২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মিলেছে ‘ক্লিন ফিড’, বাংলাদেশের দর্শকরা ফের দেখতে পাবেন ‘জি বাংলা’

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 16, 2021 10:18 pm|    Updated: October 19, 2021 2:15 pm

Cable operators in Bangladesh starts telecast Zee Bangla's programme temporarily | Sangbad Pratidin

সুকুমার সরকার, ঢাকা: বিজ্ঞাপন ছাড়াই বাংলাদেশে (Bangladesh)সম্প্রচার করছে ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেল জি বাংলা (Zee Bangla)। কেবল অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (কোয়াব) সভাপতি এস এম আনোয়ার পারভেজ এই তথ্য জানিয়েছেন। জি বাংলা কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে ‘ক্লিন ফিড’ পাওয়া যাচ্ছে। তাই পরীক্ষামূলকভাবে এই চ্যানেলের সম্প্রচার শুরু করেছেন কেবল অপারেটরসরা। তাতে হাসি ফুটেছে ছোটপর্দা প্রিয় মানুষজনের মুখে। বন্ধ থাকা বাকি চ্যানেলগুলিও ধাপে ধাপে সম্প্রচার শুরু করবে বলে আশাবাদী কোয়াব সভাপতি।

গত ১ অক্টোবর থেকে বিজ্ঞাপন (Advertisement) সংক্রান্ত জটে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশের টেলিভিশন চ্যানেলগুলি। বিজ্ঞাপন দেখানো হয়, এমন বিদেশি টিভি চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করার নির্দেশ দেয় সে দেশের সরকার। সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, যেসব বিদেশি চ্যানেলে অনুষ্ঠানের মাঝে বিজ্ঞাপন দেখায়, সেগুলি সম্প্রচার করা যাবে না। এদিকে, কেবল অপারেটরদের বক্তব্যও, বিজ্ঞাপন-সহ অনুষ্ঠান প্রচার করে, এমন বিদেশি চ্যানেলগুলি থেকে বিজ্ঞাপনের অংশটুকু কেটে বাদ দিয়ে সম্প্রচার করা সম্ভব নয়। ফলে প্রযুক্তিগত বাধ্যবাধকতার জন্যই তাঁরা চ্যানেলগুলি দেখানোই বাদ দিয়ে দিয়েছেন। ওইদিন থেকেই সব টিভি চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ হয় যায়। ফলে বহু দর্শক বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় বিদেশি চ্যানেল দেখতে পাচ্ছিলেন না, যার মধ্যে ছিল পশ্চিমবাংলার বেশ কিছু চ্যানেলও।

[আরও পড়ুন: সৌরভকে সরিয়ে ‘দাদাগিরি’র সঞ্চালনায় অঙ্কুশ!]

বাংলাদেশের কেবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইনের ১৯(১৩) ধারায় বলা হয়েছে, কেবল টিভি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বিদেশি কোনও চ্যানেলে বিজ্ঞাপন সম্প্রচার করা যাবে না। এই আইনের জেরে ২০১৯ সালে বাংলাদেশে জি নেটওয়ার্কের চ্যানেলগুলি প্রায় ২৪ ঘণ্টা বন্ধ ছিল। সেবার ভিন দেশের টিভি চ্যানেলে বাংলাদেশি বিজ্ঞাপন কেন সম্প্রচারিত হচ্ছে? তা জানতে চেয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের তরফ থেকে নোটিস দেওয়া হয়েছিল। তারপরই ডিস্ট্রিবিউটর সংস্থা জাদু ভিশন লিমিটেডের পক্ষ থেকে বাংলাদেশে ওই চ্যানেলগুলির সম্প্রচার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

কেবল অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (কোয়াব) প্রতিষ্ঠাতা তথা সভাপতি এস এম আনোয়ার পারভেজ বলেন, “অনেকে মনে করছেন, কেবল অপারেটররা অন্য কোনও কারণে বিদেশি চ্যানেলগুলির সম্প্রচার বন্ধ রেখেছেন। কিন্তু বিষয়টি তা নয়। আমরা সরকারের নির্দেশ মেনে চলছি। ওই নির্দেশিকা মতে, বিজ্ঞাপন-সহ অনুষ্ঠান প্রচার করে, এমন বিদেশি চ্যানেল বাংলাদেশে দেখানো যাবে না। তাই সেসব চ্যানেল সম্প্রচার করা আমরা আপাতত বন্ধ রেখেছি।” আনোয়ার পারভেজ আরও জানান, সরকার পরবর্তী সময়ে নতুন কোনও নির্দেশ দিলে বা পদক্ষেপ নিলে, তাঁরা সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন। তবে দিন ১৫ কাটতে না কাটতেই সমস্যা সাময়িকভাবে মিটল। জি বাংলা চ্যানেলের তরফে ‘ক্লিন ফিড’ পাওয়ায় আপাতত চালু হল সেই চ্যানেলটি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে