্রে কোনওভাবেই আপস করেননি তিনি। প্রথম থেকেই ঘোঁতনের চরিত্রে মহাব্রতকেই পছন্দ ছিল তাঁর। কারণ পর্দার মতো বাস্তবেও স্পেশ্যাল চাইল্ড মহাব্রত। কাজটা অবশ্যই কঠিন ছিল। প্রযোজক পেতেও সমস্যা হয়েছিল। তবে ভাল কিছু করার তাগিদও ছিল। সেই তাগিদ থেকেই নিজেদের প্রযোজনায় ‘রেনবো জেলি’ তৈরি করেছেন সৌকর্য অ্যান্ড কোম্পানি। ছবির প্রত্যেকটি মুহূর্তে রয়েছে রূপকথার সারল্য ও বাস্তবের গাথা। যাকে সুন্দরভাবে বিশ্বাসযোগ্য করে তুলেছে শ্রীলেখা, কৌশিক, শান্তিলাল, মহাব্রত, অনুমেঘাদের অভিনয়।

[ফের হিন্দি ছবিতে যিশু, এবার নাসিরুদ্দিন শাহর ছেলের চরিত্রে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement