২৩  শ্রাবণ  ১৪২৯  বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

কাশ্মীরি প্রেমিককে বাংলায় ‘ভালবাসি’ বলতে শেখাচ্ছেন সুস্মিতা

Published by: Bishakha Pal |    Posted: January 15, 2019 4:25 pm|    Updated: January 15, 2019 4:25 pm

Sushmita teaches her boyfriend

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘ব ঠাস সে জান’ হোক বা ‘মি তুঝায়তি প্রেম করতে’ হোক। মোদ্দা কথা হল ‘আমি তোমায় ভালবাসি’। প্রেম নিবেদনের এই হরেক ভাষা-শিক্ষাই চলছে প্রাক্তন ‘ব্রহ্মাণ্ড’ সুন্দরীর বাড়ির অন্দরমহলে। যেন নানা ভাষা, নানা পরিধানের মিলনমেলা বসেছে মুম্বইয়ের সেন পরিবারে। সেই সঙ্গে প্রেমের আবেদন। যার কাছে বয়স, সামাজিক স্বীকৃতি সবই ফিকে হয়ে যায়। রয়ে যায় উত্তাল ভালবাসা।

জন্মসূত্রে বাঙালি সুস্মিতা সেন। তাঁর প্রেমিক অবশ্য কাশ্মীরি। মারাঠি নৃত্য শিক্ষকের সঙ্গে এই ভাষা শিক্ষার ক্লাসে যোগ দেন স্বয়ং সুস্মিতা ও তাঁর বয়ফ্রেন্ড রোহমন শওল। ক্লাসের মূল লক্ষ্য দেশ-কাল-ভাষার গণ্ডি ছাড়িয়ে প্রেম নিবেদন। সেই শিক্ষাপর্বের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করতেও ভোলেননি প্রাক্তন মিস ইউনিভার্স। ভিডিওর দেখা গিয়েছে, রোহমন ও সুস্মিতার নৃত্য-শিক্ষিকা প্রীতম শিখারে মুখোমুখি বসে একে অপরকে নিজের ভাষায় ‘আমি তোমাকে ভালবাসি’ বলতে শেখাচ্ছেন। প্রথমে রোহমন কাশ্মীরি ভাষায় প্রীতমকে শেখান ‘ব ঠাস সে জান’, এরপরেই প্রীতমকে দেখা যায় শিক্ষিকার ভূমিকায়। মারাঠিতে তিনি শেখান ‘মি তুঝায়তি প্রেম করতে’। তারপরই ভাষা শিক্ষকের লাগাম নিজের হাতে তুলে নেন স্বয়ং সুস্মিতা। ক্যামেরা হাতেই তিনি শেখান ‘আমি তোমাকে ভালবাসি’। উচ্চারণের ভুলে প্রেমিককে মৃদু্ ভর্ৎসনা করতেও ছাড়েননি তিনি। ভালবাসার মাহাত্ম্য জানাতে ভুললেন না। যার জোরে ৪৩ বছরের সুন্দরী, মডেল তথা অভিনেত্রীর কাছে ছুটে এসেছেন ১৬ বছরের ছোট এই কাশ্মীরি মডেল।

বলিউডে পা রাখতেই বিতর্কে ‘উইংক গার্ল’ প্রিয়া ]

কিছুদিন আগে বয়ফ্রেন্ডের জন্মদিনে তাঁর প্রতি ভালবাসা উজার করে দিয়েছিলেন সুস্মিতা। ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করে রহমানকে শুভেচ্ছা জানান তিনি। ছবিতে প্রেমিককে আলিঙ্গন করে ছিলেন সুস। রহমান তাঁকে রীতিমতো কোলে তুলে নিয়েছিলেন। জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে সুস্মিতা লেখেন, “দুনিয়ার সমস্ত আনন্দে ভরে যাক তোমার ঝুলি। দুটি হৃদয় এক হয়ে যাচ্ছে। কী দারুণ একটা বছর অপেক্ষা করে রয়েছে আমাদের জন্য। অনেক ভালবাসা। সুস্থ থেকো।”

২৬/১১-র দিন জীবন বিপন্ন করে অতিথিদের প্রাণ বাঁচিয়েছিল হোটেলকর্মীরা ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে