১ আশ্বিন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: কাকদ্বীপ থেকে ক্যানিং, শিয়ালদহ থেকে সোনারপুর-সহ বিভিন্ন ট্রেন ও স্টেশনে সাঁটা ঝকঝকে পোস্টার। আর পাঁচটা পোস্টারের তুলনায় সেগুলি বেশি আকর্ষণীয়। কারণ তাতে রয়েছে সুন্দরী তরুণীর ছবি এবং তাঁর হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর। সঙ্গে যৌন আবেদন। তাতে সাড়া দিয়ে ওই নম্বরে ফোনও করছেন অনেকেই। হোয়াটসঅ্যাপ ভরছে বিভিন্ন অশ্লীল মেসেজে। প্রথমে এ বিষয়ে গুরুত্ব দেননি। কিন্তু বর্তমানে ওই মেসেজই হয়ে উঠেছে ওই অভিনেত্রীর মানসিক অবসাদের কারণ। বাধ্য হয়ে সোনারপুর থানারও দ্বারস্থ হয়েছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: অশান্তির জেরে প্রেমিকার সামনেই মরণঝাঁপ, নদী থেকে উদ্ধার যুবকের দেহ]

কয়েকদিন আগে বারুইপুরে দুই অভিনেত্রীর নামে অশ্লীল মেসেজ পাঠানোর অভিযোগ ওঠে। তাঁদের ফেসবুক প্রোফাইল ব্যবহার করে সোশ্যাল মিডিয়াতে কুরুচিকর মন্তব্য ছড়ানো হয়েছিল বলেও অভিযোগ ওঠে। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার হেনস্তার শিকার টলিপাড়ার চেনা মুখ। নাট্যজগতে পায়ের তলার মাটি শক্ত হওয়ার পরই টেলিজগতে এসেছিলেন ওই অভিনেত্রী। সোনারপুরের মালঞ্চ এলাকায় একটি বহুতলে থাকেন তিনি। অভিনেত্রীর অভিযোগ, গত ২৭ আগস্ট তাঁর বন্ধু বারুইপুর স্টেশনে এমন অশ্লীল পোস্টারটি দেখেন। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তাঁকে ফোন করে বিষয়টি জানান। ২৮ আগস্ট থেকে বাড়তে থাকে ফোন ও এসএমএসের বহর। তাঁর ফেসবুক প্রোফাইল থেকে বিভিন্ন ছবি নিয়ে ওই পোস্টারে ব্যবহার করা হয়েছে বলেই অভিযোগ অভিনেত্রীর। পোস্টারে লেখা রয়েছে, “যৌনতৃপ্তির জন্য এই নম্বরে ফোন করুন।” শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার বিভিন্ন স্টেশনের ওই পোস্টারগুলিতে তাঁকে “কল গার্ল” হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ফেসবুকে বিকৃত ছবি পোস্ট, পুলিশের দ্বারস্থ নৃত্যশিল্পী]

বিরক্ত হয়ে সোনারপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই অভিনেত্রী। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তদন্তকারীদের দাবি, মানসিকভাবে দুর্বল করে দেওয়ার জন্য এই ঘটনা ঘটিয়েছে তারই পরিচিত কয়েকজন। যার মধ্যে ওই অভিনেত্রীর পরিচিত একজন চিকিৎসকও রয়েছে। তবে এই ঘটনায় এখনও কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং